• শুক্রবার   ০৩ ডিসেম্বর ২০২১ ||

  • অগ্রাহায়ণ ১৯ ১৪২৮

  • || ২৬ রবিউস সানি ১৪৪৩

পেঁয়াজের বাজারে স্বস্তি দাম কিছুটা কমেছে

দৈনিক গাইবান্ধা

প্রকাশিত: ১৭ অক্টোবর ২০২১  

তেল, চাল-ডালসহ ঊর্ধ্বমুখী নিত্যপণ্যের বাজারে একটু স্বস্তির খবর এসেছে পেঁয়াজে। দু'দিনের ব্যবধানে কেজি প্রতি পেঁয়াজের দাম কমেছে ৫ থেকে ১০ টাকা।

শনিবার রাজধানীর আড়তগুলোয় পেঁয়াজ কেজিপ্রতি বিক্রি হচ্ছে ৫০-৫৫ টাকায়। আর খুচরাবাজারে কেজিপ্রতি বিক্রি হচ্ছে ৬০-৭০ টাকা দরে। গত সপ্তাহে এই পেঁয়াজ পাইকারি বাজারে বিক্রি হয়েছে ৬০-৬৫ টাকা কেজিতে। আর খুচরাবাজারে বিক্রি হয়েছে ৮০-৮৫ টাকা কেজিতে।

কারওয়ান বাজারে পেঁয়াজ ব্যবসায়ী অন্তর ইসলাম বলেন, শনিবার দেশি পাবনার পেঁয়াজের পাইকারি দর ৫৮ টাকা কেজি। আর হাইব্রিড ফরিদপুরের পেঁয়াজ বিক্রি করছেন ৫৫-৬৫ টাকা কেজি। আর পাবনার পেঁয়াজ খুচরা বিক্রি করছেন ৬০-৬২ টাকা কেজিতে। আর হাইব্রিড পেঁয়াজ বিক্রি করছেন ৫৮ টাকা কেজি। ভারতীয় পেঁয়াজ বিক্রি করছেন ৬৫-৬৮ টাকা কেজিতে।

একই কথা বলেন লাকসাম বাণিজ্যালয়ের মালিক ঋত্বিক। তিনি বলেন, পূজা শেষে হয়েছে, এখন পেঁয়াজ আমদানি শুরু হয়েছে। তাই দাম কমতে শুরু করেছে। গত তিনদিনে পেঁয়াজের দাম ২০-২৫ টাকা কমেছে। শ্যামবাজারে পেঁয়াজ ব্যবসায়ী হাজী মাজেদ বলেন, দেশি পেঁয়াজ পাইকারি বিক্রি করছেন ৫২-৫৪ টাকায়। আর আমদানি পেঁয়াজ বিক্রি করছেন ৫০ টাকা কেজিতে। তিনি বলেন, পূজা শেষ হওয়ার পাশাপাশি পেঁয়াজ আমদানিতে শুল্ক কমানো হয়েছে। এ কারণে পেঁয়াজের আমদানি বাড়ছে, দামও কমছে।

এদিকে খুচরা বাজারগুলোয় পেঁয়াজ বিক্রি হচ্ছে ৬০-৭০ টাকা কেজিতে। মালিবাগের ব্যবসায়ী মিশুক আমীন জানান, পেঁয়াজের দাম কমছে। পেঁয়াজ এখন ৬০-৬৫ টাকা কেজিতে বিক্রি করছেন।

পেঁয়াজ বিক্রিতে লস হচ্ছে জানিয়ে বাড্ডা কাঁচাবাজারে ব্যবসায়ী মনোয়ার হোসেন বলেন, তিনি গত মঙ্গলবার চার বস্তা পেঁয়াজ কিনেছেন। কেনা মূল্য পড়েছে ৬৮-৭০ টাকা। তিনি পেঁয়াজ কেনার পরদিন থেকে দাম কমতে শুরু করেছে। ৭০ টাকার পেঁয়াজ বিক্রি করছেন ৬৫ টাকায়। তাও নিচ্ছেন না ক্রেতারা। লাভের পরিবর্তে কেজিপ্রতি ৫ টাকা লোকসানে বিক্রি করছেন।

দৈনিক গাইবান্ধা
দৈনিক গাইবান্ধা