বুধবার   ১৭ জুলাই ২০২৪ || ১ শ্রাবণ ১৪৩১

দৈনিক গাইবান্ধা

প্রকাশিত : ১২:৩০, ১৪ জুন ২০২৪

নেদারল্যান্ডসকে হারিয়ে সুপার এইটে এক পা বাংলাদেশের

নেদারল্যান্ডসকে হারিয়ে সুপার এইটে এক পা বাংলাদেশের
সংগৃহীত

আগেই জানা ছিল, বাংলাদেশ-নেদারল্যান্ডসের মধ্যকার ম্যাচের বিজয়ী দল চলমান টি-২০ বিশ্বকাপের সুপার এইটের দৌড়ে এগিয়ে যাবে। ফলে দুই দলের জন্যই লড়াইটা ছিল গুরুত্বপূর্ণ। যে লড়াইয়ে শেষ হাসি হেসেছে টাইগাররা।

সেন্ট ভিনসেন্টের আর্নস ভ্যালে ক্রিকেট স্টেডিয়ামে আগে ব্যাট করে পাঁচ উইকেটে ১৫৯ রান সংগ্রহ করে বাংলাদেশ। জবাবে নির্ধারিত ২০ ওভারে ১৩৪ রানের বেশি করতে পারেনি নেদারল্যান্ডস। টাইগারদের জয় ২৫ রানে। এই জয়ে সুপার এইট প্রায় নিশ্চিত লাল-সবুজদের।

তিন ম্যাচে দুই জয়ে বাংলাদেশের পয়েন্ট ৪। নেদারল্যান্ডসের ২। ডাচরা শেষ ম্যাচ জিতলে তাদের পয়েন্ট হবে ৪। সেক্ষেত্রে বাংলাদেশ হারলেও রান রেটে এগিয়ে থাকার সম্ভাবনা বেশি। ফলে শেষ ম্যাচ হারলেও টাইগারদের সুপার এইট প্রায় নিশ্চিত বলা যায়।

নেদারল্যান্ডসের হয়ে রান তাড়া করতে নেমে উদ্বোধনী জুটিতে ২২ রান যোগ করেন মাইকেল লেভিট ও ম্যাক্স ও'দাউদ। নিজের দ্বিতীয় ওভারের দ্বিতীয় বলে ১৮ রান করা লেভিটকে আউত করেন তাসকিন। ম্যাক্সকে ফেরান তানজিম সাকিব।

তবে পাল্টা আক্রমণে দলকে এগিয়ে নিতে থাকেন বিক্রমজিৎ সিং ও সিব্র্যান্ড এঙ্গেলব্রেখট। দুজনে গড়েন ৩৭ রানের জুটি। রিয়াদের বলে বিক্রমজিৎ ২৬ রানে আউট হলেও স্বস্তিতে নেই বাংলাদেশ। চতুর্থ উইকেটে আবার প্রতিরোধ গড়েন এঙ্গেলব্রেখট ও এডওয়ার্ডস।

১৫তম ওভারে জোড়া আঘাত হানেন রিশাদ। প্রথমে ৩৩ রান করা এঙ্গেলব্রেখটকে ফেরান তিনি। পরের বলে লিটন দাসের দুর্দান্ত স্ট্যাম্পিংয়ে আউট হন বাস ডি লিড। এরপর আর ম্যাচে ফিরতে পারেনি ডাচরা। আসা যাওয়ার মিছিলে ছিলেন বাকি ব্যাটাররা।

এডওয়ার্ডস ২৫ রান করেন। বাংলাদেশের সেরা বোলার রিশাদ হোসেন নেন ৩ উইকেট। এছাড়া তাসকিন আহমেদ দুটি এবং মুস্তাফিজুর রহমান, তানজিম হাসান সাকিব ও মাহমুদউল্লাহ রিয়াদের প্রত্যেকে একটি করে উইকেট শিকার করেন।

এর আগে আজ টস জিতে ফিল্ডিং করার সিদ্ধান্ত নেন নেদারল্যান্ডস অধিনায়ক স্কট অ্যাডওয়ার্ডস। বাংলাদেশের হয়ে তানজিদ তামিমের সঙ্গে ইনিংস উদ্বোধনে নামেন নাজমুল হোসেন শান্ত। ইনিংসের দ্বিতীয় বলেই আরিয়ান দত্তের বলে শান্ত ১ রান করে আউট হন।

তিনে নেমে সুবিধা করতে পারেননি লিটন দাস। এঙ্গেলব্রেখটের অবিশ্বাস্য ক্যাচে পরিণত হয়ে তিনিও ১ রান করে আউট হন। শুরুতেই দুই উইকেট হারিয়ে বাংলাদেশ কিছুটা চাপে পড়লেও সেটা দূর করেন তামিম ও সাকিব।

এ দুজনের ৪৮ রানের জুটিতে ম্যাচে ফেরে টাইগাররা। মাঝে ৩৫ রানে তামিম ফিরলে এ জুটি ভাঙে। তাওহীদ হৃদয় আজ ব্যাট হাতে ব্যর্থ ছিলেন। তিনি ৯ রানে বোল্ড হন। তবে একপ্রান্ত আগলে দলকে এগিয়ে নিতে থাকেন সাকিব।

দায়িত্বশীল ব্যাটিংয়ে অর্ধশতক পূরণ করেন সাকিব। পল মিকিরিনের বলে সিঙ্গেল নিয়ে মাইলফলকে পৌঁছান এ অলরাউন্ডার। পরের বলে ২৫ রানে বাউন্ডারির কাছে ধরা পড়েন মাহমুদউল্লাহ রিয়াদ।

ইনিংস শেষে ৪৬ বলে ৬৪ রানে অপরাজিত থাকেন সাকিব। অন্যপ্রান্তে ৭ বলে ১৪ রানের ক্যামিও খেলেন জাকের আলী। নেদারল্যান্ডসের হয়ে আরিয়ান দত্ত ও পল ভ্যান মিকিরিন দুটি এবং টিম প্রিঙ্গল একটি করে উইকেট নেন।

সূত্র: ডেইলি বাংলাদেশ

সর্বশেষ

জনপ্রিয়

সর্বশেষ