শুক্রবার   ০১ মার্চ ২০২৪ || ১৭ ফাল্গুন ১৪৩০

প্রকাশিত: ১২:১৪, ১১ ডিসেম্বর ২০২৩

স্কুল শিক্ষার্থীদের ব্যাংক হিসাবে জমেছে ২২৩২ কোটি টাকা

স্কুল শিক্ষার্থীদের ব্যাংক হিসাবে জমেছে ২২৩২ কোটি টাকা
সংগৃহীত

বাংলাদেশ ব্যাংকের স্কুল ব্যাংকিং উদ্যোগে দেশের স্কুল শিক্ষার্থীদের ব্যাংক হিসাবে জমার পরিমাণ দাঁড়িয়েছে ২ হাজার ২৩২ কোটি ৪৮ লাখ ৬০ হাজার টাকা। এর মধ্যে শহুরে শিশু শিক্ষার্থীদের জমা ১ হাজার ৬০৩ কোটি ৬৩ লাখ ১০ হাজার টাকা। আর পল্লী অঞ্চলের শিক্ষার্থীদের জমার পরিমাণ ৬২৮ কোটি ৮৫ লাখ ৫০ হাজার টাকা।

সম্প্রতি কেন্দ্রীয় ব্যাংক এক প্রতিবেদনে এ তথ্য জানিয়েছে। প্রতিবেদন অনুযায়ী, ২০২৩ সালের সেপ্টেম্বর শেষে শিক্ষার্থদের মোট ব্যাংক হিসাব সংখ্যা দাঁড়িয়েছে ৩৯ লাখ ৩৮ হাজার ২১০টি। এর মধ্যে পল্লী অঞ্চলের হিসাব ২১ লাখ ৫০ হাজার ১৭৯টি। আর শহরাঞ্চলের হিসাব ১৭ লাখ ৫০ হাজার ১৭ লাখ ৮৮ হাজার ৩১টি। পল্লী অঞ্চলে ব্যাংক হিসাবের সংখ্যা বেশি হলেও টাকার হার কম।

শিক্ষার্থীদের ব্যাংক মোট ব্যাংক হিসাবের মধ্যে ছেলে শিক্ষার্থীর সংখ্যা ২০ লাখ ৫২ হাজার ৭২৬। আর মেয়ে শিক্ষার্থীদের সংখ্যা ১৮ লাখ ৮৫ হাজার ৪৮৪। মেয়ে শিক্ষার্থীদের সংখ্যা কম হলেও ছেলে শিক্ষার্থীদের কাছাকাছি।

শিক্ষার্থীদের সঞ্চয়ের অভ্যাস গড়ে তুলতে উৎসাহী করতে ২০১০ সালে স্কুল ব্যাংকিং কর্মসূচির উদ্বোধন করে কেন্দ্রীয় ব্যাংক। দেশে ২০১০ সাল থেকে স্কুল ব্যাংকিং চালু হয়। স্কুল ব্যাংকিংয়ে টার্গেট গ্রুপ ১১ থেকে ১৭ বছর বয়সী ছাত্রছাত্রী, যাদের কোনো আয়ের উৎস নেই। মা-বাবা, ভাই-বোন, আত্মীয়-স্বজনের কাছ থেকে পাওয়া অর্থ, বৃত্তির অর্থ এবং উৎসব-পার্বণের উপহার বা নগদ কিছু বাঁচিয়ে জমা রাখার জন্য হিসাব খোলা। এর মাধ্যমে  ছেলেবেলা থেকেই ব্যাংক হিসাব খোলার নিয়মকানুন জানতে, হিসাব পরিচালনা শিখতে এবং অভ্যাস গড়ে তুলতে পারদর্শী হবে তারা। এতে প্রয়োজনের অতিরিক্ত অর্থ ব্যাংকে জমা রেখে সঞ্চয়ের মনোভাবও গড়ে ওঠে।

এ উদ্যোগে বেশ সাফল্য পায় বাংলাদেশ ব্যাংক। স্কুলপড়ুয়াদের সঞ্চয়ে উদ্বুদ্ধ করতে দেশের বাণিজ্যিক ব্যাংকগুলো আকর্ষণীয় মুনাফার নানা স্কিম চালু করে। এতে উত্তরোত্তর টাকা জমার পরিমাণ বাড়ে।

চলতি বছরে জুন শেষে শিশুদের ব্যাংকে হিসাবে জমার পরিমাণ ছিল ২ হাজার ৩২৪ কোটি ৫৪ লাখ টাকা। সে সময় ব্যাংক হিসাবের সংখ্যা ছিল ৩৮ লাখ ৬৯ হাজার ৩১৮টি।

সূত্র: ডেইলি-বাংলাদেশ

সর্বশেষ

জনপ্রিয়