শুক্রবার   ২৪ মে ২০২৪ || ৯ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১

প্রকাশিত: ১০:৫৯, ২৭ মে ২০২৩

পিসিটির দায়িত্ব পাচ্ছে সৌদি প্রতিষ্ঠান

পিসিটির দায়িত্ব পাচ্ছে সৌদি প্রতিষ্ঠান

আগামী মাস দেড়েকের মধ্যেই পতেঙ্গা কন্টেনার টার্মিনালে (পিসিটি) বিদেশি অপারেটর নিয়োগ হচ্ছে। সৌদি আরবের রেড সী গেটওয়ে টার্মিনালকে চট্টগ্রাম বন্দরের বহুল প্রত্যাশার এই টার্মিনালের অপারেটর নিয়োগ করা হচ্ছে বলে জানা গেছে।

সরকারের পাবলিক প্রাইভেট পার্টনারশিপ (পিপিপি) অথরিটি ইতোমধ্যে এ বিষয়ে যাবতীয় প্রক্রিয়া সম্পন্ন করেছে। তবে এটি নিয়ে ইতোমধ্যে মিশ্র প্রতিক্রিয়া দেখা দিয়েছে। বিদেশি অপারেটর নিয়োগে চট্টগ্রাম বন্দরে প্রতিযোগিতা এবং গতিশীলতা আসবে বলা হলেও চ্যানেলের মুখে গড়ে তোলা একটি টার্মিনালে বিদেশি অপারেটর নিয়োগ ঠিক হচ্ছে না বলে মনে করছে একটি পক্ষ। সূত্র জানিয়েছে, পতেঙ্গা কন্টেনার টার্মিনাল পুরোপুরি প্রস্তুত হয়েছে বেশ আগে। একবার টার্মিনালটি উদ্বোধন করার দিনক্ষণ ঠিক করেও পিছিয়ে আসে বন্দর কর্তৃপক্ষ।

পরবর্তীতে অঘোষিতভাবে কয়েকটি ছোটখাটো জাহাজ হ্যান্ডলিং করা হলেও আনুষ্ঠানিকভাবে টার্মিনালটি চালু করা হয়নি। টার্মিনালটি বছরে ৫ লাখ টিইইউএস কন্টেনার হ্যান্ডলিং করতে পারবে। দেশীয় অপারেটর কিংবা বন্দর কর্তৃপক্ষ নিজেই এই টার্মিনাল অপারেট করার উদ্যোগ নিলেও ইক্যুইপমেন্ট কিনতে দুই হাজার কোটিরও বেশি টাকার প্রয়োজন বিধায় বন্দর কর্তৃপক্ষ নিজেরা অপারেট করার সিদ্ধান্ত থেকে সরে আসে। সরকার পাবলিক প্রাইভেট পার্টনারশিপের আওতায় এই টার্মিনালটি পরিচালনায় বিদেশি অপারেটর নিয়োগের চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত নেয়। ইতোমধ্যে নানা প্রক্রিয়া সম্পন্ন করে আগামী মাস দেড়েকের মধ্যে টার্মিনালটি সৌদি আরবের রেড সী গেটওয়ে টার্মিনাল নামের কোম্পানিকে প্রদান করছে বন্দর কর্তৃপক্ষ। সৌদি রাজপরিবারের মালিকানাধীন এই কোম্পানি টার্মিনালটিতে ইক্যুইপমেন্ট স্থাপনসহ যাবতীয় কার্যক্রম পরিচালনা করবে এবং নির্দিষ্ট সময় শেষে সবকিছু বন্দর কর্তৃপক্ষের নিকট হস্তান্তর করে চলে যাবে।

পতেঙ্গার কর্ণফুলী নদীর পাড়ের ড্রাইডক থেকে বোট ক্লাব পর্যন্ত রাস্তার পাশে ৩২ একর জায়গার উপর নির্মিত টার্মিনালটিতে ১৬ একর ইয়ার্ডসহ বিভিন্ন পশ্চাদসুবিধা এবং ৬০০ মিটার জেটি রয়েছে। এই টার্মিনালে ১৯০ মিটার লম্বা ও ১০ দশমিক ৫ মিটার ড্রাফটের ৩টি কন্টেনারবাহী জাহাজ ভিড়ানো যাবে। এছাড়া ২২০ মিটারের একটি ডলফিন জেটিও রয়েছে। গতবছরের ২১ জুলাই এই টার্মিনাল পরীক্ষামূলকভাবে উদ্বোধন করার কথা ছিল। কিন্তু অজ্ঞাত কারণে তা হয়নি। অবশেষে প্রায় এক বছর পর টার্মিনালটি বিদেশি অপারেটরকে প্রদান করা হচ্ছে।

