• সোমবার   ১৮ জানুয়ারি ২০২১ ||

  • মাঘ ৪ ১৪২৭

  • || ০৪ জমাদিউস সানি ১৪৪২

সাদুল্লাপুরের কামারপাড়া ইউনিয়ন হবে ‘রোল মডেল ইউনিয়ন’

দৈনিক গাইবান্ধা

প্রকাশিত: ২০ ডিসেম্বর ২০২০  

আসন্ন সাদুল্লাপুর উপজেলার কামারপাড়া ইউনিয়নের সম্ভাব্য ইউনিয়ন চেয়ারম্যান প্রার্থী মোঃ শহিদুল ইসলাম বাবলা বলেছেন, সাদুল্লাপুর উপজেলার কামারপাড়া ইউনিয়ন উন্নয়নের রোল মডেল হবে। উপজেলার একমাত্র অবহেলিত ইউনিয়ন কামারপাড়া ইউনিয়ন।

এই ইউনিয়নে বর্ষার সময়ে রাস্তাঘাটের যে অবস্থা হয় তাতে যানবাহন তো দুরের কথা পাঁয়ে হেটে চলায় জনগনের দুর্ভোগ পোহাতে হয়। বর্তমান সরকার প্রতিটি ঘরে ঘরে বিদ্যুৎ পৌঁছে দিয়েছে। উপনির্বাচনে আ’লীগ সরকারের উন্নয়নের অঙ্গিকারের লক্ষ্যে গাইবান্ধা-৩ আসনের মাননীয় সংসদ সদস্য এ্যাডঃ উম্মে কুলসুম স্মৃতি ও উপজেলা চেয়ারম্যান আলহাজ্ব সাহারিয়া খাঁন বিপ্লব এবং সৎ স্বচ্ছ মেধাবী শিক্ষাও ক্রীড়াবান্ধব উপজেলা নির্বাহী অফিসার নবীনেওয়াজ অঙ্গিকারে উপজেলার মেগাবিট প্রজেক্ট বাস্তবায়ন করা হচ্ছে।

উন্নয়ন কর্মসূচি চলছে ও পর্যায়ক্রমে সব উন্নয়ন পরিকল্পনা বাস্তবায়ন হবে।’শুক্রবার (১৮ ডিসেম্বর ) সন্ধ্যায় নুরপুর দক্ষিণ পাড়া সাধুর বাড়িতে সার্বজনীন অষ্টপ্রহর আয়োজিত প্রধান বক্তা হিসেবে তিনি এসব কথা বলেন। শহিদুল ইসলাম বাবলা বলেন, ‘ইতোমধ্যে উপজেলার কার্যক্রম রাস্তাঘাট, ব্রিজ-কালভার্ট নির্মাণসহ স্কুল-কলেজ, মাদ্রাসা-মসজিদ ও মন্দিরের বিল্ডিং ভিত্তি প্রস্তর স্থাপনসহ বাস্তবায়নাধীন অতুলনীয় উন্নয়ন কার্যক্রম। এবং মাননীয় সংসদ সদস্যের অনেক উন্ননয়ন মুলক কাজ চলমান রয়েছে।

যেসব এলাকায় এসব কাজ হয়নি, সেসব এলাকার কাজের তালিকা সংশ্লিষ্ট মন্ত্রণালয়ে জমা দেওয়া হয়েছে; দ্রুত কাজ শুরু হবে।’ তিনি আরও বলেন, ‘বর্তমান সরকার পরিকল্পনা অনুযায়ী কাজ করছে। সরকারের অনেক প্রকল্প সততার সঙ্গে বাস্তবায়ন করেছে মাননীয় সংসদ সদস্যসহ উপজেলা পরিষদ ও উপজেলা প্রশাসন ।মাননীয় সংসদ সদস্যের পরিকল্পনা অনুযায়ী প্রতিটি ইউনিয়নে উন্নয়ন কমিটির মাধ্যমে উন্নয়নের অঙ্গীকার নিয়ে এবার আমরা কাজ করে যাচ্ছি। উন্নয়নে সংশ্লিষ্ট কাজে কারও বিরুদ্ধে কোনও অনিয়ম ও দুর্নীতির অভিযোগ পাওয়া গেলে সঙ্গে সঙ্গেই ব্যবস্থা নেওয়া হবে।’

