শুক্রবার   ২৪ মে ২০২৪ || ৯ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১

প্রকাশিত: ০৭:৩৯, ১৯ সেপ্টেম্বর ২০২৩

তানজিম সাকিবের ফেসবুক পোস্ট আইসিসির সঙ্গে সাংঘর্ষিক

তানজিম সাকিবের ফেসবুক পোস্ট আইসিসির সঙ্গে সাংঘর্ষিক

নারীদের প্রতি বিদ্বেষ ভাব বেরিয়ে এসেছে তানজিম সাকিবের এক স্ট্যাটাসে। আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে পা রাখার পর পরই তার এই বিদ্বেষপূর্ণ মনোভাব এলো। সেই সঙ্গে বিজয় দিবস ও জাতীয় সংগীতের প্রতিও বিরূপ মনোভাব প্রকাশ করেছেন তিনি।

বেশ কয়েকদিন ধরে গণমাধ্যমে বিষয়টি নিয়ে আলোচনা হলেও এখন পর্যন্ত ক্ষমা প্রার্থনা করেননি তিনি। এ বিষয়ে বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ডও (বিসিবি) চুপ রয়েছে। তবে এক সূত্রে জানা গেছে যে, বিষয়টি নিয়ে বিসিবি বিব্রত। তারা বিষয়টি নিয়ে তদন্ত করছে বলেও জানানো হয়েছে। এখানে স্পষ্টতই বৈষম্যের কোনো স্থান নেই, আন্তর্জাতিক ক্রিকেট কাউন্সিলের (আইসিসি) বৈষম্য বিরোধী নীতিমালা আন্তর্জাতিক পর্যায়ে দেশকে প্রতিনিধিত্ব করা একজন ক্রিকেটার এভাবে নিজ দেশের বিজয় দিবসের প্রতি, জাতীয় সংগীতের প্রতি, নারীদের প্রতি, ভিন্নধর্মীদের প্রতি এমন বিদ্বেষমূলক মনোভাব প্রকাশ সবাইকে বিস্মিত করেছে! বিশ্ব ক্রিকেটে এ ঘটনা বিরল!

আন্তর্জাতিক ক্রিকেট কাউন্সিলের (আইসিসি) বৈষম্য বিরোধী নীতিমালায় বলা আছে, ‘বিশ্বের অন্যতম কঠিন খেলার এই নীতি জাতি, বর্ণ, ধর্ম, বংশ, সংস্কৃতি, জাতিগত উৎস, জাতীয়তা, সেক্স ও জেন্ডার, যৌন অভিযোজন, অক্ষমতা, বৈবাহিক অবস্থা ও মাতৃত্বের অবস্থা নির্বিশেষে সব স্তরের অংশগ্রহণ নিশ্চিত করতে প্রচার ও উৎসাহিত করার জন্য আইসিসি ও এর সদস্যদের কাছ থেকে প্রতিশ্রুতি নিশ্চিত করে। সেই সঙ্গে এটা নিশ্চিত করে যে, খেলাধুলায় কোনো বৈষম্যের স্থান নেই।’ অর্থাৎ আইসিসির নীতিবিরোধী অবস্থান নিয়েছেন তানজিম সাকিব। শুধু আন্তর্জাতিক ক্ষেত্রেই নয়, আইসিসির এসব নীতি ঘরোয়া ক্রিকেটেও প্রযোজ্য। মাঠের খেলায় এর শাস্তি হতে পারে আজীবন নিষেধাজ্ঞা। উল্লেখ্য, তানজিম সাকিব মাঠের বাইরে নিজের বৈষম্যমূলক মনোভাবের প্রকাশ ঘটিয়েছেন।

দৈনিক গাইবান্ধা

সর্বশেষ

জনপ্রিয়

সর্বশেষ