• বুধবার   ২২ সেপ্টেম্বর ২০২১ ||

  • আশ্বিন ৬ ১৪২৮

  • || ১৩ সফর ১৪৪৩

পেয়াজের রস দিয়ে মুখের দাগ দূর করার সহজ উপায়

দৈনিক গাইবান্ধা

প্রকাশিত: ১৫ আগস্ট ২০২১  

আমাদের দেশে গ্রামঅঞ্চলে জনপ্রিয় একটি খাদ্য হচ্ছে পান পাতা। খাবার পরে একটা পান না খেলে যেন হয়ই না। প্রাচীনকাল থেকেই পান পাতা খাওয়ার রীতি আমাদের দেশে চালু রয়েছে।

খালি পানের স্বাদ ভাল না হলে চুন সুপারি দিলে ব্যাপারটাই জমে যায়। সাধারণত দু ধরনের পান বাজারে পাওয়া যায় –কপুরি ও মলবারি। কপুরি পান আকারে ছোট আর স্বাদে মৃদু। বাংলা পানের আকার বড় হয় ও স্বাদে তীক্ষ্ণ। বাংলা পানের রস তীক্ষ্ণ, মলনিঃসারক, পিত্ত উৎপাদন করে , গরম এবং কফ হরণ কর।

পাকা সাদা পাতলা ও ছোট আকারের পান সবচেয়ে ভাল গুণের দিক থেকেও শ্রেষ্ঠ। কাঁচা সবুজ পানের চেয়ে পাকা সাদা পানের স্বাদ ও গুণ বেশি।

পান স্বচ্ছ রুচি উৎপাদক, তীক্ষ্ণ, উষ্ণ, কায়-মল পরিষ্কার করে, কটু ক্ষারযুক্ত, রক্ত এবং পিত্তকারক, হালকা ,বলপ্রদ, কফ, মুখের দুগন্ধ, বায়ু নাশক এবং শ্রম দূর করে।

পান কামোদ্দীপক, রুচি বৃদ্ধি করে এবং চেহারা সুন্দর করে। আমরা সাধারণত পান খেয়ে থাকি কিন্তু পান পাতার যে অনেক ধরনের উপকারিতা রয়েছে তা আমাদের অনেকের অজানা।

তাহলে আসুন জেনে নেওয়া যাক পান পাতার বিভিন্ন ধরনের উপকারিতাঃ

নিমেষে মাথা  যন্ত্রণা কমিয়ে ফেলেঃ

নিয়মিত পান পাতা খাওয়া শুরু করলে শরীরের ভেতরে “কুলিং প্রপাটির” মাত্রা বাড়তে শুরু করে, যার প্রভাবে মাথা যন্ত্রণা কমে যেতে শুরু করে।

প্রসঙ্গত, মাথা যন্ত্রণা কমাতে আরেক ভাবেও পান পাতাকে কাজে লাগানো যেতে পারে। কীভাবে? এবার থেকে যখনই মাথা যন্ত্রণা করবে তখনই ১-২ টা পান পাতা নিয়ে কপালে লাগিয়ে ফেলবেন। দেখবেন কষ্ট কমতে সময় লাগবে না।

ওজন হ্রাসে সাহায্য করেঃ

যে কোনও অনুষ্ঠান বাড়িতে মহাভোজের পর পান পরিবেশন করার রেওয়াজ রয়েছে কেন জানেন? কারণ পান পাতায় এমন কিছু উপাদান রয়েছে যা আমাদের বিপাক প্রক্রিয়াকে জোরদার করে।

সেই সঙ্গে হজমে সহায়ক রসের ক্ষরণ বাড়িয়ে দিয়ে হজম ক্ষমতার উন্নতি ঘটায়। এখানেই শেষ নয়, পান পাতায় উপস্থিত ফাইবার, কনস্টিপেশন দূর করে এবং শরীরে জমে থাকা অতিরিক্ত চর্বিকে গলিয়ে দেয়।

ফলে একাধারে যেমন ওজন হ্রাস পায়, তেমনি নানাবিধ শারীরিক সমস্যাও কমতে শুরু করে।

অবসাদ কমাতে এবং মন ভাল করতে কাজে আসেঃ

যারা মারাত্মক মানসিক চাপে ভুগছেন তারা আজ থেকেই পান খাওয়া শুরু করুন। কারণ এতে উপস্থিত বেশ কিছু প্রাকৃতিক উপাদান নিমেষে মন ভাল করে দেয়।

সেই সঙ্গে ডিপ্রেশন কমাতেও বিশেষ ভূমিকা পালন করে থাকে। এক্ষেত্রে রাতের খাবার শেষ করে ১-২ টা পান খেলে দারুন উপকার পাওয়া যায়।

মুখের দূর্গন্ধ দূর করেঃ

মুখ গহ্বরে উপস্থিত নানা ধরনের ক্ষতিকারক ব্যাকটেরিয়াদের মেরে ফেলে মুখের খারাপ গন্ধ দূর করতে সাহায্য করে।

আসলে পান পাতা চিবানোর সময় প্রচুর মাত্রায় স্যালাইভা তৈরি হয়, যা গন্ধ সৃষ্টিকারি ব্যাকটেরিয়াদের মেরে ফেলে। সেই সঙ্গে পি এইচ লেভেলকে স্বাভাবিক মাত্রায় নিয়ে আসে। ফলে গন্ধ একেবারে গায়েব হয়ে যায়।

বদ হজমের সমস্যা দূর করেঃ

যারা প্রায়শই বদ হজমে ভুগে থাকেন তারা আজ থেকেই পান খাওয়া শুরু করুন। দেখবেন দারুন উপকার পাবেন।

কারণ এতে রয়েছে গ্যাস্ট্রো প্রটেকটিভ এজেন্ট। সেই সঙ্গে রয়েছে অ্যান্টি-ফ্লটুলেন্ট এবং কার্মিনেটিভ এজেন্ট যা স্যালিভারি জুসের উৎপাদন বাড়িয়ে দেয়। ফলে হজম ক্ষমতার উন্নতি ঘটে।

গলা ব্যথা কমায়ঃ

অ্যান্টি-ব্যাকটেরিয়াল এবং অ্যান্টি-ইনফ্লেমেটরি উপাদান থাকার কারণে গলা ব্যথা এবং ঠান্ডা লাগার মতো সমস্যা কমাতে পান পাতা বিশেষ ভূমিকা পালন করে থাকে।

শুধু তাই নয়, প্রতিদিন পান পাতার সঙ্গে অল্প করে মধু খেলে গলার সংক্রমণও দূর হয়। তাই আবহাওয়া বদলের সময় যারা খুব রোগে ভুগে থাকেন, তারা এমন সময় সঙ্গে পান পাতা রাখতে ভুলবেন না।

দৈনিক গাইবান্ধা
দৈনিক গাইবান্ধা