• শুক্রবার   ২৭ জানুয়ারি ২০২৩ ||

  • মাঘ ১৩ ১৪২৯

  • || ০৪ রজব ১৪৪৪

শীতে ওয়াটার হিটার ব্যবহার করছেন? সতর্ক থাকবেন যেভাবে

দৈনিক গাইবান্ধা

প্রকাশিত: ৭ জানুয়ারি ২০২৩  

শীত আসতেই বেড়ে যায় ওয়াটার হিটার বা পানি গরম করার মেশিনের ব্যবহার। নিত্যপ্রয়োজনীয় কাজ কিংবা গোসলের পানি ব্যবহারে এ সময় বেশিরভাগ মানুষই ওয়াটার হিটার ব্যবহার করেন।

যার মধ্যে অন্যতম হলো ইমারশান ওয়াটার হিটার। এটি ব্যবহার করা বেশ সহজ, এই হিটার পানির মধ্যে দিলেই তা গরম হয়ে যায়। তবে এই হিটার খুবই বিপজ্জনক।

অতীতে এমন অনেক ঘটনা ঘটেছে, যেখানে এই ওয়াটার হিটার ব্যবহার করতে গিয়ে বড় দুর্ঘটনা ঘটেছে, এমনকি বৈদ্যুতিক শকে মুত্যু পর্যন্তও ঘটেছে অনেকেরই।

তাই এই ওয়াটার হিটার ব্যবহারে সবাইকে সতর্ক থাকতে হবে। তাই ইমারশান ওয়াটার হিটার ব্যবহারের আগে অবশ্যই জেনে নিন সেটি কীভাবে ব্যবহার করবেন-

পুরোনো ওয়াটার হিটার ব্যবহার করবেন না

অনেকেই দীর্ঘদিনের পুরোনো ওয়াটার হিটার বছরের পর বছর ব্যবহার করেন। তবে মনে রাখবেন সবকিছুরই আয়ু আছে। তাই বেশি পুরোনো ওয়াটার হিটার ব্যবহার করবেন না। ২-৩ বছর হলেই ইমারশান ওয়াটার হিটারটি বদলে ফেলুন।

ব্যবহারে সতর্কতা

ইমারশান হিটারের রড দিয়ে পানি গরম করার ক্ষেত্রে বালতিতে দেওয়ার পরে সেটি যেন এদিক-ওদিক নড়বড় না করে, বা বালতির গায়ে না লাগে সেদিকে খেয়াল রাখুন।

আগে পানির মধ্যে হিটারটি দিয়ে তারপর সুইচ অন করবেন, আবার পানি গরম হয়ে গেলে সুইচ অফ করে রড বের করে নিন। ভুলেও প্লাগ লাগানো অবস্থায় কখনো ইমারশান রড বসানো না বের করবেন না।

এমনকি রড বসানো অবস্থায় পানিতে হাত দেবেন না বা মগে করে অতিরিক্ত পানি ঢালবেন না তুলবেনও না। আর মনে রাখবেন, নির্দিষ্ট দাগের থেকে বেশি বা কম পানিতে ইমারশান রডটি ব্যবহার করবেন না।

নোংরা পরিষ্কার করুন

ইমারশান হিটার রডের ক্রমাগত ব্যবহারে এর উপর সাদা আবরণ হতে পারে। এর ফলে রড দ্রুত গরম হয় না। বিদ্যুৎ খরচও বেড়ে যায়। তাই স্ক্রাবার বা ব্রাশ দিয়ে জং ধরা রডটি পরিষ্কার করুন।

লোহার বালতি ব্যবহার করবেন না

পানি গরম করার সময়ে লোহার বালতিতে ইমারশান ওয়াটার হিটার রড ব্যবহার করবেন না। প্লাস্টিকের বালতি ব্যবহার করুন। তবে এক্ষেত্রে আবার পানি বেশি গরম হলে প্লাস্টিক গলে যেতে পারে।

শিশুদের থেকে দূরে রাখুন

এই হিটার ব্যবহার সময় শিশুরা যেন আশপাশে না থাকে বা পানিতে হাত দেওয়ার চেষ্টা না করে সেদিকে খেয়াল রাখুন।

সূত্র: হিন্দুস্তান টাইমস

দৈনিক গাইবান্ধা
দৈনিক গাইবান্ধা