• বুধবার   ২৯ জুন ২০২২ ||

  • আষাঢ় ১৪ ১৪২৯

  • || ২৭ জ্বিলকদ ১৪৪৩

দাঁত ভালো রাখতে যে খাবারগুলো এড়িয়ে চলবেন

দৈনিক গাইবান্ধা

প্রকাশিত: ২১ মে ২০২২  

দাঁত সুন্দর ও ভালো রাখার জন্য খাবারের প্রতি নজর দেওয়া জরুরি। কারণ দাঁতে নানা সমস্যা যেমন কালো দাগ, দাঁত ক্ষয়ে যাওয়া ইত্যাদির জন্য দায়ী আমাদের খাবার ও কিছু বদ অভ্যাস। অনেক সময় ব্যস্ততার কারণে ঠিকভাবে দাঁতই মাজা হয় নয়। ফলে দাঁতের সমস্যা আরও বেড়ে যায়। 

বিশেষজ্ঞদের মতে, সাধারণত অত্যন্ত অ্যাসিড এবং ক্যাফেইনযুক্ত খাবার খাওয়ার কারণে দাঁতের বিক্রিয়া ঘটতে পারে। যে কারণে দাঁতে দাগ-ছোপ পড়ে যেতে পারে। দাঁতে দাগ পড়লে দেখতে খারাপ লাগে, সেইসঙ্গে নষ্ট হয় আত্মবিশ্বাসও। এটি অনেকের হীনমন্যতারও কারণ হয়ে দাঁড়ায়। এসব ছাড়াও ছোট ছোট সমস্যাগুলো থেকে বড় সমস্যার সৃষ্টি হয়। তাই দাঁত ভালো রাখতে কিছু খাবার বাদ দিতে হবে বা এড়িয়ে চলতে হবে। চলুন জেনে নেওয়া যাক-

চা

দাঁতের জন্য ক্ষতিকর পানীয় হতে পারে চা। আপনি যদি খুব বেশি চা পান করে থাকেন তবে সেটিও হতে পারে দাঁতের কালো দাগের কারণ। অতিরিক্ত চা পান করলে তা দাগের মাত্রা বাড়িয়ে তুলবেই। তাই সাধারণ চায়ের বদলে গ্রিন টি পান করার অভ্যাস করতে পারেন। এতে দাঁতে দাগ পড়বে না এবং দাঁত ভালো থাকবে।

ব্ল্যাক কফি

কফি অনেকের কাছেই পছন্দের একটি পানীয়। দিনের মধ্যে কয়েকবার ব্ল্যাক কফি খাওয়ার অভ্যাস থাকে অনেকের। কিন্তু এই পানীয় বেশি পান করার কারণে দাঁতে দাগ-ছোপ পড়ে যেতে পারে। এরপর হলুদ কিংবা কালো দাগ আরও বাড়তে পারে। তাই কফি পান করলেও পরিমিত পান করাই ভালো। 

রেড ওয়াইন

রেড ওয়াইন শরীরের বিভিন্ন ক্ষতি করার পাশাপাশি আপনার দাঁতেরও ক্ষতি করবে। কারণ রেড ওয়াইন থেকে দাঁতে অ্যাসিডের মাত্রা অত্যন্ত বেড়ে যায়। এর ফলে দাঁতে দাগ সৃষ্টি হতে পারে। তাই রেড ওয়াইন পান করা বন্ধ করা উচিত।

সয়া সস

বিভিন্ন সুস্বাদু খাবার তৈরিতে ব্যবহার করা হয় সয়া সস। এটি খাবারে স্বাদ ও গন্ধ যুক্ত করে। কিন্তু আপনি যদি নিয়মিত এটি অতিরিক্ত ব্যবহার করে থাকেন, তবে সেই খাবার খেলে দাঁতে দাগ পড়তে পারে। তাই খাবারে সয়া সস ব্যবহার করলে সেটি যেন পরিমিত হয়, সেদিকে খেয়াল রাখবেন।

তামাক ও সিগারেট

তামাক ও সিগারেট কোনোটাই দাঁতের জন্য ভালো নয়। কারণ এই দুইয়ের কারণে আপনার দাঁতে খুব সহজেই কালো দাগ পড়ে যেতে পারে। অতিরিক্ত সিগারেটের কারণে ঠোঁট কালো হয়ে পড়ে তাই এর মাত্রা কমানো উচিত। সম্ভব হলে সিগারেট ও তামাক পুরোপুরি বাদ দিয়ে দিন।

দৈনিক গাইবান্ধা
দৈনিক গাইবান্ধা