মঙ্গলবার   ০৫ মার্চ ২০২৪ || ২১ ফাল্গুন ১৪৩০

প্রকাশিত: ১৮:১৬, ২১ নভেম্বর ২০২৩

ডায়াবেটিস রোগীরা কেন দাঁত ও মাড়ির রোগে ভোগেন?

ডায়াবেটিস রোগীরা কেন দাঁত ও মাড়ির রোগে ভোগেন?
সংগৃহীত

ডায়াবেটিস নিয়ন্ত্রণে না রাখলে দাঁত ও মাড়ির নানা রোগের ঝুঁকিতে পড়েন রোগীরা। কারণ ডায়াবেটিসের সঙ্গে দাঁত, মাড়ি ও মুখের নানা রোগের সম্পর্ক আছে। মূলত ডেন্টাল ক্যারিজ, মাড়ির রোগ, মুখে বিভিন্ন ধরনের সাদা ঘা, দাঁতের ক্ষয়, প্রদাহ,সিস্ট, মাড়ির টিউমার, জিনজিভাইটিস, পেরিয়ডোনটাইটিস, আঁকাবাঁকা দাঁত ইত্যাদি বিভিন্ন সমস্যার সঙ্গে রক্তের শর্করার নিবিড় সম্পর্ক আছে।

ডায়াবেটিসের কারণে রক্তপ্রবাহে বিঘ্ন ঘটে, রোগ প্রতিরোধক্ষমতা কমে ও রোগজীবাণুর আক্রমণের ঝুঁকি বাড়ে বহুগুণে। বিশেষজ্ঞদের মতে, ডায়াবেটিস আক্রান্তদের দাঁত ও মাড়ির রোগ হওয়ার হার ৮৬ শতাংশ। তাই ডায়াবেটিস নিয়ন্ত্রণে রাখা অত্যন্ত জরুরি।

জেনে রাখা ভালো, মুখে ৮০০টিরও বেশি প্রজাতির বিভিন্ন ধরনের ব্যাকটেরিয়া আছে! মুখ একটি খুবই জটিল বাস্তুতন্ত্র। গড়ে স্বাস্থ্যকর মুখ গহ্বরে প্রায় ৮০০ প্রজাতির ব্যাকটেরিয়ার বাস, আর প্রতিটি দাঁতে এক বিলিয়নেরও বেশি ব্যাকটেরিয়া থাকে।

যখন মুখ গহ্বরে ব্যাকটেরিয়ার ভারসাম্য থাকে, তখন শরীরে রোগ প্রতিরোধ করার জন্য একটি শক্তিশালী প্রাকৃতিক প্রতিরক্ষা ব্যবস্থা থাকে। তবে যখন এটি ভারসাম্যহীন হয়, তখন ইমিউন সিস্টেম আরও দুর্বল হয়, যা মুখের স্বাস্থ্য আরও সংবেদনশীল করে জটিলতর করে তোলে।

তাই দাঁত ও মাড়ি সুস্থ রাখতে কঠিন পদার্থ এড়িয়ে মৃদু পণ্য ব্যবহার করুন, যাতে মুখের ভালো ও খারাপ ব্যাকটেরিয়াগুলোর ভারসাম্য নষ্ট না হয় ও তাদের বাসস্থান ঠিক থাকে।

এছাড়া মুখ ও দাঁতের স্বাস্থ্য রক্ষায় ফ্লোরাইড সমৃদ্ধ টুথপেস্ট ব্যবহার করুন। তবে ডায়াবেটিস আক্রান্ত রোগীদের জন্য ন্যাচারোভিশন বাংলাদেশ লিমিটেডের বায়োডেন্ট ডায়াবেটিথ টুথপেষ্ট ব্যবহার করতে পারেন। যা ডায়াবেটিস আক্রান্ত রোগীর কথা চিন্তা করেই দেশে প্রথম নিয়ে এসেছে।

সূত্র: ডেইলি-বাংলাদেশ

সর্বশেষ

জনপ্রিয়