• বুধবার   ১২ মে ২০২১ ||

  • বৈশাখ ২৮ ১৪২৮

  • || ২৮ রমজান ১৪৪২

গরমে সর্দি-কাশি সারানোর ঘরোয়া উপায়

দৈনিক গাইবান্ধা

প্রকাশিত: ১ মে ২০২১  

প্রচন্ড গরমে অনেকেই এখন সর্দি-কাশিতে ভুগছেন! অতিরিক্ত ঘাম হওয়া, বারবার গোসল করা বা ফ্রিজের ঠান্ডা পানি পান করার কারণে সর্দি-কাশি হতে পারে। এই করোনাকালে সাধারণ ঠান্ডা-কাশির লক্ষণ দেখেই কোভিড-১৯ এ আক্রান্ত ভেবে অনেকেই ভুল করেন।

তাই সর্দি-কাশি হলে প্রথমেই আতঙ্কিত না হয়ে বরং ঘরোয়াভাবে তা সারিয়ে তোলার চেষ্টা করুন। ওষুধ বা সিরাপ খাওয়ার আগে জেনে নিন এমন কিছু ঘরোয়া প্রতিকার, যা সর্দি-কাশিসহ বুকে কফ বা শ্লেষ্মার জন্য বিশেষ কার্যকরী-

রসুন: গরমে সর্দি-কাশি সারাতে রসুন বেশ কার্যকরী। এ উপাদানটি সবার রান্নাঘরেই থাকে। রসুন রক্ত পরিশোধক হিসেবে কাজ করে। সর্দি কাশির সমস্যা থেকে মুক্তি পেতে রসুন, লেবু, মরিচ গুঁড়ো এবং মধু একসঙ্গে মিশিয়ে খেতে হবে।

এই মিশ্রণে অ্যান্টি-ইনফ্লেমেটরি এবং অ্যান্টি-মাইক্রোবিয়াল গুণ আছে। মরিচের গুঁড়ো নাকে থার্মোজেনিক প্রভাব ফেলে। লেবুতে আছে ভিটামিন সি, যা রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বাড়াতে কাজ করে।

আদা: সর্দি-কাশি সারাতে আদার উপকারিতা সম্পর্কে সবারই কমবেশি ধারণা আছে! অ্যান্টি-ব্যাকটিরিয়াল বৈশিষ্ট্য আছে এতে। যা গরমে সাধালন ফ্লু প্রতিরোধে সহায়ক।

এজন্য আদা পাতলা টুকরো কেটে নিয়ে পানিতে ভালো করে ফুটিয়ে নিন। এরপর গরম পানিতে লেবুর রস ও মধু মিশিয়ে চায়ের মতো পান করুন। এই মিশ্রণটি আপনার সর্দি-কাশি খুব দ্রুত নিরাময় করবে।

দারুচিনি: সর্দি-কাশি নিরাময়ে দারুচিনি মহৌষধ বলে বিবেচিত! এটি ভাইরাল আক্রমণ এবং অন্যান্য সংক্রমণ নিরাময়ে সাহায্য করে।

এজন্য কিছুটা পানি আস্ত দারুচিনি ভালো করে ফুটিয়ে নিন। এই পানির সঙ্গে এক চামচ মধু মিশিয়ে দিনে একবার চায়ের মতো পান করুন। ফলাফল খুব দ্রুত টের পাবেন!

পেঁয়াজ: রান্নাঘরের আরও একটি উপাদান হলো পেঁয়াজ। সর্দি-কাশি সারাতে পেঁয়াজ হতে পারে একটি কার্যকর প্রতিকার। শুধু শরীর থেকে বিষাক্ত পদার্থ বের করতেই সহায়তা করে না পেঁয়াজ; এতে উপস্থিত গুণাগুণ শরীরের ক্ষতিকর ব্যাকটেরিয়াকেও ধ্বংস করে দেয়।

একটি পাত্রে কয়েক টুকরো পেঁয়াজ কেটে মধু মিশিয়ে নিন। পাত্রটি সারারাত ঢেকে রাখুন। সকালে খালি পেটে এর থেকে বেরিয়ে আসা সামান্য তরলটুকু পান করলেই উপকার মিলবে তাৎক্ষণিক।

তুলসি: যুগ যুগ ধরে সর্দি-কাশির ঘরোয়া টোটকা হিসেবে তুলসি ব্যবহৃত হয়ে আসছে। এতে থাকা অ্যান্টি-মাইক্রোবিয়াল বৈশিষ্ট্য সর্দি-কাশি সারায়। নাক বন্ধ থাকলেও খুলতে সাহায্য করে তুরসির গুণাগুণ।

ব্যবহারের জন্য প্রথমে তুলসি পাতা ও আদা একসঙ্গে গরম পানিতে ফুটিয়ে নিন। এবার গরম পানিতে কয়েক ফোঁটা মধু মিশিয়ে চায়ের মতো পান করুন। অতিরিক্ত ঠান্ডা লাগলে এই মিশ্রণটি দিনে দুইবার পান করলে দ্রুত সুস্থবোধ করবেন।

দৈনিক গাইবান্ধা
দৈনিক গাইবান্ধা