• রোববার   ০১ নভেম্বর ২০২০ ||

  • কার্তিক ১৬ ১৪২৭

  • || ১৫ রবিউল আউয়াল ১৪৪২

আইপিএলের ফাঁকা গ্যালারিতেও দর্শকদের উল্লাসধ্বনি

দৈনিক গাইবান্ধা

প্রকাশিত: ২০ সেপ্টেম্বর ২০২০  

শনিবার শুরু হয়ে গেছে ইন্ডিয়ান প্রিমিয়ার লিগের ১৩তম আসর। গত আসরের দুই ফাইনালিস্ট মুম্বাই ইন্ডিয়ানস ও চেন্নাই সুপার কিংসের মধ্যকার ম্যাচ দিয়ে পর্দা উঠেছে এবারের আসরের। করোনাভাইরাসের কারণে পুরোপুরি ফাঁকা গ্যালারি, এমনকি নেই সংবাদমাধ্যমের প্রবেশাধিকারও।

শুধু দর্শক নয়, গ্ল্যামারে ভরপুর আইপিএলের অন্যতম আকর্ষণ যে চিয়ারলিডার; তারাও নেই এবারের আইপিএলে। তাই বলে যে বিনোদনের ঘাটতি রাখবেন আয়োজকরা, এমনটা ভাবার কারণ নেই। রাখেননিও তারা। টুর্নামেন্টের উদ্বোধনী ম্যাচেই কৃত্রিম শব্দের মাধ্যমে খেলোয়াড় ও টিভির দর্শকদের মাতিয়ে রাখার চেষ্টা করেছে আয়োজকরা।

যার ফলে গ্যালারি ফাঁকা থাকলেও, ম্যাচের মাঝে প্রায়ই শোনা গেছে ‘চেন্নাই, চেন্নাই’; ‘মুম্বাই, মুম্বাই’ কিংবা ‘ধোনি, ধোনি’ চিৎকার। আর প্রতিটি ভালো ডেলিভারি কিংবা চার-ছয়ের পর দর্শকদের উল্লাসধ্বনি তো ছিলোই। এছাড়াও বাউন্ডারি সীমানার পাশে বিজ্ঞাপনী বোর্ডগুলোতে চালানো হয়েছে চিয়ারলিডারদের নাচের ভিডিও।

আগেই জানানো হয়েছিল, দর্শকশূন্য গ্যালারিতে খেলা হলেও, কৃত্রিম দর্শকের ব্যবস্থা করা হবে। যেনো খেলোয়াড়রা দীর্ঘদিনের যে অভ্যাস তা মেনেই খেলতে পারেন। এছাড়া নীরব মাঠে আইপিএল খেলা হলে, তা ঠিক আইপিএলের মতো হবে না- এমনটাই ছিল আয়োজকদের ভাষ্য।

তাই যেই কথা সেই কাজ। প্রথম ম্যাচ থেকেই ভার্চুয়াল দর্শক এবং চিয়ারলিডারের ব্যবস্থা। এছাড়া অনলাইন দর্শকেরও ব্যবস্থা ছিল মুম্বাই-চেন্নাই ম্যাচটিতে। অর্থাৎ ঘরে বসে টিভিতে ম্যাচ দেখতে থাকা দর্শকদের নানান প্রতিক্রিয়া দেখানো হয়েছে মাঠের জায়ান্ট স্ক্রিনে। পুরো আসরজুড়েই এমনটা করা হবে বলে জানা গিয়েছে।

উত্তেজনাপূর্ণ ম্যাচে বর্তমান চ্যাম্পিয়ন মুম্বাই ইন্ডিয়ানসকে ৫ উইকেটে হারিয়ে উড়ন্ত সূচনা করেছে চেন্নাই সুপার কিংস। আগে ব্যাট করে মুম্বাই করেছিল ১৬২ রান। জবাবে ৪ বল হাতে রেখেই জয়ের বন্দরে পৌঁছে গেছে চেন্নাই। আম্বাতি রাইডু জিতেছেন ম্যাচসেরার পুরস্কার, খেলেছেন ৪৮ বলে ৭১ রানের ম্যাচজয়ী ইনিংস।

দৈনিক গাইবান্ধা
দৈনিক গাইবান্ধা