• শনিবার   ১৫ আগস্ট ২০২০ ||

  • শ্রাবণ ৩০ ১৪২৭

  • || ২৫ জ্বিলহজ্জ ১৪৪১

২০

বেড়েছে সুস্থতা কমেছে মৃত্যু

দৈনিক গাইবান্ধা

প্রকাশিত: ২ জুলাই ২০২০  

দেশে করোনা শনাক্তের ১১৬তম দিনে গত ২৪ ঘণ্টায় এই ভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে মৃত্যুর সংখ্যা কমেছে, বেড়েছে সুস্থতা। গত ২৪ ঘণ্টায় মারা গেছেন ৪১ জন। মঙ্গলবারের চেয়ে গতকাল ২৩ জন কম মারা গেছেন। মঙ্গলবার রেকর্ডসংখ্যক ৬৪ জন মারা যান। এই পর্যন্ত দেশে এ ভাইরাসে মারা গেছেন ১ হাজার ৮৮৮ জন। শনাক্তের বিবেচনায় গতকাল মৃত্যুর হার ১ দশমিক ২৬ শতাংশ। আগের দিনও এই হার ছিল ১ দশমিক ২৭ শতাংশ। মঙ্গলবারের চেয়ে বুধবার শূন্য দশমিক শূন্য ১ শতাংশ কম।

বুধবার দুপুরে করোনা ভাইরাস সংক্রান্ত নিয়মিত অনলাইন হেলথ বুলেটিনে স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের অতিরিক্ত মহাপরিচালক (প্রশাসন) অধ্যাপক ডা. নাসিমা সুলতানা এসব তথ্য জানান।

অতিরিক্ত মহাপরিচালক জানান, করোনা ভাইরাসে আক্রান্তদের মধ্যে গত ২৪ ঘণ্টায় হাসপাতাল এবং বাসায় মিলিয়ে সুস্থ হয়েছে ২ হাজার ৪৮৪ জন। মঙ্গলবারের চেয়ে গতকাল ৬৪০ জন বেশি সুস্থ হয়েছে। মঙ্গলবার সুস্থ হয়েছিল ১ হাজার ৮৪৪ জন। এ পর্যন্ত সুস্থ হয়েছে ৬২ হাজার ১০২ জন। তিনি জানান, গতকাল শনাক্ত বিবেচনায় সুস্থতার হার ৪১ দশমিক ৬১ শতাংশ। আগের দিন এই হার ছিল ৪০ দশমিক ৯৮ শতাংশ। আগের দিনের চেয়ে গতকাল সুস্থতার হার শূন্য দশমিক ৬৩ শতাংশ বেশি।

অধ্যাপক নাসিমা সুলতানা জানান, দেশে গত ২৪ ঘণ্টায় ১৭ হাজার ৮৭৫ জনের নমুনা পরীক্ষায় ৩ হাজার ৭৭৫ জনের দেহে করোনা ভাইরাস শনাক্ত হয়েছে। মঙ্গলবারের চেয়ে গতকাল ৯৩ জন বেশি শনাক্ত হয়েছে। গতকাল ১৮ হাজার ৪২৬টি নমুনা পরীক্ষায় শনাক্ত হয়েছিল ৩ হাজার ৬৮২ জন। দেশে বর্তমানে করোনা আক্রান্ত মানুষের সংখ্যা ১ লাখ ৪৯ হাজার ২৫৮ জন। এ পর্যন্ত শনাক্তের হার ১৯ দশমিক ৩ শতাংশ। নমুনা পরীক্ষার বিবেচনায় ২৪ ঘণ্টায় শনাক্তের হার ২১ দশমিক ১২ শতাংশ। আগের দিন এ হার ছিল ১৯ দশমিক ৯৮ শতাংশ। আগের দিনের চেয়ে গতকাল শনাক্তের হার ১ দশমিক ১৪ শতাংশ বেশি। একদিনে সর্বোচ্চ শনাক্তের রেকর্ড ৪ হাজার ১৪ জনের। সে তথ্য জানানো হয় গত ২৯ জুনের বুলেটিনে। ডা. নাসিমা সুলতানা জানান, ‘করোনা ভাইরাস শনাক্তে গত ২৪ ঘণ্টায় নমুনা সংগ্রহ করা হয়েছে ১৬ হাজার ৮৯৮টি। আগের দিন সংগ্রহ করা হয়েছিল ১৮ হাজার ৮৬৩টি। মঙ্গলবারের চেয়ে গতকাল ১ হাজার ৯৭১টি নমুনা কম সংগ্রহ করা হয়েছে। গত ২৪ ঘণ্টায় দেশের ৬৯টি পরীক্ষাগারে নমুনা পরীক্ষা হয়েছে ১৭ হাজার ৮৭৫টি। আগের দিন নমুনা পরীক্ষা হয়েছিল ১৮ হাজার ৪২৬টি। গত ২৪ ঘণ্টায় আগের দিনের চেয়ে ৫৫১টি কম নমুনা পরীক্ষা হয়েছে। এ পর্যন্ত দেশে মোট ৭ লাখ ৮৪ হাজার ৩৩৫টি নমুনা পরীক্ষা হয়েছে।

