• শনিবার   ০৮ অক্টোবর ২০২২ ||

  • আশ্বিন ২২ ১৪২৯

  • || ১০ রবিউল আউয়াল ১৪৪৪

ইদিলপুরে আড়াই মাস পর কবর থেকে লাশ উত্তোলন

দৈনিক গাইবান্ধা

প্রকাশিত: ২০ সেপ্টেম্বর ২০২২  

সাদুল্লাপুর উপজেলার ইদিলপুর ইউনিয়নের তরফপাহারী গ্রাম থেকে গত রবিবার দুপুরে রাশেদ (১৬) নামক এক কিশোরের লাশ উত্তোলন করেছেন গাইবান্ধা জেলা ম্যাজিটেড ইফতেখার রহমান। এসময় উপস্থিত ছিলেন মামলা তদন্তারী কর্মকর্তা ধাপেরহাট পুলিশ তদন্ত কেন্দ্রের ইনচার্জ ওসি তদন্ত পবিত্র কুমার রায়। জানা গেছে, গত ৫ জুলাই রাতে ওই গ্রামের আনারুল শেখের পুত্র নিজ বাড়িতে মারা গেলে স্বাভাবিক মৃত্যু প্রচারনা চালিয়ে তরি ঘড়ি তাকে দাফন করা হয়।

পরবর্তীতে নিহত রাশেদের ভাই তুহিন শেখ বাদী হয়ে গত ২৩ আগস্ট গাইবান্ধা বিজ্ঞ আদালতে নিহত রাশেদের চাচাতো ভাই সাজ্জাদ শেখ, তার পিতা হযরত আলী, ভাই আবুল হোসেনসহ ৪ জনকে আসামি করে গাইবান্ধা বিজ্ঞ আদালতে একটি হত্যা মামলা করেন।

মামলার সুষ্ঠু ও তদন্তে স্বার্থে গত রবিবার দুপুরে লাশ উত্তোলন করে ফরেনসিক রির্পোটের জন্য লাশ গাইবান্ধা মর্গে পাঠায়। মামলা সূত্রে জানা যায়, ১নং আসামি সাজ্জাদ নিহত রাশেদের চাচাতো ভাই হওয়ার সুবাদে চট্টগ্রমের সীতাকুন্ড জাহাজ কাটা কোম্পানীতে চাকুরী করত এবং একই রুমে ভাড়া থাকতেন। এক পর্যায়ে দু’ভাই মিলে শেয়ারে একটি মোবাইল ফোন ক্রয় করে একই সীম ব্যবহার করে বাড়ীসহ বিভিন্ন স্থানে জরুরি কথা বলতেন। এরই ফাকে এক মেয়ের সাথে মোবাইলে প্রেমের সর্ম্পক গড়ে ওঠে আসামী সাজ্জাদের ওই একই ফোন একই মেয়ের সাথে সর্ম্পক গড়ে ওঠে নিহত রাশেদের একই মেয়ের সাথে দু’ভাইয়ের প্রেমের সর্ম্পক জানাজানি হলে তাদের মধ্যে কথা কাটা কাটি এবং ঝগড়া বিবাদের সৃষ্টি হয়।

গত কোরবানির ঈদের ছুটিতে তারা দুজনেই গ্রামের বাড়ীতে আসে। ঘটনার দিন ৫ জুলাই রাতে আসামী সাজ্জাদ বন্ধুদের নিয়ে নিজ বাড়ীতে উচ্চস্বরে ডেক্স সেটে গানবাজনা করে। ঐ রাতেই পাশের ঘরে থাকা রাশেদের লাশ উদ্ধার হয়। লাশ দেখে পরিবারের লোকজন কান্না কাটি করলে আসামীরা তাদেরকে ভুল ভাল বুঝিয়ে স্বাভাবিক মৃত্যুর নামে শান্তনা দিয়ে রাশের পিতার অনুপস্থিতেতে তরি ঘরি করে লাশ দাফন করেন। রাশেদের পিতা বাড়ী এসে জানতে পারে তার ছেলেকে পরিকল্পিত ভাবে শ্বাসরোধে হত্যা করা হয়েছে। এ হত্যাকান্ডে জড়িত সাজ্জাত ও তার পরিবারের লোকজন আমি এ হত্যা কান্ডের সুষ্ট বিচার চাই। মামলা তদন্তকারী কর্মকতা ধাপেরহাট পুলিশ তদন্ত কেন্দ্রের ইনচার্জ (ওসি তদন্ত) পবিত্র কুমার জানান, ফরেন্সিক রির্পোট হাতে পেলে সুষ্ট তদন্ত সাপেক্ষে আইনগত ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে। আসামীরা পলাতক থাকায় তাদেরকে গ্রেফতার করা সম্ভব হয় নাই।

দৈনিক গাইবান্ধা
দৈনিক গাইবান্ধা