বৃহস্পতিবার   ১৮ এপ্রিল ২০২৪ || ৪ বৈশাখ ১৪৩১

প্রকাশিত: ১৫:৫৫, ১ মার্চ ২০২৪

বড় হচ্ছে মন্ত্রিসভা

সন্ধ্যায় শপথ নিতে পারেন যারা

সন্ধ্যায় শপথ নিতে পারেন যারা
সংগৃহীত

নতুন সরকার গঠনের দেড় মাসের মাথায় বড় হচ্ছে মন্ত্রিসভা। মন্ত্রিসভার নতুন মন্ত্রী-প্রতিমন্ত্রীরা শপথ নেবেন শুক্রবার সন্ধ্যা সাড়ে ৭টায়। রাষ্ট্রপতি মো. সাহাবুদ্দিন বঙ্গভবনে নতুন মন্ত্রী-প্রতিমন্ত্রীদের শপথ পড়াবেন। সাতজন নতুন মন্ত্রী-প্রতিমন্ত্রী শপথ নিচ্ছেন বলে মন্ত্রিপরিষদ বিভাগ সূত্রে জানা গেছে।

নওগাঁও-২ আসনের সংসদ সদস্য মো. শহীদুজ্জামান সরকার, রাজশাহী-৫ আসনের সংসদ সদস্য মো. আব্দুল ওয়াদুদ এবং চট্টগ্রাম-১৪ আসনের সংসদ সদস্য মো. নজরুল ইসলাম চৌধুরী শপথ নিতে পারেন।

এছাড়া শপথ নিতে পারেন সংরক্ষিত নারী আসনের সংসদ সদস্য রোকেয়া সুলতানা, শামসুন নাহার, ওয়াসিকা আয়শা খান ও নাহিদ ইজাহার খান।

শপথ নেওয়ার পর তাদের দপ্তর বণ্টন করে মন্ত্রিপরিষদ বিভাগ থেকে প্রজ্ঞাপন জারি করা হবে। নতুন মন্ত্রী-প্রতিমন্ত্রীদের জন্য ১০টি গাড়িও প্রস্তুত রেখেছে মন্ত্রিপরিষদ বিভাগ। মন্ত্রিসভার আবার বৃদ্ধির সংক্রান্ত কাজের জন্য শুক্রবারও অফিস করছেন মন্ত্রিপরিষদ বিভাগের কর্মকর্তারা।

নতুন মন্ত্রী-প্রতিমন্ত্রী নিয়োগ ছাড়াও কয়েকটি মন্ত্রণালয়ে রদবদল আসছে বলেও বিভিন্ন সূত্রে জানা গেছে।

শামসুন নাহার শিক্ষা প্রতিমন্ত্রীর দায়িত্ব পেতে পারেন। শ্রম ও কর্মসংস্থান মন্ত্রণালয়ের দায়িত্ব পাওয়ার সম্ভাবনা রয়েছে নজরুল ইসলাম চৌধুরীর।

গত ৭ জানুয়ারি দ্বাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনের ভোটগ্রহণ হয়। বিএনপিবিহীন এ নির্বাচনে নিরঙ্কুশ জয় পায় আওয়ামী লীগ। ২৯৯টি আসনের মধ্যে ২২৩টিতে জয় পায় দলটি। জাতীয় পার্টির আসন ১১টি। বাংলাদেশ ওয়ার্কার্স পার্টি, জাতীয় সমাজতান্ত্রিক দল (জাসদ) ও বাংলাদেশ কল্যাণ পার্টি একটি করে আসনে জয় পেয়েছে। এর বাইরে স্বতন্ত্র সংসদ সদস্য নির্বাচিত হয়েছেন ৬২ জন।

পরে ১০ জানুয়ারি শপথ নেন নির্বাচিত সংসদ সদস্যরা। এরপর ১১ জানুয়ারি সন্ধ্যায় বঙ্গভবনে মন্ত্রিসভার সদস্যরা শপথ নেন।

গত ১১ জানুয়ারি গঠিত হয় নতুন মন্ত্রিসভা। প্রধানমন্ত্রীসহ এ মন্ত্রিসভার সদস্য ৩৭ জন। মন্ত্রিসভায় ২৫ জন মন্ত্রী এবং ১১ জন প্রতিমন্ত্রী রয়েছেন। কোনো উপমন্ত্রী নিয়োগ দেওয়া হয়নি। যদিও আগের মন্ত্রিসভায় তিনজন উপমন্ত্রী ছিলেন। আগের যে কোনো সময়ের তুলনায় এ মন্ত্রিসভা বেশ ছোট।

এছাড়া সংস্কৃতি বিষয়ক মন্ত্রণালয় এবং শ্রম ও কর্মসংস্থান মন্ত্রণালয়ে কোনো মন্ত্রী-প্রতিমন্ত্রী নিয়োগ দেওয়া হয়নি। তাই শিগগির যে মন্ত্রিসভার আকার বাড়বে তা অনেকটা নিশ্চিতই ছিল। সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী এবং আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের জানিয়েছিলেন, সংরক্ষিত নারী আসনে সংসদ সদস্য নির্বাচিত হওয়ার পর মন্ত্রিসভার আকার বাড়তে পারে। সংরক্ষিত আসনে বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় নির্বাচিত ৫০ জন নারী ২৮ ফেব্রুয়ারি শপথ নেন।

একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনের পর ২০১৯ সালের ৭ জানুয়ারি গঠিত মন্ত্রিসভা ছিল ৪৭ সদস্যের। ওই মন্ত্রিসভায় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ছাড়া ২৪ জন মন্ত্রী, ১৯ জন প্রতিমন্ত্রী ও ৩ জন উপমন্ত্রী ছিলেন। 

সূত্র: জাগো নিউজ

সর্বশেষ

জনপ্রিয়

সর্বশেষ

শিরোনাম

ইন্টার্ন চিকিৎসকদের ভাতা বাড়িয়ে প্রজ্ঞাপনদেশবাসীকে বাংলা নববর্ষের শুভেচ্ছা প্রধানমন্ত্রীরঈদে বেড়েছে রেমিট্যান্স, ফের ২০ বিলিয়ন ডলারের ওপরে রিজার্ভ১৪ কিলোমিটার আলপনা বিশ্বরেকর্ডের আশায়তাপপ্রবাহ বাড়বে, পহেলা বৈশাখে তাপমাত্রা উঠতে পারে ৪০ ডিগ্রিতেনেইমারের বাবার দেনা পরিশোধ করলেন আলভেজ‘ডিজিটাল ডিটক্স’ কী? কীভাবে করবেন?বান্দরবানে পর্যটক ভ্রমণে দেয়া নির্দেশনা চারটি স্থগিতআয়ারল্যান্ডের সর্বকনিষ্ঠ প্রধানমন্ত্রীকে শেখ হাসিনার অভিনন্দনসুইজারল্যান্ডে স্কলারশিপ পাওয়ার উপায় কিবৈসাবি উৎসবের আমেজে ভাসছে ৩ পার্বত্য জেলাসবাই ঈদের নামাজে গেলে শাহনাজের ঘরে ঢুকে প্রেমিক রাজু, অতঃপর...