• মঙ্গলবার   ১১ আগস্ট ২০২০ ||

  • শ্রাবণ ২৭ ১৪২৭

  • || ২১ জ্বিলহজ্জ ১৪৪১

১৯

রিজেন্টের অনিয়ম খুঁজে বের করে ব্যবস্থা নিয়েছি

দৈনিক গাইবান্ধা

প্রকাশিত: ৯ জুলাই ২০২০  

মানবপাচারের অভিযোগে কুয়েতে গ্রেফতার হওয়া লক্ষ্মীপুর-২ আসনের স্বতন্ত্র দলীয় সংসদ সদস্য মোহাম্মদ শহিদ ইসলাম পাপুল সম্পর্কে সরকারের অবস্থান তুলে ধরে সংসদ নেতা ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেছেন, সে (এমপি পাপুল) কুয়েতের নাগরিক কিনা, সে বিষয়ে কুয়েতের সঙ্গে কথা বলছি। যদি সত্যিই এটা হয় তাহলে ওই সিট (নির্বাচনী আসন) হয়ত খালি করে দিতে হবে। যেটা আইন আছে সেটাই হবে। তার বিরুদ্ধে এখানেও তদন্ত চলছে।

স্পীকার ড. শিরীন শারমিন চৌধুরীর সভাপতিত্বে বুধবার জাতীয় সংসদ অধিবেশনে পয়েন্ট অব অর্ডারে বিএনপি দলীয় সংসদ সদস্য হারুনুর রশীদ এ সংক্রান্ত বিভিন্ন অভিযোগের জবাব দিতে দাঁড়িয়ে প্রধানমন্ত্রী এসব কথা বলেন। দীর্ঘদিন পরে পয়েন্ট অব অর্ডারে বিরোধী দলের অভিযোগের জবাব দিলেন স্বয়ং সংসদ নেতা শেখ হাসিনা।

রাজধানীর রিজেন্ট হাসপাতাল নিয়ে সংসদে উত্থাপিত প্রশ্নের জবাব দিতে গিয়ে প্রধানমন্ত্রী বলেন, এটা কিন্তু সরকারের পক্ষ থেকেই ধরেছি। প্রত্যেকটা ক্ষেত্রে সরকার উদ্যোগ নিয়েছে এবং অনিয়মগুলো খুঁজে বের করেছে। ইতোমধ্যে জড়িতদের গ্রেফতারও করা হয়েছে। সংসদ নেতা বলেন, ওই (রিজেন্ট) হাসপাতালের এই তথ্য কিন্তু আগে কেউ দেয়নি, জানাতে পারেনি। অন্য কেউ জানায়নি। সরকারের পক্ষ থেকেই খুঁজে বের করেছি, ব্যবস্থা নিয়েছি। র‌্যাব সেখানে গেছে। সেখান থেকে জড়িতদের খুঁজে বের করে যথাযথ ব্যবস্থা নেয়া হয়েছে।

মানবপাচারের দায়ে কুয়েতে গ্রেফতার হওয়া সংসদ সদস্য পাপুল সম্পর্কে প্রধানমন্ত্রী বলেন, যে সংসদ সদস্যের কথা বলা হয়েছে, সে কিন্তু স্বতন্ত্র সংসদ সদস্য। সে কিন্তু নির্বাচনে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করার জন্য নমিনেশন চেয়েছিল, আমি কিন্তু দেইনি। সে স্বতন্ত্র সংসদ সদস্য। গত নির্বাচনে ওই আসনটি জাতীয় পার্টিকে দিয়েছিলাম। জাতীয় পার্টির নোমান (প্রার্থী) নমিনেশন পেয়েছিল, কিন্তু সে নির্বাচন করেননি। এ কারণে ওই লোক (এমপি পাপলু) জিতে আসে। এর পর আবার তাঁর স্ত্রীকেও যেভাবে হোক বানায় (সংরক্ষিত মহিলা আসনের সংসদ সদস্য)। কিন্তু তাকে (পাপুল) এমপি আমাদের বানানো নয়।

