মঙ্গলবার   ০৫ মার্চ ২০২৪ || ২১ ফাল্গুন ১৪৩০

প্রকাশিত: ১২:১৬, ৯ ডিসেম্বর ২০২৩

এক সিনেমায় পরমব্রত-অনুপম!

এক সিনেমায় পরমব্রত-অনুপম!
সংগৃহীত

শোবিজ অঙ্গনের হিসেবে-নিকেশ ভিন্ন। এই মেঘ তো এই বৃষ্টি। এখানে কোনো সম্পর্ক বা বিবাদ চিরস্থায়ী হয় না। কাজের সুবাদে সব কিছু ভুলে দ্রুত মিল হয়। সৃজিত মুখোপাধ্যায় এবং দেবের সম্পর্ক যে খুব মধুর এমনটা কেউই বলবে না। কিন্তু সব ঝামেলা সরিয়ে রেখে জুন মাসে দু’জনে জানিয়েছিলেন, তারা একসঙ্গে ছবি করবেন। ধীরে ধীরে বিষয়টি পাকা হয়েছে।

সৃজিত পরিচালিত থ্রিলারে দেব ও রুক্মিণী মৈত্র তো থাকছেনই, সঙ্গে যোগ দিচ্ছেন পরমব্রত চট্টোপাধ্যায় এবং স্বস্তিকা মুখোপাধ্যায়। এই ছবির সংগীতের দায়িত্বে রয়েছেন অনুপম রায়। শোনা যাচ্ছে, ছবির নাম ‘টেক্কা’, প্রযোজনায় দেব এন্টারটেনমেন্ট। জানুয়ারি মাস থেকে ছবির কাজ শুরু হওয়ার কথা।

যখনই দেব এবং সৃজিতের ছবি বক্স অফিসে মুখোমুখি হয়েছে, অভিনেতা-পরিচালকের মধ্যে ছোটখাটো ঝামেলা হয়েছে। ব্যোমকেশের ‘দুর্গরহস্য’ নিয়েও দুজনের মধ্যে মনোমালিন্য চলেছিল। এ বছর পূজায়ও দেবের ‘বাঘা যতীন’ এবং সৃজিতের ‘দশম অবতার’ মুখোমুখি হয়েছিল।

কিন্তু এবার দুজনের কোনো বাদানুবাদের খবর পাওয়া যায়নি। কারণ, তার আগেই একসঙ্গে ছবি করার কথা জানিয়ে দিয়েছিলেন। দুজনের ফ্যানক্লাবও তাই নেটমাধ্যমে কোনো লড়াইয়ে শামিল হয়নি। আসলে দেব ও সৃজিত দুজনেই পেশাদার। তাই কাহিনি পছন্দ হলে সৃজিতের পরিচালনায় কাজ করতে কোনো আপত্তি নেই দেবের।

এদিকে একটা সময়ে স্বস্তিকা ও পরমব্রতর সম্পর্কও তেমন ভালো ছিল না। কিন্তু তার পরেও তারা ‘শাহজাহান রিজেন্সি’ এবং গত বছর ‘শিবপুর’ ছবিটি করেছিলেন। অনুপম এবং পরমব্রতর মধ্যে আগেকার হৃদ্যতা নেই। তবে কাজের পথে যে সেটা অন্তরায় হয়নি, তা স্পষ্ট।

সৃজিত বরাবরই তার পছন্দের অভিনেতাদের নিয়ে কাজ করতে স্বাচ্ছন্দ্যবোধ করেন। সেই জায়গা থেকে পরমব্রত ও স্বস্তিকা তার অন্যতম পছন্দের অভিনেতা। পরমব্রতর সঙ্গে ছয়টি ছবি করেছেন পরিচালক, স্বস্তিকার সঙ্গে তিনটি। দেব ও পরমব্রত আগে ‘পাসওয়ার্ড’ ছবিতে একসঙ্গে কাজ করেছেন। দেব ও রুক্মিণীর সঙ্গে এই প্রথমবার কাজ করবেন সৃজিত।

প্রসঙ্গত, ‘দশম অবতার’ ছবিটির সময়ে তিনি রুক্মিণীকে প্রস্তাব দিয়েছিলেন বটে কিন্তু শেষ পর্যন্ত তা বাস্তবায়িত হয়নি। সৃজিতের কাজ করার বিশেষ ধরন আছে। তার সঙ্গে মানিয়ে নিয়ে দেব কীভাবে কাজ করবেন বা দেবের প্রযোজনায় সৃজিত কতটা স্বাচ্ছন্দ্যবোধ করবেন, সেদিকে নজর থাকবে ইন্ডাস্ট্রির। জানা যাচ্ছে, ২০২৪-এর পূজোয় এই ছবিটি মুক্তি পেতে পারে।

সূত্র: ডেইলি-বাংলাদেশ

সর্বশেষ

জনপ্রিয়