• সোমবার   ০৮ মার্চ ২০২১ ||

  • ফাল্গুন ২৩ ১৪২৭

  • || ২৪ রজব ১৪৪২

মাত্র ৫ দিনেই ওজন কমবে এই ডায়েটে

দৈনিক গাইবান্ধা

প্রকাশিত: ১৫ জানুয়ারি ২০২১  

শরীরের ওজন একবার বেড়ে গেলে তা কমানো খুবই কঠিন। নানা রকম ডায়েট আর কঠোর শরীরচর্চা হয়ে যায় নিয়মিত সঙ্গী। কিছুতেই ওজন কমছে না। অনেকে আবার ওজন না কমার কারণে দিন দিন হতাশ হয়ে পড়ছেন। তা থেকে আবার দেখা দিচ্ছে শারীরিক নানান সমস্যা। 

খেতে-শুতে-বসতে সব সময়ই ওজন নিয়ে দুশ্চিন্তা। আর এখন তো উৎসবের সময়। মাঝে মাঝেই কারো বিয়ে, জন্মদিন কিংবা বার-বি-কিউ পার্টির দাওয়াত পাচ্ছেন। এড়িয়ে যাচ্ছেন শরীরের ওজনের জন্য। নিজেকে ফিট না দেখালে মনটাই খারাপ হয়ে যাবে। তাহলে মেনে চলুন এই ডায়েট। পাঁচদিনে ওজন কমবে, ফল পাবেন হাতেনাতে। 

> বিশেষজ্ঞরা বলেন, ওজন কমাতে হলে আমাদের প্রতিদিনের খাবার থেকে ৫০০ ক্যালোরি বাদ দিতে হবে। আর খাবার না কমিয়ে শুধুমাত্র ব্যায়াম করে যদি আমরা এই ওজন কমাতে চাই তবে প্রতিদিন এক ঘণ্টার ব্যায়াম করতে হবে। প্রতিদিন সকালে উঠে এক ঘন্টা রাখুন নিজের জন্য। কিছুক্ষণ হাঁটুন, জগিং করুন। শরীর এমনিতেই ভালো থাকবে। যারা নিয়মিত সাইকেল বা সাঁতার চালান, তারাও কিন্তু অভ্যাস ছাড়বেন না।

> শরীরচর্চার শুরুতেই একগ্লাস গরম পানিতে আদা, গোলমরিচ, লবঙ্গ, দারচিনি, তেজপাতা আর তুলসিপাতা দিয়ে ভালো করে ফুটিয়ে নিন। এবার তার মধ্যে একটা গোটা পাতিলেবুর রস আর মধু মিশিয়ে খান। এরপর হাঁটতে যান। এতেও খুব ভালো কাজ হয়। হজমের সমস্যা হয় না।

> ওজন কমাতে চাইলে ব্রেকফাস্ট কখনই বাদ দেবেন না। যেভাবে ব্রেকফাস্টে অভ্যস্ত তাই খান। শুকনো মুড়ির সঙ্গে আদা কুচি আর ছোলা ভেজানো যেমন খেতে পারেন তেমনই ওটস, কর্নফ্লেক্স, দই চিড়া, চিড়ার পোলাও খেতে পারেন। সেই সঙ্গে একটা ডিম সিদ্ধ আর ফল খান। ব্রেকফাস্টের পর চিনি, মধু ছাড়া এককাপ গ্রিন টি। এছাড়াও চলতে পারে ফ্রুট জুস।

> কতটা ক্যালোরি বার্ন হল খেয়াল রাখুন। দ্রুত ওজন কমাতে চাইলে তাড়াতাড়ি ক্যালোরি বার্ন করতে হবে। প্রতিদিন যদি ৩৫০০ ক্যালোরির খাবার খান, তাহলে ৭০০ ক্যালোরি মত ঝরাতেই হবে। যদি প্রতিদিন ৭০০ ক্যালোরি ঝরাতে পারেন তাহলেই প্রতিদিন হাফ কেজি করে ওজন কমবে।

> পানি ও ফল বেশি করে খান। প্রতিদিন অন্তত ৫ লিটার করে পানি খেতে হবে। এর মধ্য দুগ্লাস ইষদুষ্ণ গরম পানি খান। আর কার্বোহাইড্রেট কম খাওয়ার চেষ্টা করুন। সেই জায়গা পূরণ করুক ফল। যে কোনো মিলের আগেই এক টুকরো ফল খান। এতে খিদে কম পাবে আর শরীরে পর্যাপ্ত পুষ্টিও পৌঁছবে।

আরো পড়ুন: শিশুদের অবাধ ইন্টারনেট ব্যবহার, নিয়ন্ত্রণের ৭ উপায়

> ডায়েট প্ল্যানের শেষ দিনও খাবার তালিকায় সবজি এবং ফল রাখুন। শেষ দিন সবজি ও ফল পেটভরে খেতে পারবেন। কলা ও আলু না খাওয়াই ভালো। প্রথম দুই দিনের মতো শেষ দিনও সমপরিমাণ পানি পান করুন। শেষ দিন সকালের নাশতায় এক স্লাইস চিজ, একটি ছোট আপেল, দুপুরের খাবারে একটি ডিম, এক স্লাইস টোস্ট, রাতের খাবারে এক কাপ টুনা বা অন্য কোনো মাছ এক টুকরা, পরিমাণমতো সবজি রাখুন।

> ডায়েট চলাকালীন সময় কৃত্রিম ফলের রস, কোমল পানীয় পান করা থেকে বিরত থাকুন। যেকোনো খাবারে চিনি না খাওয়াই ভালো। সবজি তালিকায় রাখতে পারেন গাজর, ব্রকলি, বাঁধাকপি, শসা, লেটুস, শিম ইত্যাদি। তবে ডায়েটের তিন দিন আলু না খাওয়াই ভালো। আলুতে প্রচুর পরিমাণে শর্করা রয়েছে।

> খাবার নির্বাচনের ক্ষেত্রে সিদ্ধ, পোচ অথবা বেক করা খাবার রাখুন। অল্প তেলে রান্না করুন। বাইরের প্রতি বোতল কোমল পানীয় থেকে আমরা ১৮০ ক্যালোরি পাই। আর তাই ক্যালোরি বাঁচাতে তেষ্টা পেলে স্বাভাবিক পানি পান করুন। চা অথবা জুস চিনি ছাড়া খান। আর এভাবে দিনে ৪০০ ক্যালোরি সেভ করা সম্ভব। না খেয়ে অসুস্থ না হয়ে, পর্যাপ্ত পানি, প্রচুর ফল এবং সবজি খান।

দৈনিক গাইবান্ধা
দৈনিক গাইবান্ধা