গত ২৪ ঘণ্টায় যারা মারা গেছেন তাদের ৩৮ জন পুরুষ, তিন জন নারী। এদের মধ্যে ত্রি?শোর্ধ্ব চার জন, চল্লি?শোর্ধ্ব পাঁচ জন, পঞ্চা?শোর্ধ্ব ১২ জন, ষা?টোর্ধ্ব ১১ জন, স?ত্তরোর্ধ্ব সাত জন, ৮০ বছরের বেশি বয়সি এক জন এবং শতবর্ষী এক জ?ন রয়েছেন। ২৩ জন মারা গেছে হাসপাতালে এবং বাড়িতে মৃত্যু হয়েছে ১৮ জনের। এদের মধ্যে ঢাকা বিভাগে ১৩ জন, চট্টগ্রাম বিভাগে ১৭ জন, খুলনা বিভাগে পাঁচ জন, বরিশাল বিভাগে তিন জন, সিলেট বিভাগে দুই জন এবং রংপুর বিভাগে এক জন মারা গেছে। গত ২৪ ঘণ্টায় আইসোলেশনে নেওয়া হয়েছে আরো ৯৫৫ জনকে এবং এ পর্যন্ত আইসোলেশনে নেওয়া হয়েছে ২৭ হাজার ৫৪২ জনকে। গত ২৪ ঘণ্টায় আইসোলেশন থেকে ছাড় পেয়েছে ৫৫৫ জন এবং এ পর্যন্ত ছাড় পেয়েছে ১১ হাজার ৯৯৫ জন। বর্তমানে আইসোলেশনে রয়েছে ১৫ হাজার ৫৪৭ জন। গত ২৪ ঘণ্টায় হোম ও প্রাতিষ্ঠানিক মিলিয়ে কোয়ারেন্টাইনে নেওয়া হয়েছে ২ হাজার ৪২৯ জনকে। এ পর্যন্ত কোয়ারেন্টাইনে নেওয়া হয়েছে ৩ লাখ ৬৬ হাজার ২৯৫ জনকে। গত ২৪ ঘণ্টায় কোয়ারেন্টাইন থেকে ছাড় পেয়েছে ৩ হাজার ৪১৪ জন। এ পর্যন্ত কোয়ারেন্টাইন থেকে মোট ছাড় পেয়েছে ৩ লাখ ২ হাজার ৪১৩ জন। বর্তমানে হোম ও প্রাতিষ্ঠানিক মিলিয়ে কোয়ারেন্টাইনে রয়েছে ৬৩ হাজার ৮৮২ জন।

দৈনিক গাইবান্ধা
দৈনিক গাইবান্ধা
জাতীয় বিভাগের পাঠকপ্রিয় খবর