• শনিবার   ২৪ জুলাই ২০২১ ||

  • শ্রাবণ ৮ ১৪২৮

  • || ১২ জ্বিলহজ্জ ১৪৪২

ইলেকট্রনিক্স পণ্য মেরামত আন্দোলনের নেতৃত্বে অ্যাপলের সহ-প্রতিষ্ঠ

দৈনিক গাইবান্ধা

প্রকাশিত: ১০ জুলাই ২০২১  

ক্রয়কৃত ইলেকট্রনিকস ও প্রযুক্তি পণ্য মেরামতের (রাইট টু রিপেয়ার) সুযোগ পাওয়ার দাবী রীতিমতো আন্দোলনে রূপ নিয়েছে। বিশ্বসেরা প্রযুক্তি প্রতিষ্ঠান অ্যাপলের সহ-প্রতিষ্ঠাতা স্টিভ ওয়াজনাইক এই আন্দোলনে নেতৃত্ব দিচ্ছেন।

ব্যবহারকারীরা যেন তাদের ডিভাইস, গাড়ি ও ইলেকট্রনিক্স পণ্য নিজেদের ইচ্ছেমতো যেকোনো জায়গায় মেরামত করতে পারেন, এই ব্যাপারটি আইনের মাধ্যমে নিশ্চিতের জন্য কর্তৃপক্ষের কাছে তিনি দাবি তোলেন। মজার ব্যাপার হচ্ছে, এই দাবিটিই অ্যাপলের নীতিমালার বিরুদ্ধে!

কৃষি জমির ট্র্যাক্টর থেকে শুরু করে ফোন ও গেম কনসোলের মতো ভোক্তা ইলেকট্রনিকস পণ্য মেরামতের দাবি দীর্ঘদিনের। তবে এ ধারণার বিপক্ষে মতামত দানকারীদের মধ্যে রয়েছে ট্রাক্টর নির্মাতা জন ডিরি। তিনি মনে করেন এতে নিরাপত্তা ঝুঁকি সৃষ্টি হতে পারে। মেরামতের সুযোগের বিপক্ষে মতামত দিয়ে আসছে অ্যামাজন, অ্যাপল ও মাইক্রোসফটের মতো প্রযুক্তি জায়ান্ট।

অন্য কোথাও কেউ যদি মেরামত করেন, সেক্ষেত্রে বিদ্যমান নিয়ম অনুযায়ী- পণ্যটি আর নির্মাতা প্রতিষ্ঠানের ওয়ারেন্টির আওতায় থাকে না। স্টিভ ওয়াজনাইক এই নিয়মটির বিরুদ্ধেই সরব হয়েছেন। তিনি অধিকার আদায়ে গড়া সংগঠনটির নাম দিয়েছেন “রাইট টু রিপায়ার মুভমেন্ট”।

ওজনিয়াক বলেন, ইলেকট্রনিকস ও প্রযুক্তি জায়ান্টগুলো মেরামতের অধিকার নিজেদের কাছে ধরে রাখতে চায়। কারণ এর মাধ্যমে সবকিছুর ওপর ছড়ি ঘোরানোর জায়গায় থাকে কোম্পানিগুলো। তবে সঠিক পদক্ষেপ গ্রহণের এটাই উপযুক্ত সময়।

প্রযুক্তি জায়ান্টগুলোর বিরোধিতা সত্ত্বেও যুক্তরাষ্ট্রের ৫০টি অঙ্গরাজ্যের বেশির ভাগই চলতি বছর রাইট টু রিপেয়ার বিল পাসের পক্ষপাতি। তবে এখন পর্যন্ত শুধু ম্যাসাচুসেটস রাজ্য এটা আইনে পরিণত করেছে।

দৈনিক গাইবান্ধা
দৈনিক গাইবান্ধা