• শনিবার   ০৮ অক্টোবর ২০২২ ||

  • আশ্বিন ২২ ১৪২৯

  • || ১০ রবিউল আউয়াল ১৪৪৪

জ্বরে কেন মরিচ ভালো

দৈনিক গাইবান্ধা

প্রকাশিত: ১৯ আগস্ট ২০২২  

কুসুম গরম পানিতে গোসল করুন। কুসুম গরম পানিতে গোসল করলে শরীরের তাপমাত্রা কমে যাবে। জ্বর নিয়ে ঠান্ডা পানিতে গোসল করলে ত্বক শীতল হয়ে পড়বে ও কাঁপুনি শুরু হবে।

গোসল করতে না চাইলে কপাল ও ঘাড়ের ওপর ঠান্ডা পানিতে ভেজানো নরম কাপড় রাখলেও জ্বর কমবে। গা মুছেও নিতে পারেন। বগল ও কুঁচকির মতো উচ্চ তাপমাত্রার অংশে স্বাভাবিক তাপমাত্রার পানিতে ভেজানো স্পঞ্জ বা নরম কাপড় দিয়ে মুছে নিলে জ্বর কমে আসবে।শরীরকে শীতল করার একটি প্রক্রিয়া হচ্ছে ঘাম নিঃসরণ। তাই শরীর থেকে ঘাম ঝরিয়ে জ্বর কমাতে বারবার আদা-চা, লেবু-চা ইত্যাদি পান করতে পারেন।

ঝাল মরিচের একটি প্রধান উপাদান হলো ক্যাপসাইসিন। এটি শরীর থেকে ঘাম ঝরিয়ে জ্বর কমাতে পারে। বিশেষ করে ঠান্ডা জ্বর বা ফ্লু হলে এক বাটি গরম স্যুপে ঝাল মরিচ বা গোলমরিচ দিয়ে খেলে ভালো লাগবে।

জ্বরের সময় শরীর সহজেই পানিশূন্য হতে পারে। তাই প্রতিদিন ৮ থেকে ১২ গ্লাস পানি পান করুন।

দৈনিক গাইবান্ধা
দৈনিক গাইবান্ধা