শনিবার   ০২ মার্চ ২০২৪ || ১৮ ফাল্গুন ১৪৩০

প্রকাশিত: ১২:৫৪, ৯ ফেব্রুয়ারি ২০২৪

আসছে ফাল্গুন-ভালোবাসা দিবস, বাড়ছে ফুলের দাম

আসছে ফাল্গুন-ভালোবাসা দিবস, বাড়ছে ফুলের দাম
সংগৃহীত

বসন্ত বরণ, ভালোবাসা দিবস আর আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবসকে ঘিরে প্রতিবছর সারাদেশে জমে ওঠে ফুলের বাজার। এ বছর একটু আগেভাগেই শুরু ফুলের বাণিজ্য। ভিড় বেড়েছে ফুল দোকানগুলোতে। তবে সংকট দেখা দিয়েছে গোলাপের।

ফুলের রানী গোলাপের কদর বাড়ে পহেলা ফাল্গুন ও বিশ্ব ভালোবাসা দিবসে। তবে এখনো এই দিবসটির বাকি ৬ দিন। এরই মধ্যে উত্তরের এ জেলায় জমে উঠেছে গোলাপের বেচাকেনা। বিক্রি হচ্ছে ৫ গুণ বেশি দামে। কয়েকদিন আগেও যে গোলাপ বিক্রি হতো ১০ থেকে ১৫ টাকায়। সেটি এখন বিক্রি হচ্ছে ৫০ থেকে ৬০ টাকায়। তবুও পাওয়া যাচ্ছে না গোলাপ।

পঞ্চগড় শহরের বেশ কয়েকটি ফুলের দোকান ঘুরে দেখা যায়, অন্যান্য ফুলের তুলনায় গোলাপের চাহিদা বেশি। তবে বিক্রেতারা দাম হাঁকছেন বেশি। বাধ্য হয়ে বেশি দামেই কিনছেন ক্রেতারা। এছাড়া রজনীগন্ধা বিক্রি হচ্ছে ২০ টাকা এবং চন্দ্রমল্লিক ১০-১৫ টাকা করে বিক্রি হচ্ছে। 

শহরের মালঞ্চ ফুল হাউজে কথা হয় স্কুলছাত্র নিশাতের সঙ্গে। সে বলে, গোলাপ ফুলের দাম তুলনামূলক বেশি নিচ্ছে বিক্রেতারা। একটি গোলাপ নিয়েছি ৫০ টাকা দিয়ে।

 

ফুলের দোকান

ফুলের দোকান

 

একই দোকানে একটি ফুলের তোড়া কিনেন ইকবাল বাহার। তিনি বলেন, প্রায় সময়ই তোড়া কিনতে হয়; কিন্তু এবার কিনতে হলো অনেক বেশি দামে। অন্য সময় যেটার দাম ২৫০ টাকা ছিলো, সেটা আজকে ৬০০ টাকা। তাও আবার তোড়ায় গোলাপের সংখ্যা খুবই কম।

ফুল বিক্রেতা নুর আলম বলেন, হঠাৎ করেই ফুলের চাহিদা বেড়ে গেছে। বিভিন্ন বিদ্যালয়ে এসএসসি পরীক্ষার্থীদের বিদায় এবং নতুন শিক্ষার্থীদের বরণ অনুষ্ঠানে প্রচুর ফুলের চাহিদা। এছাড়া সামনে বসন্ত বরণ ও ভালোবাসা দিবসেও বাড়ে ফুলের চাহিদা।

ফুল বিক্রেতা মাহবুব আলম বলেন, কয়েকদিন আগেও গোলাপ ১০ টাকা করে বিক্রি করেছি। এখন বেশি দামে কিনতে হচ্ছে; তাই বিক্রিও করছি বেশি দামে। আগামী ২১ ফেব্রুয়ারি পর্যন্ত এমন চলবে।

সূত্র: ডেইলি-বাংলাদেশ

সর্বশেষ

জনপ্রিয়