বৃহস্পতিবার   ২৯ ফেব্রুয়ারি ২০২৪ || ১৬ ফাল্গুন ১৪৩০

প্রকাশিত: ০৬:০২, ৩০ জুন ২০২৩

পেঁপে চাষে সফল অলি উদ্দিন, ৫ লাখ টাকা বিক্রির আশা

পেঁপে চাষে সফল অলি উদ্দিন, ৫ লাখ টাকা বিক্রির আশা

সুবর্ণচর উপজেলায় পেঁপে চাষে সফল অলি উদ্দিন। তিনি গ্রীন ও টপ লেডী জাতের পেঁপেসহ অনেক ধরনের পেঁপের চাষ করে সফলতা পেয়েছেন। বর্তমানে তার লাগানো প্রতিটি গাছে সবুজ রঙের অসংখ্য পেঁপে ধরে আছে। এখানকার মাটি ও আবহাওয়া ভাল থাকায় বাম্পার ফলনের আশা করছেন তিনি। পেঁপের চাষের পাশাপাশি তিনি পুকুরে মাছ চাষ ও পুকুর পাড়ে ঝিঙে ও লাউয়ের চাষ করছেন। তার এমন সফলতা দেখে অনেকেই কৃষি কাজে আগ্রহী হয়েছেন।

জানা যায়, অলি উদ্দিন সুবর্ণচর উপজেলার ১ নং চরজব্বর ইউনিয়নের ৫নং ওয়ার্ডের বাসিন্দা। তিনি ২০২২ সালে শখের বশে কয়েকটি পেঁপে গাছ লাগান। সেখান থেকে ভাল ফলন পাওয়ায় এবছর তিনি ৫০০ পেঁপের চারা রোপন করেছেন। এছাড়াও তিনি মাছ চাষের জন্য ৯ একর জমির ওপর ১০ টি পুকুর খনন করেন। সেখানে নানা জাতের মাছের চাষ করেন। আর সেই পুকুর পাড়ে মাচা তৈরী করে ঝিঙে ও লাউয়ের চাষও করছেন।

অলি উদ্দিন হাওলাদার বলেন, যদি নিজ নিজ জমিতে, বাড়ীর আঙ্গিনায় এবং ছাঁদ বাগানে এধরনের সবজি চাষ করা যায় তাহলে খাদ্যে সয়ং সম্পূর্ণ হবে বাংলাদেশ। সেই সাথে নিজেদের ফলানো ফসল খেলে তার প্রভাব দ্রব্যমূল্যের উর্ধ্বগতিতেও বাঁধা সৃষ্টি করবে। আমি বেকার যুকবদের উৎসাহ দিতেই সবজির বাগান করেছি। আর পুকুরে মাছ চাষ করছি। আশা করছি ৫ লাখ টাকার পেঁপে বিক্রি করতে পারবো।

সুবর্ণচর উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা মুহাম্মদ হারুন অর রশিদ বলেন, অলি উদ্দিন হাওলাদারের পেঁপেসহ বিভিন্ন সবজির বাগান আমরা পরিদর্শন করেছি। তিনি সবকিছু সুপরিকল্পিত ভাবে করেছেন। নিজের জমিতে পেঁপে চাষ করছেন। পাশাপাশি অন্যান্য সবজিও চাষ করছেন। এখানকার আবহাওয়া সবধরনের সবজি চাষের উপযোগী হওয়ায় তিনি সফলতা পাচ্ছেন। তার বাগানের পেঁপে গাছ গুলো ৪-৬ ফুট উচ্চতার। সবগুলো গাছেই ফল ধরেছে। আমরা তাকে সহযোগিতা করছি। আশা করছি তিনি লাভবান হতে পারবেন।

দৈনিক গাইবান্ধা

সর্বশেষ

জনপ্রিয়