সংসদ নেতা বলেন, এখানে প্রশ্ন উঠেছে, ওই সংসদ সদস্য (পাপুল) নাকি কুয়েতের নাগরিক! সে কুয়েতের নাগরিক কিনা, সেটা নিয়ে কুয়েতের সঙ্গে কথা বলছি, বিষয়টা দেখব। যদি এটা হয় তাহলে তাঁর ওই আসনটি (লক্ষ্মীপুর-২) খালি করে দিতে হবে। যেটা আইন আছে, সেটাই হবে। আর তার বিরুদ্ধে এখানেও তদন্ত চলছে।

করোনাকালে ত্রাণ সহায়তায় দুর্নীতি ও অনিয়মের অভিযোগের জবাবে আওয়ামী লীগ সভাপতি বলেন, সারাদেশে ৫০ লাখ পরিবারকে আমরা সহায়তা দিচ্ছি। তাদের তালিকা বানানো হয়েছে। সেই তালিকা তিনদফা যাচাই-বাছাই করা হয়েছে। সেই সঙ্গে তাদের আইডি কার্ড, ভোটার লিস্টে নাম, সবকিছু মিলিয়ে ব্যবস্থা নেয়া হচ্ছে। সবকিছু যাচাই করে সঠিক ব্যক্তির কাছে টাকাটা পৌঁছে দিচ্ছি। এ প্রক্রিয়ায় আমাদের সময়ও লেগেছে। অন্য যে নামধাম (ভুয়া/অযোগ্য) এসেছে, তা বাদ দেয়া হয়েছে।

এর আগে পয়েন্ট অব অর্ডারে বিএনপির সংসদ সদস্য হারুনুর রশীদ সংবিধানের ৬৬ অনুচ্ছেদের ব্যাখ্যা তুলে ধরে বলেন, সংসদে নির্বাচিত হওয়ার যোগ্যতা এবং অযোগ্যতা সম্পর্কে যে বিষয়টি তা এখানে স্পষ্টভাবে উল্লেখ রয়েছে। সেখানে বলা হয়েছে, যদি কেউ কোন বিদেশী রাষ্ট্রের নাগরিকত্ব অর্জন করেন কিংবা কোন বিদেশী রাষ্ট্রের আনুগত্য স্বীকার করে; তাহলে তিনি সংসদ সদস্য হিসেবে নির্বাচন করার যোগ্য হবেন না।

এ প্রসঙ্গে কুয়েতে গ্রেফতারকৃত সংসদ সদস্য পাপুল প্রসঙ্গ তুলে ধরে তিনি বলেন, পত্র-পত্রিকার রেফারেন্স দিয়ে পররাষ্ট্রমন্ত্রী বলেছেন, কুয়েতের নাগরিক হিসেবে এমপি পাপুল সেখানে গ্রেফতার হয়েছেন। আজকে যদি সত্যিই পাপুল কুয়েতের নাগরিকত্ব গ্রহণ করে থাকেন, তাহলে এ ব্যাপারে স্পীকারকে এর সুষ্পষ্ট ব্যাখ্যা দিতে হবে। কারণ, নিশ্চয়ই পররাষ্ট্রমন্ত্রী তথ্য সংগ্রহ করেই বলেছেন। আর তথ্য গোপন করে সে নির্বাচনে অংশ নিয়েছে।

রিজেন্ট হাসপাতালের অপকর্মসহ স্বাস্থ্য খাতের অনিয়মের অভিযোগ করে বিএনপির এই এমপি বলেন, কোভিড টেস্টের অনুমতি দলীয় বিবেচনায় দেয়া হয়েছে দুর্নীতি করতে। রিজেন্ট হাসপাতালের যে পরিচালনা বোর্ড রয়েছে, তাদের অগোচরেই কি এ সমস্ত অপকর্ম হয়েছে? মানুষের জীবন-মরণের সঙ্কটময় মুহূর্তে সরকারের জায়গা থেকে র‌্যাব অভিযান চালিয়েছে। তাদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নিয়েছে। কিন্তু এতে আমরা সন্তুষ্ট নই, এই রকম ব্যক্তিদের বাঁচিয়ে রাখা উচিত নয়। তাদের ক্রয়ফায়ারে দেয়া উচিত। তবে করোনা মোকাবেলায় বিভিন্ন প্রণোদনা প্যাকেজ ঘোষণা করায় প্রধানমন্ত্রীকে ধন্যবাদ জানান তিনি।

দৈনিক গাইবান্ধা
দৈনিক গাইবান্ধা
জাতীয় বিভাগের পাঠকপ্রিয় খবর