• বুধবার   ১২ মে ২০২১ ||

  • বৈশাখ ২৮ ১৪২৮

  • || ২৮ রমজান ১৪৪২

আইপিএলের সব অর্জন অক্সিজেন কিনতে দিচ্ছেন ধাওয়ান

দৈনিক গাইবান্ধা

প্রকাশিত: ১ মে ২০২১  

করোনাভাইরাসের প্রাদুর্ভাবের মধ্যে ইন্ডিয়ান প্রিমিয়ার লিগ (আইপিএল) ক্রিকেটের খেলা চালিয়ে নেয়ায় তুমুল সমালোচনার মুখে পড়তে হয়েছে সংশ্লিষ্ট সবাইকে। আয়োজকদের পক্ষ থেকে বলা হয়েছে, করোনার কঠিন সময়ে আইপিএলের মাধ্যমে কয়েক ঘণ্টার জন্য মানুষের মুখে হাসি ফোটাচ্ছেন তারা। যা হয়তো বয়ে আনবে মানসিক প্রশান্তি।

শুধু এই মানসিক শান্তিই নয়, এখন আইপিএল থেকে করোনার বিরুদ্ধে লড়াই করার আর্থিক সহায়তাও পাচ্ছে ভারত। দেশটির সবচেয়ে বড় ক্রিকেট তারকা শচিন টেন্ডুলকার এরই মধ্যে দিয়েছে ১ কোটি রুপি অনুদান। তারই পদাঙ্ক অনুসরণ করে এবার এগিয়ে এলেন বর্তমান জাতীয় দলের বাঁহাতি ওপেনার শিখর ধাওয়ান।

শুক্রবার অক্সিজেন কেনার জন্য মিশন অক্সিজেন ফান্ডে ২০ লাখ রুপি অনুদানের ঘোষণা দিয়েছেন ধাওয়ান। শুধু তাই নয়, চলতি আইপিএলে দিল্লি ক্যাপিট্যালসের হয়ে খেলে যা কিছু ব্যক্তিগত পুরস্কার পাবেন ধাওয়ান, তার সবই তিনি দান করবেন মিশন অক্সিজেন ফান্ডে। এরই মধ্যে দুইবার ম্যাচসেরার পুরস্কার জিতেছেন ধাওয়ান।

টুইটারে তিনি লিখেছেন, ‘আমরা এখন অনিশ্চিত সময়ের মধ্যে আছি। এখন একে অপরকে সাহায্যের জন্য সম্ভাব্য সবকিছু করা উচিত আমাদের। বছরের পর বছর ধরে আমি আপনাদের কাছ থেকে নিঃশর্ত ভালোবাসা এবং অকুণ্ঠ সমর্থন পেয়েছি। যার ফলে আমি সত্যিই কৃতজ্ঞ।’

‘এখন আমার পালা, দেশের মানুষের জন্য কিছু করার। আমি নগদ ২০ লাখ টাকার অনুদান দিবো। পাশাপাশি এবারের আইপিএল থেকে পারফরম্যান্সের ভিত্তিতে যত আয় করব, সব অর্থ মিশন অক্সিজেন হেল্প ফান্ডে দান করব।’

‘আমি সম্মুখসারীর সকল যোদ্ধাদের ধন্যবাদ ও কৃতজ্ঞতা জানাতে চাই। আমরা আপনাদের কাছে আজীবন ঋণী। আমি সবাইকে আহ্বান জানাচ্ছি, স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলুন, মাস্ক পরুন, স্যানিটাইজ করুন এবং সামাজিক দুরত্ব বজায় রাখুন। দয়া করে প্রয়োজন ছাড়া কেউ বের হবেন না। ঐক্যবদ্ধ থেকে আমরা এ লড়াইয়ে জিতব।’

এছাড়া একইদিন সাহায্যের হাত বাড়িয়ে দিয়েছেন রাজস্থান রয়্যালসের বাঁহাতি পেসার জয়দেব উনাদকাত। আইপিএল পারিশ্রমিকের ১০ শতাংশ (প্রায় ৮৪ লাখ টাকা) দান করবেন বলে জানিয়েছেন তিনি। এছাড়া পাঞ্জাব কিংসের ক্যারিবীয় ব্যাটসম্যান নিকোলাস পুরানও নিজের আইপিএল পারিশ্রমিকের একটা অংশ অনুদান হিসেবে দেয়ার কথা বলেছেন।

উল্লেখ্য, আইপিএল থেকে সবার আগে সাহায্যের হাত বাড়িয়ে দিয়েছিলেন কলকাতা নাইট রাইডার্সের অস্ট্রেলিয়ান পেসার প্যাট কামিনস। তিনি পিএম কেয়ার ফান্ডে দান করেন ৫০ হাজার ডলার। কামিনসের স্বদেশি সাবেক পেসার ব্রেট লি দান করেন ১টি বিটকয়েন, যার বাজার মূল্য প্রায় ৫৭ লাখ রুপি।

দৈনিক গাইবান্ধা
দৈনিক গাইবান্ধা