বৃহস্পতিবার   ২৩ মে ২০২৪ || ৮ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১

দৈনিক গাইবান্ধা

প্রকাশিত: ১২:১১, ২৮ এপ্রিল ২০২৪

রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বৃদ্ধি করে মাষকলাই

রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বৃদ্ধি করে মাষকলাই
সংগৃহীত

মাষকলাই একধরনের ডাল জাতীয় শস্য। প্রধানত লিগুমিনসি গোত্রের গুল্ম প্রজাতি vigna mungo থেকেই এই শস্য পাওয়া যায়। প্রায় ৪০ সেমি লম্বা মাষকলাই গাছ খাড়া, আংশিক খাড়া বা গড়ানো হয়। ফুলের রং ফ্যাকাসে হলুদ। শুঁটিগুলি খাড়া বা আংশিক খাড়া; পাকলে হালকা বা গাঢ় বাদামি। বীজ সাধারণত কালো, তবে সবুজও হয়ে থাকে। এটি সবুজ সার, আচ্ছাদক শস্য এবং পশুখাদ্য হিসেবেও ব্যবহার্য।

মাষকলাই ডাল বিভিন্ন ভাবে রান্না হয়। মাছ-মাংস-সবজি—এসবের সঙ্গে এ ডালযোগে রান্না হয়। দেশের উত্তর ও উত্তর-পশ্চিমাঞ্চলে এর চাষ বেশি হয়ে থাকে।

মাষকালাই বনেও জন্মে, তবে এঁটেল মাটিতে ভালো ফলে। খরাসহিষ্ণু এই ডাল বর্ষা ও শীত মৌসুমের ফসল। ফসল পাকে ৮০-১২০ দিনের মধ্যে। মাষকালাই ডাল বাংলাদেশ ও ভারতের সর্বত্র জন্মে। মাষকালাই ডালের অনেক পুষ্টিগুণ ও উপকারিতা রয়েছে।  তাই এই ডাল ঔষধ হিসেবে ব্যবহার করা হয়ে থাকে।

উপকারিতা

১। মাষকালাইয়ে মানবদেহে বল বৃদ্ধি কারক প্রচুর লৌহ বা আয়রন আছে বলে এটি স্বাস্থ্যকর ডাল। 

২। এই ডালে প্রচুর ফাইবার আছে বলে হজমশক্তি বৃদ্ধি পায়।

৩। নিয়মিত মাষকালাই ডাল খেলে কোষ্ঠকাঠিন্য ভালো হয়।

৪। হৃদযন্ত্র ভালো রাখতে মাষকলাই ডাল উপকারী। এর পটাশিয়াম রক্তে সোডিয়ামের মাত্রা নিয়ন্ত্রণে রাখে। শরীরে কোলস্টেরল নিয়ন্ত্রণ করতে এ ডাল খুবই উপকারী। এতে ম্যাগনেশিয়াম থাকায় রক্তপ্রবাহ বাড়ায় এবং হৃদযন্ত্র ভালো রাখতে সাহায্য করে।

৫।  মাষকলাই ডাল পানিতে পাঁচ-ছয় ঘণ্টা ভিজিয়ে রেখে ঘি দিয়ে ভেজে খেলে শুক্রবর্ধক সমস্যা ভালো হয়।

৬।  পেশির কোষের বৃদ্ধিতে ভূমিকা রাখতে পারে মাষকলাই ডাল। শরীরের বৃদ্ধিতে ডালে থাকা প্রোটিন খুবই দরকারি।

৭। নিয়মিত মাষকালাই ডাল খেলে ডায়াবেটিস নিয়ন্ত্রণে থাকে।

৮। স্নায়বিক দুর্বলতা, স্মৃতি দুর্বলতা, সিজোফ্রেনিয়ার, হিস্টিরিয়ার মতো সমস্যা দূর করতে পারে মাষকলাই।

৯। মাষকলাই ডাল পিষে প্রলেপ দিলে বাত ব্যথা ভালো হয়।

১০। মাষকলাইয়ের ডাল মাথায় মাখলে চুল নরম হয়, খুশকি দূর হয়।

১১। মাষকলাই ডাল খেলে রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বৃদ্ধি পায়।

সূত্র: ডেইলি বাংলাদেশ

সর্বশেষ

জনপ্রিয়

সর্বশেষ