• সোমবার   ২৫ অক্টোবর ২০২১ ||

  • কার্তিক ১০ ১৪২৮

  • || ১৭ রবিউল আউয়াল ১৪৪৩

অপূর্ব-সাবিলা জুটির নতুন সাফল্য

দৈনিক গাইবান্ধা

প্রকাশিত: ২০ আগস্ট ২০২১  

শিহাব শাহীন পরিচালিত ‘রঙিলা ফানুস’ নাটকটি প্রকাশ হয়েছে গেল কোরবানি ঈদে। নাটকটি দর্শক সাড়া পেয়েছে। এখানে দেখা গেছে হালের ক্রেজ জুটি অপূর্ব-সাবিলাকে। তাদের ভক্তরা বেশ উপভোগ করেছেন নাটকটি।

তার প্রমাণ নাটকের প্রযোজনা প্রতিষ্ঠান সিএমভির ইউটিউব চ্যানেলে। মজার এই নাটকটি প্রকাশের ৮ দিনের মাথায় অতিক্রম করেছে ৫০ লাখ ভিউয়ের ঘর।

নাটকটি সিএমভি’র ইউটিউব চ্যানেলে উন্মুক্ত হয় ১০ আগস্ট। আর ৫০ লাখের মাইল ফলক ছুঁয়ে দেয় ১৮ আগস্ট। বিষয়টি নিয়ে খুবই উচ্ছ্বসিত সংশ্লিষ্টরা।

নির্মাতা শিহাব শাহীন বলেন, ‘নাটকটি প্রথমে করতে চাইনি। কারণ, গল্প পড়ে মনে হলো এটা পিওর কমেডি। এই ঘরানার কাজ আমি আগে করিনি। এরপর গল্পটা শেয়ার করলাম অপূর্বর সঙ্গে। ও খুবই আগ্রহ দেখালো। মূলত ওর আগ্রহ দেখেই কাজটি করা। নাটকটি প্রকাশের ৮ দিনের মাথায় দর্শকরা যে পুরস্কার আমাদের দিয়েছে তাতে আমি মুগ্ধ।

সাবিলা তার চরিত্রে অসাধারণ অভিনয় করেছে। নাটকটি কমেডি ঘরানার হলেও এর মাধ্যমে আমরা সমাজে একটা বার্তা দেওয়ার চেষ্টা করেছি। সেটা হলো- গরীব মানুষেরও মন বলে কিছু আছে। তারাও ঝকঝকে সচ্ছল একটা জীবনের স্বপ্ন দেখে।’

নাটকটির গল্পে দেখা যায়, গৃহকর্তাকে ফ্রেন্ড রিকোয়েস্ট পাঠালো গৃহপরিচারিকা শাপলা। ফেসবুকে নাম দিয়েছে ‘ড্যাডিস প্রিন্সেস শাপলা’! প্রোফাইল ছবি দেখেও চেনার উপায় নেই, কারণ ইউক্যাম পারফেক্ট দিয়ে ছবিটি এডিট করা। অ্যাডুকেশন তথ্যে দেওয়া আছে- ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থী!

এমনই এক অদ্ভুত গৃহপরিচারিকার গল্প নিয়ে তৈরি হয় ‘রঙিলা ফানুস’। এটির চিত্রনাট্য লিখেছেন জান্নাতুল ফেরদৌস লাবণ্য।

সাবিলা নূর বলেন, ‘নাটকটির জন্য যে সাড়া পেয়েছি গত ৮ দিনে সেটা অবিশ্বাস্য। এর জন্য আমি প্রথমেই কৃতজ্ঞতা জানাই অপূর্ব ভাইয়াকে। তিনি সব সময় আমাকে অসাধারণ কিছু কাজের সঙ্গে যুক্ত করেছেন। কৃতজ্ঞতা নির্মাতা শিহাব শাহীন ভাইকে। সহশিল্পী নাজিবা বাশার, শাওন, ডিওপি নাঈম ফুয়াদ, প্রযোজক পাপ্পু ভাইসহ নাটকটির সঙ্গে সংশ্লিষ্ট সবাইকে জানাই কৃতজ্ঞতা। আর বড় ধন্যবাদটা আসলে দিতে চাই দর্শকদের। তারা নাটকটি দেখেছে বলেই আরও ভালো কাজ করার উৎসাহ পাই।’

দৈনিক গাইবান্ধা
দৈনিক গাইবান্ধা