• সোমবার   ১৫ আগস্ট ২০২২ ||

  • শ্রাবণ ৩১ ১৪২৯

  • || ১৬ মুহররম ১৪৪৪

এখন ঘরে বসেই চাষ করতে পারবেন জাফরান!

দৈনিক গাইবান্ধা

প্রকাশিত: ২০ জুলাই ২০২২  

আমরা সকলেই জানি যে যখনই জাফরানের কথা আসে, প্রথম স্থানটি আমাদের মনে আসে- কাশ্মীর। এখানে প্রচুর পরিমাণে জাফরানের চাষ হয়। এখানকার জাফরান দেশে বিদেশে পাঠানো হয়। জাফরান চাষ এখানকার কৃষকদের জন্য একটি লাভজনক চুক্তি, তবে ভারতে, আবহাওয়ার অনিশ্চয়তা জাফরানকেও প্রভাবিত করে, তাই এমন পরিস্থিতিতে জাফরানের অভ্যন্তরীণ চাষ একটি ভাল বিকল্প হতে পারে।

আজ কাশ্মীরের কৃষকরা জাফরানের অন্দর চাষের কৌশল শিখছে । এ কারণে ফলন ভালো হচ্ছে এবং সবচেয়ে বড় কথা হলো জাফরানের মানও ভালো হয়েছে। ফলে এর দামও ভালো।

জাফরানের ইনডোর ফার্মিং এর  সুবিধা কী?

একটি ছোট ঘরে ইনডোর জাফরান চাষ করা যেতে পারে।

এ কারণে কৃষকদের প্রতিদিন মাঠ পাহারা দিতে হয় না। এতে সময় ও শ্রম দুটোই বাঁচে।

এ ধরনের খামারে বন্য প্রাণী ও পোকামাকড়ের কোনো বিপদ নেই।

জাফরানের অভ্যন্তরীণ চাষের একটি বড় সুবিধা হল এতে সেচের প্রয়োজন হয় না। জাফরানের কাজ বের করে বাঁশের লোহার তৈরি প্লেয়ারে রাখুন।

জাফরানের অভ্যন্তরীণ চাষের আরেকটি সুবিধা হল এটি জাফরান ফসলকে আবহাওয়া থেকে বাঁচাতে পারে।

কিভাবে জাফরানের ইনডোর ফার্মিং করবেন

জাফরানের অভ্যন্তরীণ চাষের জন্য একটি অন্ধকার বন্ধ ঘর প্রয়োজন। আলো এই ঘরে পৌঁছানো উচিত নয়। ইন্দোর চাষের জন্য, জাফরানের কাজ প্রায় 3 মাস বন্ধ অন্ধকার ঘরে রাখা হয়। এর পর জাফরান চাষের জন্য প্রস্তুত। এটি 20 ডিগ্রি তাপমাত্রা প্রয়োজন।

জাফরানের ইনডোর ফার্মিংয়ের মাধ্যমে পরিচয় তৈরি হয়েছে 

প্রাথমিকভাবে, একটি পরীক্ষা হিসাবে কাশ্মীরে জাফরানের অভ্যন্তরীণ চাষ শুরু করা হয়েছিল, কিন্তু এর সাফল্যের পরে, এটি ধীরে ধীরে অন্যান্য কৃষকদের দ্বারা গ্রহণ করা হয়েছিল। যাদের চাষযোগ্য জমি নেই তাদের জন্য এটি অত্যন্ত উপকারী।

এই প্রযুক্তি শুধুমাত্র এখানকার কৃষকদের জন্যই নয়, সারা ভারতের কৃষকদের জন্য আশীর্বাদ হতে পারে। এতে শুধু জাফরানের উৎপাদনই নয়, এর গুণমানও বাড়বে। জাফরানের ইনডোর ফার্মিং এর মাধ্যমে আমাদের কৃষক ভাইয়েরা কোন ঝামেলা ছাড়াই লক্ষাধিক মুনাফা অর্জন করতে পারবেন।

দৈনিক গাইবান্ধা
দৈনিক গাইবান্ধা