• শনিবার   ১০ ডিসেম্বর ২০২২ ||

  • অগ্রাহায়ণ ২৫ ১৪২৯

  • || ১৪ জমাদিউল আউয়াল ১৪৪৪

৪০ প্রজাতির মুরগি পালনে সফল জাহাঙ্গীর, মাসিক আয় ৫০ হাজার!

দৈনিক গাইবান্ধা

প্রকাশিত: ৫ অক্টোবর ২০২২  

দেশী বিদেশী প্রায় ৪০ প্রজাতির মুরগি পালনে সফলতার পাশাপাশি চমক দেখিয়েছেন রাজবাড়ী জেলার কালুখালী উপজেলার তরুণ উদ্যোক্তা মো. জাহাঙ্গীর হোসেন। তার খামারের একেকটি বিদেশী মুরগি বিক্রি হচ্ছে ২০ হাজার থেকে শুরু করে ৭০ হাজার টাকা পর্যন্ত। তার এমন সাফল্যে বিদেশি মুরগি পালন অনেক তরুণ উদ্যোক্তা আগ্রহী হয়ে উঠছেন বলে জানিয়েছেন তিনি।

জানা যায়, শখের বশে তিনি ২০১৬ সালে স্বল্প পরিসরে মাত্র চার জোড়া বিদেশি মোরগ-মুরগি দিয়ে খামার শুরু করেন। ধীরে ধীরে খামার যুক্ত করেছেন সেব্রাইট, পুলিশ ক্যাপ, সিলভার লেস, সেরেমা, কসমো, সুমাত্রা, ব্লু বারলেস, ইয়োকোহামা সহ বিশ্বের প্রায় ৪০ প্রজাতির মুরগি। ভারত, ভিয়েতনাম, বেলজিয়াম, চীন, জাপান, নেদারল্যান্ড, আমেরিকা,ইন্দোনেশিয়া থেকে তিনি এসব মুরগি সংগ্রহ করেছেন।

খামারি জাহাঙ্গীর বলেন, ডিপ্লোমা শেষে ভাল চাকরি না পাওয়ায় কয়েকটি দেশ ঘুরে আমি ভারতে যাই। পরবর্তীতে সেখান থেকে মাত্র চার জোড়া উন্নত জাতের মোরগ-মুরগি নিয়ে আসি। সেই যে শুরু আর আমাকে পিছনে ফিরে তাকাতে হয়নি। বর্তমানে খামারে পৃথিবীর বিভিন্ন দেশ থেকে আনা প্রায় ৪০ প্রজাতির বিদেশি মোরগ-মুরগির জোড়া আছে।

তিনি আরও বলেন, বর্তমানে প্রতি মাসে প্রায় পাঁচ লাখ টাকার বিদেশি মুরগি ও মুরগির বাচ্চা বিক্রি করি। প্রতি মাসে খাদ্য, ঔষধসহ অন্যান্য আনুষঙ্গিকসহ খরচ হয় প্রায় দশ হাজার টাকা। পুঁজি বাদ দিয়ে মাসে ৩০ হাজার থেকে ৫০ হাজার টাকা লাভ থাকে।

রাজবাড়ী সদর উপজেলা প্রাণিসম্পদ কর্মকর্তা ডা. খায়ের উদ্দীন আহম্মেদ জানান, মো. জাহাঙ্গীর হোসেনের খামারে বিভিন্ন দেশের প্রায় ৪০ প্রজাতির মুরগি আছে। নতুন যারা এই ধরনের খামার করতে আগ্রহী হবেন তাদের প্রাণীসম্পদ অফিসের পক্ষ থেকে সহযোগিতা প্রদান করা হবে।

দৈনিক গাইবান্ধা
দৈনিক গাইবান্ধা