মঙ্গলবার   ১৮ জুন ২০২৪ || ৩ আষাঢ় ১৪৩১

দৈনিক গাইবান্ধা

প্রকাশিত: ১২:২৬, ২২ মে ২০২৪

সূর্যের পরিমণ্ডলে ছিদ্র, ভয়ংকর সৌরঝড়ের আশঙ্কা,

সূর্যের পরিমণ্ডলে ছিদ্র, ভয়ংকর সৌরঝড়ের আশঙ্কা,
সংগৃহীত

২০২৫ সালে নাকি সূর্যের করোনায় ভয়ংকর ঝড় উঠবে। আর সেই সৌরঝড়ের রেশ এসে পড়বে পৃথিবী, চাঁদ ও মঙ্গলে। এমনিতেও সৌরবায়ুর ঝাপটায় জেরবার চাঁদ। বায়ুমণ্ডল না থাকায় সরাসরি সৌরকণারা আছড়ে পড়ে চাঁদে। পৃথিবী সেখানে অনেক সুরক্ষিত। পৃথিবীর চৌম্বকক্ষেত্র সৌরঝড়কে কাছে ঘেঁষতেই দেয় না। তবে ২০২৫ সালটা নাকি ব্যতিক্রমী হতে পারে বলে দাবি করেছে ইউরোপীয় স্পেস এজেন্সি।

বিজ্ঞানীদের দাবি, আগামী বছর যে সৌরঝড়ের আসবে তা নাকি পৃথিবী, চাঁদ, মঙ্গলে সবকিছু লন্ডভন্ড করে দেবে। প্রায় সাড়ে ৯ কোটি মাইল দূরে সূর্য থেকে ছুটে এসে পৃথিবীতে আছড়ে পড়বে গনগনে সৌররশ্মিরা। কেঁপে উঠবে পৃথিবীর চারপাশে থাকা চৌম্বক ক্ষেত্র। দুই মেরুতে ঘনঘন উজ্জ্বল হয়ে উঠবে মেরুজ্যোতি। পৃথিবীতে হামলা চালাতে পারে সূর্যের প্লাজমা থেকে আসা ‘করোনাল মাস ইজেকশান (সিএমই)’-ও।

ইএসএ’র স্পেস ওয়েদার সার্ভিসের সমন্বায়ক অ্যালেক্সি গ্লোভার জানান, এরই মধ্যে আরেকটি সানস্পট নজরে আসছে, যা আগামী দিনগুলোতে বড় ধরনের কার্যকলাপ শুরু করতে পারে। সুতরাং, সৌর কার্যকলাপ অবশ্যই শেষ হয়ে যায়নি।

এই সানস্পটগুলো কতটা ভয়ানক হতে পারে বা তারা আরও অরোরা ছড়াতে পারে কি না, তা অনুমান করা কঠিন। কিন্তু বেটউই বলেছেন, সৌর কার্যকলাপ কেবল তার প্রায় ১১ বছর চক্রের শীর্ষে পৌঁছেছে। তাই এখন থেকে আগামী বছরের শেষের মধ্যে আরেকটি বড় সৌরঝড়ের আশঙ্কা বেশি।

ন্যাশনাল ওশেনিক অ্যান্ড অ্যাটমস্ফেরিক অ্যাডমিনিস্ট্রেশন বেশ কয়েকমাস আগে জানিয়েছিল, সূর্যের পরিমণ্ডলে একটি ছিদ্র লক্ষ্য করা গেছে। সেই ফাটল পথেই প্রবল বেগে সৌরবায়ু ছিটকে পৃথিবীর দিকে ধেয়ে আসবে। এর প্রভাব পড়তে পারে পৃথিবীর চৌম্বক ক্ষেত্রে।

সৌরপদার্থবিজ্ঞানীরা বলেন, অসম্ভব শক্তিশালী সৌরকণারা যদি কোনোভাবে পৃথিবীর অনেক কাছাকাছি চলে আসে তাহলে পৃথিবীর চৌম্বকক্ষেত্রের সঙ্গে তাদের ধাক্কাধাক্কি শুরু হবে। সৌরকণাদের সম্মিলিত শক্তি যদি বেশি হয়, তাহলে পৃথিবীর রেডিও বা টেলিযোগাযোগ ব্যবস্থাকে তছনছ করে দিতে পারে।

সূত্র: ডেইলি বাংলাদেশ

সর্বশেষ

সর্বশেষ