বৃহস্পতিবার   ১৪ নভেম্বর ২০১৯   কার্তিক ২৯ ১৪২৬   ১৬ রবিউল আউয়াল ১৪৪১

২৭

শীতের শুরুতেই গলা ব্যথা? রুখবে ছোট্ট একটি ফল

নিজস্ব প্রতিবেদক

প্রকাশিত: ৭ নভেম্বর ২০১৯  

 
শীতের শুরু থেকে শেষ অবধি অনেকেই নিয়মিত সর্দি-কাশি, গলাব্যথা ও জ্বরে ভুগে থাকেন। এজন্য শীতে দরকার শরীরের বাড়তি যত্ন। এসব সমস্যার সমাধান করবে ছোট্ট একটি ফল আমলকি। এটি ভেষজ গুণে অনন্য একটি ফল। এর ফল ও পাতা দু’টিই ওষুধরূপে ব্যবহার করা হয়।

শীতের শুরুতেই নিয়মিত আমলকি খাওয়া শুরু করলে শরীরে প্রচুর মাত্রায় প্রবেশ ঘটবে ভিটামিন সি, ফাইবার, ক্যালসিয়াম, ফসফরাস, আয়রন, ক্যারোটিন, ভিটামিন বি কমপ্লেক্স, প্রোটিন, কার্বোহাইড্রেট এবং সোডিয়াম। এতে ভিতর এবং বাইরে থেকে শরীরকে এতটাই চাঙা করে তোলে যে ঠান্ডা লাগা তো দূর, ছোট-বড় বহু রোগই ধারে কাছে ঘেঁষতে পারবে না।

আমলকিতে কমলালেবুর চেয়ে ১৫ থেকে ২০ গুণ বেশি, আপেলের চেয়ে ১২০ গুণ বেশি, আমের চেয়ে ২৪ গুণ এবং কলার চেয়ে ৬০ গুণ বেশি ভিটামিন ‘সি’ রয়েছে। 

গলার ব্যথা কমে

আয়ুর্বেদিক বিশেষজ্ঞদের মতে নিয়মিত এক গ্লাস আমলা রসে আধা চামচ আদা রসএবং মধু মিশিয়ে খেলে গলার ব্যথা তো কমেই, সেই সঙ্গে কফ এবং সর্দি-কাশির থাকবেনা। তাই এমন ঠান্ডা-গরম পরিস্থিতিতে গলা ব্যথা শুরু হলে আমলকির রসকে কাজে লাগাতে দেরি করবেন না।

রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বাড়ায়

আমলিকতে রয়েছে প্রচুর পরিমাণে ভিটামিন সি ও অ্যান্টিঅক্সিডেন্ট। এটি শরীরে প্রবেশ করার পর দেহের রোগ প্রতিরোধ ব্যবস্থাকে এতটাই শক্তিশালী করে তোলে যে ছোট-বড় কোনো রোগই ধারেকাছে ঘেঁষতে পারে না। সেই সঙ্গে শরীরে উপস্থিত ক্ষতিকর টক্সিক উপাদানও বের করে দেয়। ফলে আয়ু বাড়ে চোখে পরার মতো।

 

আমলকি

আমলকি

দৃষ্টিশক্তির উন্নতি

 

আমলকির রস দৃষ্টিশক্তি বাড়াতে সাহায্য করে। এছাড়াও চোখের বিভিন্ন সমস্যা যেমন চোখের জ্বালা, চোখ চুলকানি, চোখ ফুলে যাওয়া, চোখ দিয়ে পানি পড়ার সমস্যা থেকে রেহাই পাওয়া যায়। আমলকি চোখ ভাল রাখার জন্য উপকারী। এতে রয়েছে ফাইটো-কেমিক্যাল যা চোখের সঙ্গে জড়িও ডিজেনারেশন প্রতিরোধ করতে সাহায্য করে। 

হজম ক্ষমতার উন্নতি

নিয়মিত যদি অনেক পরিমাণ আমলকি খেতে পারেন, তাহলে বদহজম, কোষ্ঠকাঠিন্য ও পাইলস নিয়ে আর চিন্তায় থাকতে হবে না। কারণ এই ফলে রয়েছে প্রচুর মাত্রায় ফাইবার। এটি হজম ক্ষমতার উন্নতিতে বিশেষ ভূমিকা পালন করে থাকে।

সংক্রমণের আশঙ্কা কমে

ভিটামিন সি হলো সেই ব্রহ্মাস্ত্র, যা শরীরের রোগ প্রতিরোধক ব্যবস্থাকে এতটাই মজবুত করে দেয় যেকোনো জীবাণুই সেই দেওয়াল ভেদ করে শরীরের ভেতরে প্রবেশ করতে পারে না। ফলে সংক্রমণের আশঙ্কা যেমন কমে, তেমনি ওয়েদার চেঞ্জের সময় সর্দি-কাশির ভয়ও দূর হয়।

ডায়াবেটিস হটায়

আমলকিতে ক্রোমিয়াম নামে একটি উপাদান থাকে। যা ব্লাড সুগার লেভেল নিয়ন্ত্রণে রেখে ডায়াবেটিস প্রতিরোধ করতে সাহায্য করে। রক্তে শর্করা বা কোলেস্টেরল লেভেলেও কম রাখাতে যথেষ্ট সাহায্য করে।

ক্যান্সার প্রতিরোধ

ক্যান্সারের মতো দূরারোগ্য রোগ প্রতিরোধে বিশ্বস্ত সেনাপতি হয়ে উঠতে পারে আমলকি। কারণ এতে রয়েছে প্রচুর পরিমাণে অ্যান্টিঅক্সিডেন্ট। এটি শরীরে উপস্থিত ক্ষতিকর উপাদানদের বের করে দিয়ে ক্যান্সার সেলের জন্ম যাতে না হয় সেদিকে খেয়াল রাখে। ফলে স্বাভাবিকভাবেই সুস্থ জীবনের পথ প্রশস্ত হয়।

দৈনিক গাইবান্ধা
দৈনিক গাইবান্ধা
এই বিভাগের আরো খবর