বৃহস্পতিবার   ২৯ ফেব্রুয়ারি ২০২৪ || ১৬ ফাল্গুন ১৪৩০

প্রকাশিত: ১৪:৩৯, ২৬ নভেম্বর ২০২৩

আপডেট: ১৪:৪৪, ২৬ নভেম্বর ২০২৩

হিমালয়ের আমা দাবলামের চূড়ায় নিশাত-রূপক

হিমালয়ের আমা দাবলামের চূড়ায় নিশাত-রূপক
সংগৃহীত

নেপালের ‘ভয়ংকর’ পর্বত আমা দাবলামের চূড়ায় বাংলাদেশের পতাকা উড়িয়েছেন নিশাত মজুমদার ও কাওছার রূপক। বৃহস্পতিবার সকালে এ চূড়ায় পা রাখেন তারা দুজন।

শুক্রবার সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে ভিন্ন ভিন্ন পোস্টে তথ্যটি নিশ্চিত করেছেন নিশাত মজুমদার ও কাওছার রূপক। জানা গেছে, বৃহস্পতিবার সকাল পৌনে ৯টায় আমা দাবলামের চূড়ায় পৌঁছান রূপক। আর একই দিন সকাল ১০টায় হিমালয়টির চূড়ায় ওঠেন নিশাত।

এক ভিডিও বার্তায় কাওছার রূপক বলেন, ‘আলহামদুলিল্লাহ। সফলভাবে মাউন্ট আমা দাবলামে চূড়ায় পৌঁছেছি। আমরা এই রোমাঞ্চকর পর্বত সফলভাবে সামিট করেছি।’

তিনি বলেন, ‘গতকাল (বৃহস্পতিবার) রাত ১২টায় ক্যাম্প-৩ থেকে আমরা রওনা হয়েছিলাম। সেখান থেকে সামিট পুশের উদ্দেশে রওনা দেওয়ার ঘন্টা দেড়েক পর নিশু আপুর (নিশাত মজুমদার) শেরপা গাইড নিচে নেমে যান। তখন আমার গাইড নিশু আপুর কাছে চলে যায়। তারপর থেকে একক প্রচেষ্টায় আমি অভিযান করি। অবশেষে আমা দাবলামের চূড়ায় পৌঁছালাম।’

আমা দাবলামে গিয়ে তিক্ত অভিজ্ঞতার শিকার হয়েছেন নিশাত ও রূপক। বিষয়টি নিয়ে রূপক জানিয়েছেন, এটা তাদের তৃতীয় অভিযান। আর দ্বিতীয় প্রচেষ্টায় সামিট পুশ করেন তারা।

তার কথায়, এর আগে ১৭ নভেম্বর শেরপাদের অসহযোগিতা ও প্রতিকূল আবহাওয়ার কারণে আমা দাবলমের চূড়ার ২০০ মিটার কাছে গিয়েও ক্যাম্প-২ এ ফিরতে হয় তাদের। এরপর ২২ নভেম্বর মাঝরাত থেকে অভিযান পরিচালনা করে বৃহস্পতিবার চূড়ায় সফলভাবে আরোহণ করতে সক্ষম হয় তারা।

প্রসঙ্গত, মাউন্ট আমা দাবলামের উচ্চতা প্রায় ৬ হাজার ৮১২ মিটার বা ২২ হাজার ৩৪৯ ফুট। এ পর্বতটি বেশ টেকনিক্যাল। এজন্য হিমালয়ের পর্বতটিকে ‘ভয়ংকর’ হিসেবে বিবেচনা করা হয়।

 

সূত্র: ডেইলি-বাংলাদেশ

সর্বশেষ

জনপ্রিয়