শুক্রবার   ২৩ ফেব্রুয়ারি ২০২৪ || ১০ ফাল্গুন ১৪৩০

প্রকাশিত: ১৩:১৪, ২৬ নভেম্বর ২০২৩

কনসার্ট দেখতে ধাক্কাধাক্কি, পদদলিত হয়ে প্রাণ গেলো ৪ শিক্ষার্থীর

কনসার্ট দেখতে ধাক্কাধাক্কি, পদদলিত হয়ে প্রাণ গেলো ৪ শিক্ষার্থীর
সংগৃহীত

ভারতে একটি ইউনিভার্সিটির ক্যাম্পাসে কনসার্ট দেখতে গিয়ে পদদলিত হয়ে প্রাণ হারিয়েছেন চার শিক্ষার্থী। আহত হয়েছেন আরও অর্ধশতাধিক। এদের মধ্যে কয়েকজনের অবস্থা আশঙ্কাজনক।

শনিবার (২৫ নভেম্বর) কেরালার কোচিন ইউনিভার্সিটি অব সায়েন্স অ্যান্ড টেকনোলজিতে (কুসাট) মর্মান্তিক এই দুর্ঘটনা ঘটে।

পুলিশ ও স্থানীয় প্রশাসনের কর্মকর্তারা জানিয়েছেন, এদিন কুসাট ক্যাম্পাসে একটি উন্মুক্ত অডিটোরিয়ামে জনপ্রিয় ভারতীয় সঙ্গীতশিল্পী নিকিতা গান্ধীর কনসার্ট ছিল। এ জন্য অডিটোরিয়ামের বাইরে ভিড় করেন বহু শিক্ষার্থী।

প্রত্যক্ষদর্শীরা জানিয়েছেন, কনসার্টে কেবল শিক্ষার্থীদের প্রবেশাধিকার থাকলেও স্থানীয় মানুষজনও অডিটোরিয়ামের বাইরে জড়ো হয়েছিলেন। এ কারণে আয়োজকরা শিক্ষার্থীদের সারিবদ্ধভাবে দাঁড় করিয়ে অনুমতিপত্র পরীক্ষা করে ধাপে ধাপে অডিটোরিয়ামে ঢুকতে দিচ্ছিলেন। আর এ জন্য ব্যবহার করা হচ্ছিল মাত্র একটি গেট। ফলে বাইরে প্রচুর ভিড় জমে যায় এবং তরুণ শিক্ষার্থীরা অস্থির হয়ে ওঠেন।

জ্যেষ্ঠ পুলিশ কর্মকর্তা এমআর অজিত কুমার জানান, অডিটোরিয়ামটির ধারণক্ষমতা ছিল অন্তত এক হাজার এবং পদদলিত হওয়ার ঘটনার সময় ভেতরে অনেক আসন ফাঁকা ছিল।

কীভাবে ঘটলো এই ঘটনা
অজিত কুমার জানান, যখন ঘটনাটি ঘটে, কনসার্ট তখনো শুরু হয়নি এবং অডিটোরিয়ামও পূর্ণ হয়নি। আয়োজকরা অনুমতিপত্র পরীক্ষা করে ব্যাচ হিসেবে শিক্ষার্থীদের প্রবেশ করাচ্ছিলেন। এমন সময় হঠাৎ বৃষ্টি শুরু হয়। তখন সবাই লাইন ভেঙে আগে ঢোকার জন্য ধাক্কাধাক্কি শুরু করে।

তিনি জানান, গেটের সিঁড়িতে কয়েকজন পড়ে যান এবং অন্যরা তাদের মাড়িয়ে চলে যায়। এভাবেই চার শিক্ষার্থীর মৃত্যু হয়। এটি একটি ভয়ংকর দুর্ঘটনা।

এ পুলিশ কর্মকর্তার মতে, এই দুর্ঘটনা ঘটার কথা ছিল না। কারণ অডিটোরিয়ামে যথেষ্ট জায়গা ছিল। বৃষ্টি হলে তাড়াহুড়ো এবং হঠাৎ ধাক্কাধাক্কির কারণে এটি ঘটেছে।

স্থানীয় পৌর কাউন্সিলর বলেছেন, প্রবেশ ও প্রস্থানের জন্য একটি মাত্র গেট ব্যবহার করা হচ্ছিল। এটিও এই দুর্ঘটনার অন্যতম কারণ।

এই ঘটনায় শোক প্রকাশ করেছেন সঙ্গীতশিল্পী নিকিতা গান্ধী। সোশ্যাল মিডিয়া পোস্ট তিনি বলেছেন, এই গভীর শোক প্রকাশের জন্য কোনো শব্দই যথেষ্ট নয়। শিক্ষার্থীদের পরিবারগুলোর জন্য আমরা প্রার্থনা রয়েছে।

সূত্র: জাগো নিউজ

সর্বশেষ

জনপ্রিয়