শনিবার   ১৫ জুন ২০২৪ || ৩১ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১

প্রকাশিত: ১২:৩৮, ১১ সেপ্টেম্বর ২০২৩

মসজিদের ইমামকে পছন্দ না হওয়ায় কুপিয়ে জখম

মসজিদের ইমামকে পছন্দ না হওয়ায় কুপিয়ে জখম

কিশোরগঞ্জে মসজিদের ইমামকে পছন্দ না হওয়ায় কুপিয়ে জখম করার ঘটনা ঘটেছে। আজ (১১ সেপ্টেম্বর) সোমবার সকাল ৯টার দিকে কিশোরগঞ্জ সদর উপজেলার মহিনন্দ ইউনিয়নের চংশোলাকিয়া এলাকার পঁচুশাহ মসজিদের সামনে এই ঘটনা ঘটে। ইমামকে বাঁচতে গিয়ে মুয়াজ্জিনও আহত হয়েছেন। পরে এলাকাবাসী অভিযুক্ত দুইজনকে আটক করে পুলিশের হাতে ধরিয়ে দেয়।

আহত ইমাম হাফেজ মাওলানা রবিউল ইসলাম (৩৭) কিশোরগঞ্জ জেলার করিমগঞ্জ উপজেলার নিয়ামতপুরের বাসিন্দা। তিনি পঁচুশাহ মসজিদে আড়াই বছর ধরে ইমামতি করে আসছেন। আহত মুয়াজ্জিন আরমান মিয়া (২৫) সদর উপজেলার মহিনন্দ ইউনিয়নের চংশোলাকিয়া এলাকার দস্তর আলীর ছেলে।অভিযুক্ত দুইজন হলেন কিশোরগঞ্জ জেলার সদর উপজেলার মহিনন্দ ইউনিয়নের চংশোলাকিয়া এলাকার মনফর মুন্সির ছেলে নূরুল আমিন (৪৫) এবং একই এলাকার আজিম উদদীনের ছেলে রমজান মিয়া (২৫)।মসজিদের অপর ইমাম মাজহারুল হক জানান, গত আড়াই বছর যাবত আহত হাফেজ মাওলানা রবিউল ইসলাম পঁচুশাহ মসজিদের ইমাম হিসেবে কর্মরত আছেন। শুরু থেকেই ইমামের প্রতি বিভিন্ন অভিযোগ নুরুল আমিন ও রমজান আলীর। সেই ক্ষোভ থেকে সকালে মসজিদের সামনে কথা কাটাকাটির এক পর্যায়ে ইমাম রবিউল ইসলামকে কুপিয়ে আহত করেন।

এসময় মুয়াজ্জিন আরমান ইমামকে বাঁচাতে গেলে তাকেও কুপিয়ে আহত করেন তারা। এই ঘটনার পর স্থানীয়রা দুইজনকে আটক করে পুলিশের খবর দেয়। পরে পুলিশ গিয়ে তাদের আটক করে থানায় নিয়ে আসে। কিশোরগঞ্জ সদর মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মোহাম্মদ দাউদ ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করেছেন। তিনি জানান, লিখিত অভিযোগ পেলে আইনগত ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

দৈনিক গাইবান্ধা

সর্বশেষ

সর্বশেষ