বৃহস্পতিবার   ১৮ এপ্রিল ২০২৪ || ৪ বৈশাখ ১৪৩১

প্রকাশিত: ০৯:৫০, ৫ মার্চ ২০২৪

ইউটিউব নয়, ব্যথা সারাতে বিশেষজ্ঞের পরামর্শ নিন

ইউটিউব নয়, ব্যথা সারাতে বিশেষজ্ঞের পরামর্শ নিন
সংগৃহীত

অনেকেই কোমর বা ঘাড়ের ব্যথায় ভোগেন। তবে এটি কোনো রোগ নয়, রোগের লক্ষণমাত্র। শুধু ব্যথার ওষুধ খেয়ে বা কিছু ব্যায়াম করে সাময়িকভাবে হয়তো কোমর, ঘাড় বা অন্য কোনো শারীরিক ব্যথা নিয়ন্ত্রণ করা সম্ভব। কিন্তু ব্যথার কারণ নির্মূলে অবশ্যই রোগ সারানোর চিকিৎসা বা ডিজিজ মোডিফাইং ট্রিটমেন্ট করাতে হবে। এ ধরনের চিকিৎসায় বিশেষজ্ঞের পরামর্শ নিতে হবে, ইউটিউব বা সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমের নয়। 

কোনগুলো রোগ সারানোর চিকিৎসা
ব্যাকটেরিয়ার সংক্রমণে অসুখ হলে শরীরে ব্যাকটেরিয়া ধ্বংসে যে অ্যান্টিবায়োটিক কোর্স করা হয়, সেটাই সহজ বাংলায় রোগ সারানোর চিকিৎসা। কিন্তু শারীরিক ব্যথার কারণগুলো এত সুনির্দিষ্ট হয় না এবং বেশির ভাগ ক্ষেত্রে এগুলো মোডিফাই করার জন্য কোনো ওষুধ পৃথিবীতে নেই। ব্যথার কারণ নির্মূলে তাই নির্ভর করতে হয় সুনির্দিষ্ট ব্যায়ামের ওপর।

অনেকেই প্রশ্ন করে থাকেন, ব্যায়ামের আবার প্রকারভেদ কী? নির্দিষ্ট ব্যাকটেরিয়া ধ্বংস করতে যেমন সুনির্দিষ্ট অ্যান্টিবায়োটিক দিতে হয়, তেমনি ব্যথার সঠিক কারণ নির্ণয় করে সুনির্দিষ্ট ব্যায়াম করতে হয়। ধরুন, আপনার কোমরে ব্যথার কারণ হলো স্পন্ডাইলোলিসথেসিস বা হাড় সরে যাওয়া। এ ক্ষেত্রে যদি আপনি ব্যাক এক্সটেনশন এক্সারসাইজ করেন, তাহলে তা হিতে বিপরীত ফল আনবে। আবার অনেক দীর্ঘমেয়াদি কোমরব্যথা হয় মানসিক কারণে। সে ক্ষেত্রে কোনো ধরনের ব্যায়ামই কাজ করবে না। 

রোগীর করণীয় কী
ব্যথা সারানোর অনেক ব্যায়াম খুব জনপ্রিয়। ইউটিউব বা ফেসবুক খুললেই বিভিন্ন ধরনের ব্যায়ামের কৌশল দেখতে পাওয়া যায়। কিন্তু এ ধরনের ব্যায়াম বেশির ভাগ সময়ই বিপদ ডেকে আনে। ইউটিউব দেখে ব্যায়াম করে কোমরে, ঘাড়ে বা হাঁটুর সমস্যায় পড়া রোগীর সংখ্যা নেহাত কম নয় এবং এই সংখ্যা দিনে দিনে বাড়ছে।

ইউটিউবে হাজার হাজার ভিউর ব্যায়াম দেখে অনেক রোগী মনে করেন, তাঁর সমস্যা সমাধানেও সেই ব্যায়াম কাজ করবে। আসলে এটি ভুল ধারণা। প্রত্যেক মানুষের শরীর বিভিন্ন অবস্থায় ভিন্ন ভিন্ন আচরণ করে এবং ভিন্ন ভিন্ন চিকিৎসার প্রতি সংবেদনশীল থাকে। সারা বিশ্বে তাই পারসোনালাইজড চিকিৎসার গুরুত্ব ও জনপ্রিয়তা বাড়ছে। পারসোনালাইজড চিকিৎসার মূলমন্ত্র হলো রোগীর চিকিৎসা। এই চিকিৎসা রোগীর চাহিদা অনুযায়ী সুনির্দিষ্টভাবে কাজ করে। বলা বাহুল্য, এ ধরনের চিকিৎসার ফল খুবই ভালো।

অসুখ হলে চিকিৎসকের পরামর্শ ছাড়া যেমন ফার্মেসি থেকে ওষুধ কিনে খেলে বিপদে পড়তে হয়, ঠিক তেমনি ইউটিউব বা সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম দেখে জনপ্রিয় অথচ ভুল ব্যায়াম করলে ব্যথা বাড়তে পারে, শরীরের ক্ষতি হতে পারে। ফলে ব্যথার জন্য বিশেষজ্ঞের পরামর্শ নিন, সুস্থ থাকুন।

সূত্র: ডেইলি বাংলাদেশ

সর্বশেষ

জনপ্রিয়

সর্বশেষ

শিরোনাম

ইন্টার্ন চিকিৎসকদের ভাতা বাড়িয়ে প্রজ্ঞাপনদেশবাসীকে বাংলা নববর্ষের শুভেচ্ছা প্রধানমন্ত্রীরঈদে বেড়েছে রেমিট্যান্স, ফের ২০ বিলিয়ন ডলারের ওপরে রিজার্ভ১৪ কিলোমিটার আলপনা বিশ্বরেকর্ডের আশায়তাপপ্রবাহ বাড়বে, পহেলা বৈশাখে তাপমাত্রা উঠতে পারে ৪০ ডিগ্রিতেনেইমারের বাবার দেনা পরিশোধ করলেন আলভেজ‘ডিজিটাল ডিটক্স’ কী? কীভাবে করবেন?বান্দরবানে পর্যটক ভ্রমণে দেয়া নির্দেশনা চারটি স্থগিতআয়ারল্যান্ডের সর্বকনিষ্ঠ প্রধানমন্ত্রীকে শেখ হাসিনার অভিনন্দনসুইজারল্যান্ডে স্কলারশিপ পাওয়ার উপায় কিবৈসাবি উৎসবের আমেজে ভাসছে ৩ পার্বত্য জেলাসবাই ঈদের নামাজে গেলে শাহনাজের ঘরে ঢুকে প্রেমিক রাজু, অতঃপর...