• রোববার   ২৭ সেপ্টেম্বর ২০২০ ||

  • আশ্বিন ১২ ১৪২৭

  • || ০৯ সফর ১৪৪২

১২

‘নদীর তীর সংরক্ষণে স্থায়ী ও টেকসই বাঁধ নির্মাণ করা হবে’

দৈনিক গাইবান্ধা

প্রকাশিত: ৮ আগস্ট ২০২০  

নদীর তীর সংরক্ষণে স্থায়ী ও টেকসই বাঁধ নির্মাণ করা হবে বলে জানিয়েছেন পানি সম্পদ উপ-মন্ত্রী একেএম এনামুল হক শামীম। শুক্রবার (৭ আগস্ট) সকালে মাদারীপুর শহররক্ষা বাঁধের ভেঙে যাওয়া এলাকায় পরিদর্শণে এসে তিনি এ কথা জানান।

একেএম এনামুল হক শামীম বলেন, দেশের অর্থনৈতিক সক্ষমতা বেড়েছে। তাই নদীর তীর সংরক্ষণে আমরা স্থায়ী ও টেকসই বাঁধ নির্মাণ করবো। মাদারীপুর শহর রক্ষা বাঁধ টেকসই ও স্থায়ীভাবে নির্মাণের জন্য একটি টেকনিক্যাল কমিটি গঠন করা হয়েছে। ৫০ কোটি টাকা ব্যয়ের প্রকল্প হাতে নেয়া হয়েছে। শহর রক্ষা বাঁধটি কিভাবে নির্মাণ করলে মাদারীপুরবাসী উপকৃত হবে তা সবার সাথে আলোচনা করে আগামী এক বছরের মধ্যে কাজ শুরু করবো।

তিনি বলেন, ৩৯৪ কোটি টাকা ব্যায়ে মাদারীপুরের শিবচর উপজেলার আড়িয়াখ খাঁ নদীর তীর সংরক্ষণ ও ড্রেজিং শীর্ষক প্রকল্প বাস্তবায়ন করা হবে। বাঁধটি নির্মাণ করবে নৌবাহিনী। একনেকে পাশ হয়েছে। দ্রুত টেন্ডার প্রক্রিয়া শেষ করে বাঁধ নির্মাণের কাজ শুরু করবো। মাননীয় চীফ হুইপ মহোদয় সার্বক্ষণিক খোঁজখবর রাখছেন। দেশের বিভিন্ন নদী ভাঙ্গন কবলিত এলাকায় স্থায়ীভাবে বাঁধ নির্মাণ ও তীর সংরক্ষণের জন্য আট হাজার কোটি টাকা পরিকল্পনা গ্রহণ করা হয়েছে।

পানি সম্পদ উপ-মন্ত্রী আরও বলেন, মাননীয় প্রধানমন্ত্রী নির্দেশনা দিয়েছেন সুপার টাইকের আলোকে চট্টগ্রামের মীরেরসরাই সীতাকুন্ড হয়ে কক্সবাজারের উপকুলীয় অঞ্চল থেকে খুলনা পর্যন্ত প্রতিটি বাঁধ উচুঁ ও প্রসস্ত করে নির্মাণ করার জন্য। এখন প্রতিটি প্রকল্পে ড্রেজিং করা বাধ্যতামূলক। ড্রেজিং এর মাধ্যমে ডুবচরগুলো কেটে দেয়ার জন্য প্রধানমন্ত্রী নির্দেশনা দিয়েছেন। আমরা চাই না একই এলাকায় প্রতি বছর বর্ষা আসলে জরুরী ভিত্তিতে কাজ করতে হয়। আমরা চাই স্থায়ীভাবে সমাধান করা এবং আমরা সে লক্ষ্যেই কাজ করে যাচ্ছি।

তিনি বলেন, নদীতে অবৈধ বালু উত্তোলণকারীদের কাউকেই ছাড় দেয়া হবে না। প্রতিটি জেলায় জেলা প্রশাসকের নেতৃত্বে একটি কমিটি রয়েছে। এজন্যে তাদের নির্দেশ দেয়া হয়েছে, নদীতে যারাই বালু উত্তোলণ করবে তাদের কোনরকম ছাড় নেই। সে যত বড়ই হোক না কেন।

একেএম এনামুল হক শামীম এর আগে মাদারীপুর জেলা প্রশাসন ও পৌরসভার উদ্যোগে গবীর অসহায়দের মাঝে ত্রাণ বিতরণ কার্যক্রমের উদ্বোধন করেন। এ সময় তিনি পৌরসভা সম্মলেন কক্ষে একটি সুধী-সমাবেশে বক্তব্য রাখেন।

এসময় অন্যদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন- সাবেক নৌপরিবহন মন্ত্রী, বাংলাদেশ আওয়ামীলীগের প্রেসিডিয়াম সদস্য ও মাদারীপুর ২ আসনের সংসদ সদস্য শাজাহান খান, বাংলাদেশ পানি উন্নয়ন বোর্ডের মহাপরিচালক কেএম আমিনুল হক, ফরিদপুর জোনের প্রধান প্রকৌশলী ওয়াজেদ উদ্দিন চৌধুরী, তত্ত্ববধায়ক প্রকৌশলী আব্দুল হেকিম, মাদারীপুর জেলা প্রশাসক ড. রহিমা খাতুন, পুলিশ সুপার মোহাম্মদ মাহাবুব হাসান, জেলা আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক কাজল কৃষ্ণ দে, পৌর মেয়র মো. খালিদ হোসেন ইয়াদ, পানি উন্নয়ন বোর্ডের মাদারীপুর জেলার নির্বাহী প্রকৌশলী পার্থ প্রতীম সাহা প্রমুখ।

দৈনিক গাইবান্ধা
দৈনিক গাইবান্ধা
জাতীয় বিভাগের পাঠকপ্রিয় খবর