মঙ্গলবার   ০৫ মার্চ ২০২৪ || ২১ ফাল্গুন ১৪৩০

প্রকাশিত: ১৬:২৬, ৮ ডিসেম্বর ২০২৩

‘বিচ্ছেদের পর স্বাভাবিক জীবন হারিয়েছি’

‘বিচ্ছেদের পর স্বাভাবিক জীবন হারিয়েছি’
সংগৃহীত

হলিউডের জনপ্রিয় তারকা অ্যাঞ্জেলিনা জোলি ও ব্র্যাড পিট। বিচ্ছেদের পথে হেঁটেছেন অর্ধযুগ আগে এই জুটি। অথচ এখনো তাদের সম্পর্ক নিয়ে কৌতুহলের শেষ নেই। সুযোগ পেলেই তাদের দিকে প্রশ্ন ছুঁড়তে দেরি করেন না গণমাধ্যমকর্মীরা। যদিও বরাবরই তারা অল্প কথায় বিষয়টি এড়িয়ে যাওয়ার চেষ্টা করেছেন। তবে এবার সেই দিনগুলোর দুঃসহ স্মৃতিচারণ করলেন অ্যাঞ্জেলিনা জোলি।

সম্প্রতি ওয়াল স্ট্রিট জার্নাল ম্যাগাজিনকে দেওয়া এক সাক্ষাত্কারে জোলি বলেন, ‘তখন সমালোচক ও সংবাদমাধ্যমের আতশ কাঁচের নিচে থাকতে থাকতে দুশ্চিন্তাগ্রস্ত হয়ে পড়েছিলাম। রীতিমতো অসুস্থ হয়ে পড়েছিলাম আমি। আমার ব্লাড সুগার সারাক্ষণ ওঠা-নামা করতো। এমনকি আমার ডিভোর্সের ঠিক ৬ মাস আগে বেলস পালসি হয়ে মুখ বেঁকে গিয়েছিল। এমন অবস্থায় সন্তানদের অধিকার রক্ষার জন্য কঠিন আইনি যুদ্ধও করতে হয়েছে আমাকে।’

জোলি আরো জানান, সে সময় তাকে অভিনয়ের প্রস্তাব দেওয়া হলেও সেটা ফিরিয়ে দেওয়া ছাড়া কোনো উপায় ছিল না। জোলি আরো বলেন, আমি কখনোই অভিনয়কে পেশা বানাতেন চাইনি। কারণ অভিনেত্রী হওয়ায় বিব্রতকর পরিস্থিতির মুখোমুখী হতে হয় নিয়মিত। যখনই বাড়ি থেকে বের হই তখনই পাপারাজ্জিদের কবলে পড়তে হয়। যেটা আমি একেবারেই পছন্দ করি না।

তবে অ্যাঞ্জেলিনা যেহেতু স্টার কিড, তার বাবা-মা দু’জন স্বনামধন্য অভিনেতা সেহেতু তার সোশ্যাল লাইফ বরাবরই জটিল ছিল। একইসঙ্গে তিনি নিজেও এতটা জনপ্রিয় হওয়ার কারণে তার দিকে বরাবরই নজর রয়েছে মিডিয়ার। সেই জন্যই তিনি হলিউড থেকে সরে যেতে চান বলেও সাক্ষাত্কারে জানান জোলি।

তিনি বলেন, বিচ্ছেদের পর আমি স্বাভাবিক জীবন হারিয়েছি। আমার জন্ম লস অ্যাঞ্জেলসে এবং বড় হয়েছি শান্ত পরিবেশে। হলিউডে থাকার মতো স্বাস্থ্যকর পরিবেশ আর নেই। আমি সুযোগ পেলেই কম্বোডিয়া চলে যেতে চাই। যেখানে আমার ম্যাডক্সকে দত্তক নিয়েছিলাম। যদিও পিটের সঙ্গে আইনি জটিলতার কারণে সেটিও সম্ভব হচ্ছে না।

সূত্র: ডেইলি-বাংলাদেশ

সর্বশেষ

জনপ্রিয়