• শুক্রবার   ০৩ ডিসেম্বর ২০২১ ||

  • অগ্রাহায়ণ ১৯ ১৪২৮

  • || ২৬ রবিউস সানি ১৪৪৩

গাইবান্ধায় চিকিৎসার নতুন দিগন্ত খুলে যাচ্ছে

দৈনিক গাইবান্ধা

প্রকাশিত: ২১ অক্টোবর ২০২১  

গাইবান্ধায় স্বাস্থ্য সেবাদানে নির্মিত হচ্ছে ১০ তলা আধুনিক হাসপাতাল ভবন। ইতোমধ্যে নতুন ভবনের ৯ তলা পর্যন্ত সম্পন্ন হয়েছে। এটি নির্মাণ শেষ হলেই চিকিৎসার নতুন দিগন্ত খুলে যাবে বলে মনে করা হচ্ছে।

চিকিৎসায় অত্যাধুনিক সেবা পেতে গাইবান্ধার মানুষের দীর্ঘদিনের দাবি একটি আধুনিক হাসপাতালের। যেখানে থাকবে সকল যন্ত্রপাতি ও আধুনিক চিকিৎসা ব্যবস্থা।  গাইবান্ধার ২৭ লাখ মানুষের এ দাবি পূরণে ২৫০ শয্যা বিশিষ্ট গাইবান্ধা সদর হাসপাতালের পাশেই গড়ে উঠছে দশ তলার আধুনিক ভবন। 

লিফট ও একাধিক সিড়ি সুবিধা সম্বলিত এ ভবনটি চালু হলে চিকিৎসা সেবার মান বাড়ার পাশাপাশি শয্যা সঙ্কটও দূর হবে।  শুধু তাই নয় আইসিইউ সুবিধাও থাকছে এ ভবনে। ফলে গাইবান্ধার মানুষকে চিকিৎসার জন্য আর রংপুর ও বগুড়ায় ছোটাছুটি করতে হবে না ।  

এমনিতে ২৫০ শয্যা বিশিষ্ট গাইবান্ধা জেলা হাসপাতালে সব সময়ই রোগিদের চাপ থাকে। পর্যাপ্ত অবকাঠামো, জনবল ও যত্রাংশ সুবিধা নেই বললেই চলে । ফলে অতিরিক্ত রোগির চাপের কারণে শয্যা না পেলে মেঝেতে কিংবা বারান্দায় থেকে রোগিদের চিকিৎসা নিতে হয়। একেতো জনবল সঙ্কট তার ওপর রোগীর চাপ । এতে রোগী সামলাতে হিমশিম খেতে হয়। আর সমস্যায় পড়তে হয় হাসপাতাল সংশ্লিষ্টদের । 

এমন অবস্থায় স্বাস্থ্য সেবা হাতের নাগালে আনতে সরকারের এই উদ্যোগ গাইবান্ধাবাসীর মনে আশার সৃষ্টি করেছে। 

গাইবান্ধা জেলা গণপূর্ত বিভাগের নির্বাহী প্রকৌশলী আব্দুল আয়ান জানান, গুরুত্বের সঙ্গে এ হাসপাতালের ভবন নির্মাণ কাজটি দেখা হচ্ছে। ২০১৯ সালে কাজ শুরু হলেও আগামী ডিসেম্বরের মধ্যে এর ৯ তলার কাজ সম্পন্ন হবে বলে আশা করা যায়। প্রায় ৩৪ কোটি টাকা ব্যয়ে এ ভবনটি নির্মিত হচ্ছে। 

গাইবান্ধা হাসপাতালের তত্ত্বাবধায়ক মো. মাহবুব হোসেন বলেন ,গাইবান্ধায় এই প্রথম কোন সরকারি ১০ তলা ভবন নির্মিত হচ্ছে। হাসপাতালের এ নতুন ভবনটি চালু হলে চিকিৎসা সেবার মান বাড়ার পাশাপাশি শয্যা সঙ্কট অনেকটাই দূর হবে বলছেন, হাসপাতালে আসা রোগী ও স্বজনরা।

গাইবান্ধার জেলা প্রশাসক মো. আবদুল মতিন বলেন, বর্তমানে ১শ’ শয্যার জনবলে চলছে ২শ’৫০ শয্যার গাইবান্ধা জেলা হাসপাতাল। নতুন এ ভবনটি নির্মাণ সম্পন্ন হলে চিকিৎসা সেবার মান বাড়ার পাশাপাশি আধুনিক অনেক সুবিধা বাড়বে । 

দৈনিক গাইবান্ধা
দৈনিক গাইবান্ধা