শনিবার   ১৫ জুন ২০২৪ || ৩১ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১

প্রকাশিত: ১১:৩০, ১৮ নভেম্বর ২০২৩

১২৫ শিক্ষার্থীকে পিজিডিসিএম সনদ দিল বিআইসিএম

১২৫ শিক্ষার্থীকে পিজিডিসিএম সনদ দিল বিআইসিএম
সংগৃহীত

১২৫ জন শিক্ষার্থীকে পোস্ট গ্র্যাজুয়েট ডিপ্লোমা ইন ক্যাপিটাল মার্কেট (পিজিডিসিএম) সনদ দিয়েছে বাংলাদেশ ইন্সটিটিউট অব ক্যাপিটাল মার্কেট (বিআইসিএম)। শুক্রবার (১৭ নভেম্বর) সন্ধ্যায় ইন্সটিটিউটের মাল্টিপারপাস হলে শিক্ষার্থীদের মধ্যে এ সনদ বিতরণ করা হয়।

বিআইসিএম'র সনদ বিতরণ অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের কোষাধ্যক্ষ অধ্যাপক মমতাজ উদ্দিন আহমেদ। বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন অর্থ মন্ত্রণালয়ের আর্থিক প্রতিষ্ঠান বিভাগের যুগ্মসচিব ড. নাহিদ হোসেন ও অর্থমন্ত্রীর একান্ত সচিব (যুগ্মসচিব) ড. ফেরদৌস আলম। 

অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন বিআইসিএম'র নির্বাহী প্রেসিডেন্ট অধ্যাপক ড. মাহমুদা আক্তার। বিআইসিএম-এ 'পোস্ট গ্র্যাজুয়েট ডিপ্লোমা ইন ক্যাপিটাল মার্কেট' প্রোগ্রামের ৩য় সার্টিফিকেট অ্যাওয়ার্ড অনুষ্ঠান। পিজিডিসিএম প্রোগ্রামটি পুঁজিবাজারের ওপর ২৪ ক্রেডিট বিশিষ্ট একটি প্রোগ্রাম। প্রোগ্রামটি ৯ মাসে দুই সেমিস্টারে বিভক্ত। 

একমাত্র বিআইসিএম পুঁজিবাজার সংশ্লিষ্ট বিশেষায়িত পিজিডি প্রোগ্রাম পরিচালনা করে থাকে, যা পুঁজিবাজার সংশ্লিষ্ট স্টেকহোল্ডারদের জ্ঞান ও দক্ষতা উন্নয়ন, পেশাগত উৎকর্ষতা বৃদ্ধির লক্ষ্যে ও পুঁজিবাজারে ক্যারিয়ার গড়ার জন্য বিশেষভাবে স্বীকৃত।

অনুষ্ঠানে পিজিডিসিএম প্রোগ্রামের সমন্বয়কারী ও সহকারী অধ্যাপক কাশফীয়া শারমিন, শিক্ষার্থীদের পক্ষ হতে সুজয় দাস ও তাসনিয়া তাবাসসুম বক্তব্য দেন। অনুষ্ঠানটি সঞ্চালনা করেন বিআইসিএম'র সহকারী অধ্যাপক মো. হাবিবুল্লাহ ও ধন্যবাদ জ্ঞাপন করেন ইন্সটিটিউটের পরিচালক (প্রশাসন ও অর্থ) নাজমুছ সালেহীন।

এতে প্রধান অতিথির বক্তব্যে অধ্যাপক মমতাজ উদ্দিন আহমেদ বলেন, ২০৪১ সালের মধ্যে দেশকে উন্নত দেশে পরিণত করতে হলে দক্ষ মানবসম্পদ দরকার। আর দক্ষ মানবসম্পদ গড়ে তুলতে শিক্ষার কোনো বিকল্প নাই। বিআইসিএম দক্ষ মানবসম্পদ গড়ে তুলতে নিরলসভাবে কাজ করে যাচ্ছে।

বিশেষ অতিথির বক্তব্যে ড. নাহিদ হোসেন বলেন, বিআইসিএম থেকে শিক্ষা গ্রহণ করে বাস্তবজীবনে কাজে লাগাতে পারলে তবেই সার্থকতা আসবে। বিআইসিএম'র নির্বাহী প্রেসিডেন্ট অধ্যাপক ড. মাহমুদা আক্তার পিজিডিসিএম প্রোগ্রাম সম্পন্ন করায় শিক্ষার্থীদের অভিনন্দন জানান। প্রোগ্রামটি সম্পন্ন করার মাধ্যমে শিক্ষার্থীরা পেশাগত জীবনে যাতে উপকৃত হন সে ব্যাপারে আশাবাদ ব্যক্ত করেন তিনি।

সূত্র: ঢাকা পোস্ট

সর্বশেষ

সর্বশেষ