বুধবার   ১৭ জুলাই ২০২৪ || ১ শ্রাবণ ১৪৩১

জাতীয় বিভাগের সব খবর

দায়ীদের বিরুদ্ধে আইনানুগ ব্যবস্থাসহ ৬ দফা সুপারিশ

দায়ীদের বিরুদ্ধে আইনানুগ ব্যবস্থাসহ ৬ দফা সুপারিশ

ভিসাসহ অন্যান্য কাগজপত্র ঠিক থাকার পরও প্রায় ১৭ হাজার কর্মী মালয়েশিয়ায় যেতে না পারার ব্যর্থতা এবং দায়িত্বে অবহেলার জন্য সংশ্লিষ্ট রিক্রুটিং এজেন্সিগুলোর বিরুদ্ধে আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণসহ ছয় দফা সুপারিশ করেছে এ-সংক্রান্ত তদন্ত কমিটি। প্রবাসী কল্যাণ ও বৈদেশিক কর্মসংস্থান মন্ত্রণালয় থেকে এই তদন্ত কমিটি গঠন করা হয়। এ ছাড়া সুপারিশের আলোকে এরই মধ্যে জড়িত রিক্রুটিং এজেন্সিগুলোকে কারণ দর্শানোর নোটিশ দেওয়া হয়েছে। পাশাপাশি যেতে না পারা কর্মীদের টাকা ১৮ জুলাইয়ের মধ্যে ফেরত দিতে বলা হয়েছে। এ-সংক্রান্ত একটি প্রতিবেদন গতকাল সোমবার মন্ত্রণালয়ের পক্ষ থেকে হাইকোর্টে দাখিল করা হয়েছে। বিচারপতি মোস্তফা জামান ইসলাম ও বিচারপতি এস এম মাসুদ হাসান দোলনের বেঞ্চে এই প্রতিবেদন দাখিল করা হয়। আজ মঙ্গলবার হাইকোর্ট এ বিষয়ে আদেশের দিন ধার্য করেছেন। আদালতে শুনানিকালে উপস্থিত ছিলেন ডেপুটি অ্যাটর্নি জেনারেল তুষার কান্তি রায় এবং রিটকারীর পক্ষে ছিলেন ব্যারিস্টার তানভীর আহমেদ।

মঙ্গলবার, ১৬ জুলাই ২০২৪, ১৬:৪৬

করজাল বাড়াতে নজর এনবিআরের

করজাল বাড়াতে নজর এনবিআরের

সদ্য শুরু হওয়া ২০২৪-২৫ অর্থবছরে জাতীয় রাজস্ব বোর্ডকে (এনবিআর) ৪ লাখ ৮০ হাজার কোটি টাকা রাজস্ব আহরণের বিশাল লক্ষ্যমাত্রা দেওয়া হয়েছে। এই লক্ষ্যমাত্রা বিদায়ী ২০২৩-২৪ অর্থবছরের চেয়ে ৫০ হাজার কোটি টাকা বেশি এবং এর সংশোধিত বাজেটের চেয়ে ৭০ হাজার কোটি টাকা বেশি। তারপরও জিডিপির তুলনায় কর সংগ্রহে পিছিয়ে আছে বাংলাদেশ। এ জন্য সরকার রাজস্ব আহরণের ওপর জোর দিয়েছে। করের আওতা বাড়াতে গত কয়েক বছরে বিপুলসংখ্যক ব্যক্তি ও প্রতিষ্ঠানকে টিআইএনের আওতায় এনেছে এনবিআর। এ জন্য সরকারি-বেসরকারি ৪৪টি সেবার বিপরীতে রিটার্ন বাধ্যতামূলক করা হয়েছে। যার ইতিবাচক প্রভাব হিসেবে বর্তমানে টিআইএনধারীর সংখ্যা কোটি ছাড়িয়েছে।

মঙ্গলবার, ১৬ জুলাই ২০২৪, ১৬:৪৫

নিজেদের রাজাকার বলা রাষ্ট্রদ্রোহিতা ছাড়া কিছু নয়

নিজেদের রাজাকার বলা রাষ্ট্রদ্রোহিতা ছাড়া কিছু নয়

নিজেদের ‘রাজাকার’ ঘোষণা করে কোটা বিরোধীদের দেওয়া স্লোগানে দেশব্যাপী ব্যাপক প্রতিক্রিয়া দেখা দিয়েছে। একাত্তরের বীর মুক্তিযোদ্ধা, শহীদ পরিবারের সদস্যসহ প্রগতিশীল আন্দোলন সংগ্রামে থাকা বিশিষ্ট নাগরিকেরা এই স্লোগানকে বেদনাদায়ক এবং মহান মুক্তিযুদ্ধের প্রতি চরম অবমাননাকর বলে মনে করছেন। তারা বলছেন, আন্দোলনের ভেতরে ঢুকে পড়া রাজনৈতিক অপশক্তি সাধারণ শিক্ষার্থীদের সরকারের বিরুদ্ধে দাঁড় করানোর ভয়ঙ্কর ষড়যন্ত্রে লিপ্ত। বিভিন্ন সামাজিক সাংস্কৃতিক সংগঠন এই স্লোগানদাতাদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা গ্রহণেরও দাবি জানিয়েছে।

মঙ্গলবার, ১৬ জুলাই ২০২৪, ১৬:৩২

সর্বশেষ