• মঙ্গলবার   ২১ সেপ্টেম্বর ২০২১ ||

  • আশ্বিন ৫ ১৪২৮

  • || ১১ সফর ১৪৪৩

কব্জি ডুবিয়ে মাংস খাওয়ার পর সুস্থ থাকতে করণীয়

দৈনিক গাইবান্ধা

প্রকাশিত: ২৩ জুলাই ২০২১  

কোরবানির ঈদের পর বেশ কয়েকদিন রেড মিট খাওয়া পড়ে একটু বেশি। গরুর মাংসে যেমন আছে উপকারিতা, তেমনি মাত্রাতিরিক্ত খেলে তা স্বাস্থ্যঝুঁকির কারণও কিন্তু হতে পারে। কব্জি ডুবিয়ে মাংস খাওয়ার পর নিজেকে সুস্থ রাখতে কিছু নিয়ম মানতে হবে।

খাওয়ার পর হাঁটাহাঁটি

মাংস খাওয়ার পর অন্তত মিনিট পনের হাঁটুন। দেখবেন শরীর কেমন ঝরঝরে লাগছে। এতে একদিকে যেমন খাবারটা ভালো পরিপাক হয় তেমনি ফ্যাটটা শরীরে জমতে পারে না। ভুল করেও কিন্তু খাওয়ার পর পরই ঘুমাতে যাবেন না। এতে হজমের সমস্যা হয়।

হালকা গরম পানি পাশে থাকুন

হালকা গরম পানি খেলে হজম ক্ষমতার উন্নতি ঘটে। ফলে শরীরে অতিরিক্ত চর্বি জমার সুযোগ থাকে না এবং পাকস্থলীর কার্যকারিতা বৃদ্ধি পায়।

শসা খেতে পারেন

শরীরের বাড়তি চর্বিকে কমিয়ে রাখে শসা‌। তৈলাক্ত খাবার খাওয়ার এক থেকে দুই ঘণ্টা পর পর কচি শসা খেতে পারেন। এছাড়া চাইলে পানি, লেবুর রস ও শসার রস একসঙ্গে পরিমাণমতো মিশিয়ে ডিটক্স ওয়াটার তৈরি করে পান করতে পারেন।

খাওয়ার পর পাতে দই

দই খাবার হজমে সাহায্য করে। দইয়ে যেসব অসংখ্য উপকারী ব্যাকটেরিয়া রয়েছে, সেগুলো দেহের রোগপ্রতিরোধ ক্ষমতাও বৃদ্ধি করে। দইয়ে থাকা নানা উপকারি উপাদানের ফলে ল্যাকটোজের প্রতি সংবেদনশীলতা, কোষ্টকাঠিন্য, ডায়রিয়া, কোলন ক্যান্সার ও অন্ত্রের সমস্যা দূর করতে কার্যকর।

ফ্রুট সালাদ খেতে পারেন

অধিকাংশ টক জাতীয় ফলই পেটের গ্যাস কমায় ও বদহজম দূর করতে সহায়তা করে। তেল-মসলা-চর্বির ক্ষতিকর প্রভাব কমাতে লেবু, কমলালেবু, বাতাবিলেবুর মতো টক স্বাদের ফলগুলো খেতে পারেন ফ্রুদ সালাদ হিসেবে।

দৈনিক গাইবান্ধা
দৈনিক গাইবান্ধা