• বুধবার   ১২ মে ২০২১ ||

  • বৈশাখ ২৮ ১৪২৮

  • || ২৮ রমজান ১৪৪২

তীব্র গরমেও শীতল থাকবেন যেভাবে

দৈনিক গাইবান্ধা

প্রকাশিত: ৪ মে ২০২১  

চলছে গ্রীষ্মকাল। দিন দিন বেড়েই চলেছে গরমের তীব্রতা। প্রচণ্ড গরমে অস্বস্তিকর হয়ে পড়েছে জনজীবন। এর মধ্যেই চলছে পবিত্র রমজান। তাইতো এই সময় নিজেকে সুস্থ রাখা খুব জরুরি।

দেশে করোনা পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনতে চলছে লকডাউন। বাইরে বের হওয়ার ব্যাপারে রয়েছে নিষেধাজ্ঞা। কিন্তু এর মধ্যেই বাড়ির বাইরে কাজের প্রয়োজনে বেরোতেই হয়। তাই এই গরম ও লকডাউনের মধ্যে যদি বাইরে যেতেই হয় তবে একটু বাড়তি সতর্কতা মেনে যাওয়া উচিত। কিছু বিষয় আছে যা অনুসরণ করে চললে এই গরমেও আপনি থাকবে ঠাণ্ডা। চলুন তবে যেনে নেয়া যাক কীভাবে তীব্র গরমেও নিজেকে শীতল রাখবেন-

>> লকডাউনের যদি বাইরে যেতে হয় তাহলে সুতির আরামদায়ক পোশাক পরুন। হালকা শেড বাছুন। মুখে মাস্ক পরুন, রোজা না থাকলে সঙ্গে রাখুন পানির বোতল।

>> খুব ফিটিংস কোনো জামাকাপড় নয়। ওভার সাইজড টিশার্ট বা সুতির ঢিলেঢালা জামা পরুন।

>> গরম বেড়েছে বলেই বন্ধ মর্নিং ওয়াক, এক্সসারসাইজ? একদম নয়। বাড়ির ভেতরেই এক্সসারইজ করুন। সকাল অথবা সন্ধ্যা সুবিধা মতো সময় বেছে নিন। সুস্থ থাকতে এক্সসারসাইজ জরুরি।

>> সিন্থেটিক কিংবা মিক্সড কটন একেবারেই নয়। এতে ত্বকে নানারকম সমস্যা হয়। গরমকালে সবচেয়ে ভালো হলো সুতি। সব সময় সুতির পোশাক পরুন।

>> একটা স্প্রে বোতলে বাড়িতেই গোলাপ জল বানিয়ে নিন। কিংবা তেজপাতা, তুলসীপাতা একসঙ্গে ফুটিয়ে ছেঁকে নিন। ঠাণ্ডা হলে ফ্রিজে ভরে রাখুন। এবার স্প্রে বোতলে ভরে ফেলুন। বেরনোর আগে মুখে স্প্রে করে নিন। গোসলের পরও স্প্রে করতে পারেন।

>> যদি ঘরে বসে কাজের সুযোগ থাকে তাহলে এয়ার কুলার আছে এমন জায়গায় থাকার চেষ্টা করুন। বা ফ্যান আছে এমন জায়গায় বসুন।

>> গরমে ব্যবহার করা যায় এরকম ময়েশ্চারাইজার ব্যবহার করুন। ব্যাগে সব সময় টোনার রাখুন। প্রয়োজনেই যাতে ব্যবহার করতে পারেন।

>> এক লিটার পানিতে লেবুর স্লাইস, শসার স্লাইস রাখুন। সেটি একঘন্টা ফ্রিজে রাখুন। ওই পানি পান করুন। শরীর ভালো থাকবে।

>> দিনের মধ্যে দুই-তিন বার গোসল করুন। কারণ এতে ঘাম ধুয়ে যায়। শরীর ঠাণ্ডা থাকে। সেই সঙ্গে আরামও লাগে।

>> রোদে মুখ ঢেকে বেরনোই ভালো। সেই সঙ্গে পা ঢাকা আর হাত ঢাকা জামা পরুন। এতে ট্যান কম পড়বে। সেই সঙ্গে ধুলা-বালিও কম লাগবে। তেমনই ঢাকা জুতা পরুন।

দৈনিক গাইবান্ধা
দৈনিক গাইবান্ধা