• বৃহস্পতিবার   ২১ অক্টোবর ২০২১ ||

  • কার্তিক ৬ ১৪২৮

  • || ১৩ রবিউল আউয়াল ১৪৪৩

‘তৃণমূলের নেতাকর্মীরাই আওয়ামী লীগের প্রাণ’ -তথ্যমন্ত্রী

দৈনিক গাইবান্ধা

প্রকাশিত: ২০ সেপ্টেম্বর ২০২১  

তৃণমূলের নেতাকর্মীরাই আওয়ামী লীগের প্রাণ বলে মন্তব্য করেছেন দলটির যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক এবং তথ্য ও সম্প্রচার মন্ত্রী হাছান মাহমুদ। তিনি বলেন, ‘তৃণমূল নেতাকর্মীদের কারণেই দল আজ এতদূর এসেছে।’ রোববার (১৯ সেপ্টেম্বর) দুপুরে গাইবান্ধা সার্কিট হাউজে তৃণমূল নেতাকর্মীদের সঙ্গে মতবিনিময়ের সময় তিনি এসব কথা বলেন।

মন্ত্রী বলেন, বিভিন্ন সময়ে দলের দুর্দিনে, বিশেষ করে ২০০৭ সালে যখন আমাদের নেত্রী বঙ্গবন্ধু কন্যা জননেত্রী প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে গ্রেফতার করা হয়, তখন আমাদের অনেক নেতা দ্বিধাগ্রস্ত হয়ে পড়েছিলেন, অনেক নেতা ভিন্ন সূরে কথা বলেছেন, অনেক নেতা ক্ষমতাসীনদের সঙ্গে আপস করার চেষ্টা করেছেন। কিন্তু তৃণমূলের নেতাকর্মীরা সবসময় ঐক্যবদ্ধ ও অবিচল ছিলেন। তাদের আন্দোলনের পরিপ্রেক্ষিতেই জননেত্রী শেখ হাসিনা কারাগার থেকে মুক্ত হয়েছিলেন। আজ তাদের কারণেই আওয়ামী লীগ সফলতার সঙ্গে এতটা পথ পাড়ি দিতে পেরেছে। প্রত্যেককে স্ব-স্ব অবস্থান থেকে আরো দায়িত্বশীল ভূমিকা রেখে অতীতের মতো আগামী দিনেও দলকে আরো এগিয়ে নেওয়ার আহ্বান জানান তিনি।

নেতাকর্মীদের উদ্দেশ্যে তিনি বলেন, যারা আওয়ামী লীগের নাম ভাঙিয়ে চাঁদাবাজি করতে চায় তাদের দলে দরকার নেই। আওয়ামী লীগ একটি গণমানুষের দল। যারা সাড়ে ১৩ বছর ধরে আওয়ামী লীগ করছেন কিন্তু অতীতে করেননি তারা আওয়ামী লীগের দুঃসময় দেখেননি। ক্ষমতায় আছি বিধায় বেপরোয়া হওয়া যাবে না। আমাদের বিনয়ী হতে হবে। হৃদয় মানুষকে মহান করে। তাই চোখ-কান খোলা রেখে সমস্ত ষড়যন্ত্র মোকাবিলা করতে হবে। আমাদের দল যাতে করে অব্যাহতভাবে দেশ পরিচালনা করতে পারে সেই লক্ষ্যে কাজ চালিয়ে যেতে হবে।

 

তথ্যমন্ত্রী বলেন, নির্বাচনের খুব বেশীদিন বাকি নেই। দুই বছর পরই নির্বাচনী কার্যক্রম শুরু হবে। এসময় দেখবেন শীতে যেমন অতিথি পাখিরা আসে, তেমনি নির্বাচনের সময়েও বিএনপি ও অন্যান্য দলের নেতাদের অতিথি পাখির মতো আনাগোনা দেখা যাবে। এমন অতিথিদের লাল কার্ড দেখিয়ে দিতে হবে। যারা দুঃসময়ে গত কয়েক বছর ধরে জনগণের পাশে আছে এবং থাকবে তাদেরকে ভোট দিতে হবে। নৌকা মার্কায় ভোট দিয়ে আবারও শেখ হাসিনাকে দেশ পরিচালনার দায়িত্ব দিতে হবে।

 

এসময় জাতীয় সংসদের হুইপ মাহাবুব আরা বেগম গিনি এমপি, কেন্দ্রীয় আওয়ামী লীগের উত্তরাঞ্চল সাংগঠনিক স¤পাদক সাখাওয়াত হোসেন শফিক, কৃষকলীগ কেন্দ্রীয় কমিটির সাধারণ স¤পাদক অ্যাডভোকেট উম্মে কুলসুম স্মৃতি এমপি, গাইবান্ধা জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি অ্যাড. সৈয়দ শামস-উল আলম হীরু, সাধারণ সম্পাদক আবু বকর সিদ্দিক, গাইবান্ধা জেলা প্রশাসক আব্দুল মতিন, পুলিশ সুপার মুহাম্মদ তৌহিদুল ইসলাম, কেন্দ্রীয় ছাত্রলীগের সাবেক সভাপতি মাহামুদ হাসান রিপন, সদর উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক আমিনুর জামান রিংকু এবং যুবলীগ, ছাত্রলীগ, কৃষক লীগ, স্বেচ্ছাসেবক লীগসহ সহযোগী অঙ্গ সংগঠনের নেতৃবৃন্দরা উপস্থিত ছিলেন।

এরপর দুপুর সাড়ে ১২টায় সদর উপজেলার রাধাকৃষ্ণপুর এসকেএসইন-এ জেলা আওয়ামী লীগের এক বর্ধিত সভায় যোগ দেন তথ্য ও সম্প্রচার মন্ত্রী ড. হাছান মাহমুদ।

এরআগে রোববার সকাল পৌনে ৯টায় তিনি সৈয়দপুর বিমান বন্দরে অবতরণ করেন। সেখান থেকে সড়ক পথে সকাল সাড়ে ১১টায় তিনি গাইবান্ধা সার্কিট হাউসে এসে পৌঁছান।

দৈনিক গাইবান্ধা
দৈনিক গাইবান্ধা