শুক্রবার   ২৩ ফেব্রুয়ারি ২০২৪ || ১০ ফাল্গুন ১৪৩০

প্রকাশিত: ০৮:৫৪, ৩ অক্টোবর ২০২৩

প্রবাসীদের এমআরপি রি-ইস্যু ২০২৫ সাল পর্যন্ত চলবে

প্রবাসীদের এমআরপি রি-ইস্যু ২০২৫ সাল পর্যন্ত চলবে

কফি অনেকেরই পছন্দের। কেউ সকালে নাশতার পরে কেউ বা দিনের অন্যভাগে কফি খান। অতিথি কিংবা বন্ধুদের সঙ্গেও চলে কফির আড্ডা। চা কিংবা কফির সঙ্গে টুকটাক ‘টা’ খেতেই হয়। পুষ্টিবিদরা বলছেন, কিছু কিছু খাবার আছে যেগুলো কফি বা ক্যাফিনজাতীয় খাবারের সঙ্গে একেবারেই খাওয়া ঠিক নয়। 

চিজ় বা পনির: কফির সঙ্গে চিজ় বল বা পনির চপ খেতে ভালবাসেন অনেকেই। কিন্তু দুগ্ধজাত এই খাবারগুলি ক্যাফিনজাতীয় পানীয়ের সঙ্গে খেতে বারণ করেন পুষ্টিবিদরা। কাঠবাদামও রয়েছে এই তালিকায়। এই খাবারগুলি খেলে শরীরে ক্যালশিয়াম শোষণের ক্ষমতা কমে যায়।

খাসির মাংস: খাসির মাংসে জিঙ্কের পরিমাণ অনেকটাই বেশি। কিন্তু ক্যাফিনজাতীয় পানীয়ের সঙ্গে খাসির মাংস খেলে জিঙ্ক শোষণের ক্ষমতা হ্রাস পায়। তাই কোনও ভাবেই কফির সঙ্গে খাসির মাংসের মুখরোচক কোনও পদই খাওয়া ঠিক নয়। 

ওট্‌স : অনেকেই ওট্‌স দিয়ে তৈরি মুখরোচক ‘টা’খেয়ে থাকেন কফির সঙ্গে। খাসির মাংসের মতোই ওট্‌সের মধ্যেও জিঙ্ক রয়েছে। তাই এই খাবারটিও কফির সঙ্গে খাওয়া ঠিক নয়। 

ডিম: ডিমে প্রোটিনের পরিমাণ বেশি হলেও জিঙ্কের পরিমাণও কম নয়। এ কারণে পুষ্টিবিদরা এই খাবারটিও কফির সঙ্গে খেতে বারণ করেন।

মটরশুঁটি : উদ্ভিজ্জ প্রোটিনের উৎস মটরশুঁটি। কফির সঙ্গে মসলা দেওয়া মুচমচে মটর খেতে অনেকে পছন্দ করেন। কিন্তু কফির সঙ্গে মটর খেলে তার পুষ্টিগুণ একেবারেই শূন্য হয়ে যায়।

দৈনিক গাইবান্ধা

সর্বশেষ

জনপ্রিয়