মাননীয় সংসদ সদস্য এ্যাডঃ উম্মে কুলসুম স্মৃতির প্রচেষ্টায় এবারে সাদুল্লাপুরে রবি ২০২০-২১ মৌসুমে কৃষি প্রণোদনা কর্মসূচির আওতায় বোরো, গম, ভুট্টা, সরিষা, সূর্যমূখী, চিনাবাদাম এবং খরিপ-১ মৌসুমে গ্রীষ্মকালিন মুগ উৎপাদন বৃদ্ধির জন্য ক্ষুদ্র ও প্রান্তিক কৃষকদের মধ্যে বিনামূল্যে বীজ ও রাসায়নিক সার বিতরণ করা হয়। আশাকরি মাননীয় সংসদ সদস্য শুধু কামারপাড়া ইউনিয়ন নয় সমগ্র ইউনিয়ন উন্নয়নের জোয়ার বয়ে আনবে। এ আসনের সব স্থানে উন্নয়নের ছোঁয়া লেগেছে। জননেত্রী শেখ হাসিনা আজ বিশ্বে দ্বিতীয় শ্রেষ্ঠ প্রধানমন্ত্রী। দেশ আজ উন্নয়নের গতিতে ধাবমান। উন্নয়নের ধারা অব্যাহত রাখতে হলে শেখ হাসিনাকে আবারও প্রধানমন্ত্রী করতে হবে। সেজন্য আমাদের সবাইকে নৌকা মার্কায় ভোট দিতে হবে।’আরো বলেন, মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাছিনা ‘স্বাস্থ্যসেবাকে সাধারণ মানুষের দোরগোড়ায় পৌঁছে দিতে ১৯৯৬ সালে সরকারের দায়িত্ব গ্রহণের পর দেশে ১৮ হাজার কমিউনিটি ক্লিনিক স্থাপন করেছিল। সেখানে গ্রামের অসহায় নারী ও শিশুসহ বিনা পয়সায় চিকিৎসা ও ওষুধ নিয়েছেন কোটি কোটি মানুষ। ২০০১ সালে বিএনপি ক্ষমতায় এসে এসব কমিউনিটি ক্লিনিক বন্ধ করে দেয়।

২০০৯ সালে ক্ষমতায় এসে আবার বন্ধ কমিউনিটি ক্লিনিক চালু করে। এখন প্রতিদিন লাখ লাখ মানুষ সেখানে চিকিৎসা পাচ্ছে। ৩০ প্রকার ওষুধ পাচ্ছে বিনা পয়সায়।’ সামাজিক নিরাপত্তা কর্মসূচির আওতায় বর্তমানে দেশে কম-বেশি ৭ লাখ দরিদ্র মা মাতৃত্বকালীন ভাতা পাচ্ছেন এটাও মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাছিনার অবদান। সময়ের প্রেক্ষাপটে বর্তমানে দেশব্যাপী তৃণমূল পর্যায়ে বিস্তৃতি লাভ করেছে। সমাজকল্যাণ মন্ত্রণালয়াধীন সমাজসেবা অধিদফতর দেশের দুস্থ, অবহেলিত, পশ্চাৎপদ, দরিদ্র, এতিম, অটিস্টিক ও প্রতিবন্ধী বয়স্ক বিধবা এবং সমাজের অনগ্রসর মানুষের কল্যাণ ও উন্নয়নের ক্ষেত্রে ব্যাপক ও বহুমুখী কর্মসূচি নিয়ে সামাজিক নিরাপত্তা বেষ্টনী সুদৃঢ়করণের লক্ষ্যে নিরলসভাবে কাজ করে যাচ্ছে। প্রধানমন্ত্রী প্রতিশ্রুতি আশ্রয়ণ-২ প্রকল্প। প্রকল্পের মাধ্যমে যার জমি আছে ঘর নেই তার নিজ জমিতে গৃহ নির্মাণ করে দিচ্ছে।পরিশেষে মাননীয় প্রধানমন্ত্রী জননেত্রী দেশরত্ন শেখ হাছিনার জন্য দোয়া ও দীর্ঘায়ু কামনা করেন।

দৈনিক গাইবান্ধা
দৈনিক গাইবান্ধা