সূত্র জানিয়েছে, সরকারের পিপিপি অথরিটি এই টার্মিনালের অপারেটর নিয়োগের জন্য বিশ্বব্যাংকের সহযোগী প্রতিষ্ঠান ইন্টারন্যাশনাল ফিন্যান্স কর্পোরেশনকে (আইএফসি) পরামর্শক নিয়োগ দিয়েছে। ইতোমধ্যে বিভিন্ন শর্ত নিয়ে যাচাই বাছাইসহ নানা প্রক্রিয়া সম্পন্ন করা হয়েছে। বিষয়টি পুরোপুরি প্রকাশ করা না হলেও সবকিছু চূড়ান্ত করা হয়েছে। বন্দরের দায়িত্বশীল একটি সূত্র জানিয়েছে, পিসিটিতে বিদেশি অপারেটর নিয়োগের ব্যাপারে দেশীয় স্বার্থ যাতে সর্বোচ্চ সুরক্ষিত থাকে সেদিকে সরকার সজাগ রয়েছে। সংশ্লিষ্ট একজন কর্মকর্তা বলেন, সৌদি আরবে আমাদের প্রচুর প্রবাসী রয়েছে। এই সংখ্যা সামনের দিনগুলোতে আরো বাড়বে। এই বিষয়টিকে গুরুত্ব দিয়ে এই টার্মিনালটি সৌদি আরবের রেড সী গেটওয়ে টার্মিনালকে প্রদান করা হয়েছে বলেও তিনি জানান।

পতেঙ্গা কন্টেনার টার্মিনাল চালু হলে চট্টগ্রাম বন্দরের নিউমুরিং কন্টেনার টার্মিনাল এবং চিটাগাং কন্টেনার টার্মিনালের উপর চাপ বহুলাংশে কমে আসবে এবং কাজে গতিশীলতা তৈরি হবে বলেও বন্দর কর্তৃপক্ষের সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তারা মন্তব্য করেছেন।

তবে পাঁচ লাখ কন্টেনার কমে গেলে বন্দরের রাজস্ব আয় কমে যাবে বলে উল্লেখ করে এই টাকার একটি বড় অংশ বৈদেশিক মুদ্রায় সৌদি আরব চলে যাবে বলেও সূত্রটি স্বীকার করেছে। যা বর্তমানে পুরোটাই চট্টগ্রাম বন্দর কর্তৃপক্ষ পেয়ে থাকে।

বন্দরের প্রবেশমুখের একটি টার্মিনাল বিদেশি অপারেটর নিয়োগ ঠিক হচ্ছে না বলে মন্তব্য করে বিশিষ্টজনেরা বলেছেন, এতে চট্টগ্রাম বন্দরের নিরাপত্তা হুমকির মুখে পড়বে। বাসদের কেন্দ্রীয় নেতা খালেকুজ্জামান রতন বলেছেন, এটি খুবই খারাপ একটি সিদ্ধান্ত হচ্ছে। ডলার ক্রাইসিসের কথা বলা হলেও ডলার নিয়ে যাওয়ার জন্য দ্বার উন্মুক্ত করে দেয়া হচ্ছে।

উল্লেখ্য, চট্টগ্রাম বন্দরে গত কিছুদিন ধরে সর্বোচ্চ ২০০ মিটার লম্বা এবং ১০ মিটার ড্রাফটের জাহাজ ভিড়ানো শুরু হয়েছে। মোহনা থেকে প্রায় ১৪ নটিক্যাল মাইল ভিতরে এসে এসব জাহাজ বার্থিং দিতে হয়। গুপ্তাখালের কাছে একটি বাঁক থাকার কারণে এর থেকে বড় জাহাজ বন্দরের জেসিবি, সিসিটি এবং এনসিটিতে ভিড়ানো যায় না। কিন্তু পিসিটিতে সাড়ে ১০ মিটার ড্রাফটের জাহাজ ভিড়ানো যাবে। মোহনা থেকে মাত্র ৬ নটিক্যাল মাইলের ভিতরের এই কন্টেনার টার্মিনালে আসা যাওয়ার পথে কোনও বাঁক না থাকায় অনায়াসে সাড়ে ১০ মিটার ড্রাফট ২০০ মিটারেরও বেশি ল্যান্থের জাহাজ ভিড়ানো সম্ভব হবে।

দৈনিক গাইবান্ধা

সর্বশেষ

জনপ্রিয়

সর্বশেষ