দৈনিক গাইবান্ধা
  • বুধবার ০৪ অক্টোবর ২০২৩ ||

  • আশ্বিন ১৯ ১৪৩০

  • || ১৮ রবিউল আউয়াল ১৪৪৫

ভারতের ওটিটিতে মোশাররফ হচ্ছেন ঠাকুর

দৈনিক গাইবান্ধা

প্রকাশিত: ১৪ সেপ্টেম্বর ২০২৩  

কথাসাহিত্যিক বিভূতিভূষণ বন্দ্যোপাধ্যায়ের আলোচিত উপন্যাস ‘আদর্শ হিন্দু হোটেল’। ১৯৪০ সালে প্রকাশিত এ উপন্যাসের প্রধান চরিত্র হাজারি ঠাকুর। যিনি মধ্যবয়সী বাঙালি ব্রাহ্মণ, পেশায় রাঁধুনি। বেচু চক্কত্তির খাবারের হোটেলে মাসে ৭ টাকা বেতনে কাজ করে। আর স্বপ্ন দেখে—একদিন তার নিজেরও একটা হোটেল হবে।

উপন্যাসটিতে নানা চড়াই-উতরাই পেরিয়ে হাজারি ঠাকুরের সফল উদ্যোক্তা হয়ে ওঠার গল্প বলেছেন বিভূতিভূষণ। এই হাজারি চরিত্রে এবার দেখা যাবে বাংলাদেশি অভিনেতা মোশাররফ করিমকে। ভারতীয় সংবাদমাধ্যম ওটিটিপ্লে তাদের প্রতিবেদনে জানিয়েছে, ‘আদর্শ হিন্দু হোটেল’ অবলম্বনে একটি সিরিজ নির্মাণের প্রক্রিয়া চলছে। শিগগিরই প্রকাশ্যে আসতে যাওয়া ক্যামেলিয়া প্রোডাকশনের ওটিটি প্ল্যাটফর্মের জন্য এ সিরিজ পরিচালনা করবেন নির্মাতা অরিন্দম শীল। গণমাধ্যমটি আরও জানায়, আদর্শ হিন্দু হোটেলের হাজারি ঠাকুর চরিত্রে পরিচালক অরিন্দম বেছে নিয়েছেন মোশাররফ করিমকে। অরিন্দম শীল ও অনন্যা চট্টোপাধ্যায়। ছবি: সংগৃহীতঅন্যদিকে, এ উপন্যাসের আরেক গুরুত্বপূর্ণ চরিত্র পদ্ম। হাজারি ঠাকুরের মতোই বেচু চক্কত্তির খাবারের হোটেলে কাজ করে সে। হোটেলের ঝি হলেও ষোলো আনা ক্ষমতা তার হাতে। মালিক বেচু তাকে ভরসা করে। অনেকটা তার কথামতোই চলে হোটেল। এ সুযোগ কাজে লাগিয়ে পদ্ম নানা সময় হোটেলের খাবার চুরি করে।

মালপত্র সরায়। হাজারি ঠাকুরকে সে ঈর্ষা করে, নানা অপবাদ দেয়। সিরিজটিতে এ চরিত্রে অভিনয় করবেন অনন্যা চট্টোপাধ্যায়। এছাড়া বেচু চক্কত্তির চরিত্রে দেখা যাবে দেবশংকর হালদারকে। জানা গেছে, এ মাসেই শুটিং শুরু হওয়ার কথা ছিল সিরিজটির। কিন্তু আসন্ন দুর্গাপূজায় মুক্তি পেতে যাচ্ছে অরিন্দম শীলের নতুন সিনেমা ‘জঙ্গলে মিতিন মাসি’। সেটা নিয়েই আপাতত ব্যস্ত আছেন নির্মাতা। তাই সিরিজটির শুটিং পিছিয়ে নেওয়া হয়েছে আগামী বছরের জানুয়ারিতে। উল্লেখ্য, ‌‘আদর্শ হিন্দু হোটেল’ উপন্যাস অবলম্বনে আগেও সিনেমা কিংবা নাটক নির্মাণ হয়েছে। ১৯৫৭ সালে এ উপন্যাস নিয়ে সিনেমা বানান পরিচালক অর্ধেন্দু সেন। এতে হাজারি ঠাকুর হয়েছিলেন ধীরাজ ভট্টাচার্য। এর কয়েক বছর পর একই নামে তৈরি হয় একটি ধারাবাহিক নাটক। যেখানে হাজারি ঠাকুরের চরিত্রে অভিনয় করেন মনোজ মিত্র।

দৈনিক গাইবান্ধা
দৈনিক গাইবান্ধা